ধারাভাষ্য দিতে দিতে ঘুমিয়ে পড়লেন ধারভাষ্যকার, ব্যাটসম্যান আউট তবু টিভি পুরো চুপ

কিছুক্ষণ ধরেই টিভি থেকে কোনও আওয়াজ আসছে না। সবাই অবাক, না টিভি তো মিউট করা নেই, টেকনিক্যাল ফল্টও নয়। তাহলে! অথচ গুরুত্বপূর্ণ একটা উইকেট পড়ল। এই সময় টিভির আওয়াজ না এলে হয়!

Updated: Jan 23, 2014, 02:12 PM IST

কিছুক্ষণ ধরেই টিভি থেকে কোনও আওয়াজ আসছে না। সবাই অবাক, না টিভি তো মিউট করা নেই, টেকনিক্যাল ফল্টও নয়। তাহলে! অথচ গুরুত্বপূর্ণ একটা উইকেট পড়ল। এই সময় টিভির আওয়াজ না এলে হয়!

এদিকে, কমেন্ট্রি বক্সের বাইরে টেকনিক্যাল বক্সে বসে মাথায় হাত চ্যানেলের প্রোডিউসারের। জোর ধমক দিলেন টেকনিক্যাল লোকেদের। বললনে, "এ কি চাকরিটা খাবি না কি, তাড়াতাড়ি সাউন্ডের সব সমস্যা সাড়িও নাও, না হলে একসঙ্গে সবার চাকরি যাবে।" টেকনিক্যাল লোকেদের জবাব, "না স্যর সাউন্ড আসছে না এই সমস্যাটায় আমাদের তরফ থেকে কোনও ত্রুটি নেই।" তাহলে! প্রডিউসার ফের মাথায় হাত দিয়ে বসে পড়লেন। তাহলে!

সব ঠিক আছে তবু ধারাভাষ্য দেওয়ার বক্স থেকে আওয়াজ আসছে না! কেন? প্রডিউসার তক্ষুনি ছুটে গেলেন কমেন্ট্রি বক্সে। বন্ধ দরজা বেশ জোরে খুলে বুঝতে পারলেন সমস্যাটা। দেখলেন ধারাভাষ্যকার নাক ডেকে ঘুমোচ্ছেন। তাই টিভি চুপচাপ। আসলে লাঞ্চটা একটু বেশীই করে নিয়েছিলেন ধারাভাষ্যকার। তাই আর কী ঠাণ্ডা বক্সে বসে চোখটা জুড়িয়ে এসেছিল। দুর্ভাগ্য সেই সময় কমেন্ট্রি বক্সে তিনিই ছিলেন একমাত্র কমেনটেটর। অন্য কেউ থাকলে না হয় ঘুমোতে দিত না তাঁকে।

ঘটনাটি ঘটেছে পাকিস্তানের এক ঘরোয়া ম্যাচে। সেই ধারাভাষ্যকারের নাম প্রকাশ করা হয়নি।

Tags: