সচিন আউট ছিলেন কি! প্রশ্ন ইডেন জুড়ে, কাঠগড়ায় নাইজেল লং আর বিসিসিআইয়ের ডিআরএস বিরোধি মনোভাব

Last Updated: Thursday, November 7, 2013 - 13:39

১০ রানে শিলিংফোর্ডের দুসরা বলে এলবিডব্লিউ হয়ে যাওয়ার পর ইডেন একেবারে থম মেরে গিয়েছিল। সচিনের ফিরে যাওয়ার পর রোহিত শর্মার অভিষেক টেস্টে শতরান ইডেন গার্ডনকে কিছুটা হলেও প্রাণ ফিরিয়ে দিল। তবে আফশোস যাচ্ছে না। দেখে শুনে মনে হচ্ছে সচিনের আউটটা কোথাও যেন ম্যাচের প্রাণশক্তিটাই কেড়ে নিয়েছে।
যদিও ম্যাচের যা হালচাল, তাতে দ্বিতীয় ইনিংসে সচিনের আরও একবার ব্যাট করতে নামার সুযোগ পাওয়ার কথা। কাঁটা দুটো ফ্যাক্টর-যদি ভারত ১০০ বা ১৫০ রানের মতো লিড নিয়ে নিতে পারে, আর এই তুর্কিনাচন পিচে দ্বিতীয় ইনিংসে অশ্বিন-ওঝারা গেইলদের একেবারে অন্ধ করে দেন তাহলে।
ইডেন জুড়ে একটাই আলোচনা। সচিন কি সত্যিই আউট ছিলেন! ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা বলছেন, না ওটা আউট নয়। ধারাভাষ্যকরারা পর্যন্ত বলতে বাধ্য হচ্ছেন, সচিন দুর্ভাগ্যের শিকার। আম্পায়ার নাইজেল লংয়ের এই বিতর্কিত সিদ্ধান্ত নিয়ে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটেও তোলপাড় শুরু হয়েছে। ৪৪ বছরের ব্রিটিশ আম্পায়ার সদ্য সমাপ্ত অস্ট্রেলিয়া সিরিজেও আম্পায়ারের দায়িত্বে ছিলেন। লংয়ের পাশাপাশি বিসিসিআইয়ের ডিআরএস বিরোধি মনোভাবও কাঠগড়ায় উঠেছে। টিভি ক্যামেরার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নেওয়া হলে সচিন কিছুতেই আউট হতেন না,এমনটাই বিশ্বাস ক্রিকেটপ্রেমীদের। (নিচে কমেন্ট সেকশনে লিখুন আপনার মতামত)

প্রথম ইনিংসে ক্যারিবিয়ানদের ২৩৪ রানের জবাবে আজ ৩৭ রানে ভারতীয় ইনিংস শুরু করেন শিখর ধাওয়ন ও মুরলী বিজয়৷ কিন্তু ৫৭ রানে ২ উইকেট হারিয়ে অনেকটাই চাপে পড়ে যান ধোনিরা৷ তারপরই ব্যাট হাতে ২২ গজে সচিন৷ দর্শকরাও তুমুল হর্ষধ্বনীতে স্বাগত জানালেন তাঁকে৷ কিন্তু সচিন আউট হতেই ম্যাচের আকর্ষণ অনেকটাই কমে যায়। সচিন আউট হয়ে যাওয়ার পর ধোনি আক্রমণাত্মক মেজাজে শুরু করেন। কিন্তু লাঞ্চের পর টিনো বেস্টের বলে ৪২ রানে আউট হয়ে যান ভারতীয় অধিনায়ক। তবে এরপর অশ্বিনকে সঙ্গি করে ভারতকে নিরাপদ দূরত্বে নিয়ে যান রোহিত শর্মা।



First Published: Thursday, November 7, 2013 - 15:31


comments powered by Disqus