অগ্নিপরীক্ষার আগে পরীক্ষায় বসতে পারলেন না ধোনি

অ্যাসিড টেস্টের আগে ধোনি মহাসমস্যা পড়েছেন। ব্যস্ত ক্রীড়াসূচির চাপে বি.কম পরীক্ষায় বসতে পারলেন না ভারত অধিনায়ক। আর এটা হয়ে আসছে গত পাঁচ বছর ধরে। ২০০৮ স্নাতক স্তরে বাণিজ্য শাখায় সেন্ট জেভিয়ার্সে ভর্তি হন ধোনি। কিন্তু গত চার বছরের মত এবারও প্রথম সেমিস্টারের পরীক্ষায় বসতে পারলেন না। অথচ ধোনির সঙ্গে যারা ওই একই সঙ্গে এনরোল করেছিলেন, তাঁরা এবার বি কম ডিগ্রি হাতে পেয়ে গেলেন।

Updated: Feb 19, 2013, 07:13 PM IST

অ্যাসিড টেস্টের আগে ধোনি মহাসমস্যা পড়েছেন। ব্যস্ত ক্রীড়াসূচির চাপে বি.কম পরীক্ষায় বসতে পারলেন না ভারত অধিনায়ক। আর এটা হয়ে আসছে গত পাঁচ বছর ধরে। ২০০৮ স্নাতক স্তরে বাণিজ্য শাখায় সেন্ট জেভিয়ার্সে ভর্তি হন ধোনি। কিন্তু গত চার বছরের মত এবারও প্রথম সেমিস্টারের পরীক্ষায় বসতে পারলেন না। অথচ ধোনির সঙ্গে যারা ওই একই সঙ্গে এনরোল করেছিলেন, তাঁরা এবার বি কম ডিগ্রি হাতে পেয়ে গেলেন।
অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে আসন্ন টেস্ট সিরিজ মহেন্দ্র সিং ধোনির কাছে অ্যাসিড টেস্ট। কারন এই সিরিজ হারলে খোয়াতে হতে পারে ভারতীয় দলের অধিনায়কের পদ। ধোনির নেতৃত্বে ভারতীয় দল শেষ সতেরোটি টেস্টের মধ্যে দশটিতে হেরেছে। ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার কাছে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে টিম ইন্ডিয়া। গতবছর ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের কাছে  টেস্ট সিরিজে হার ধোনিকে সবথেকে চাপে ফেলে দেয়। নির্বাচক কমিটির বৈঠকেও দুজন নির্বাচক ধোনির পারফরম্যান্স নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রশ্ন তুলেছেন।
এই মুহূর্তে ভারতের সিনিয়র ক্রিকেটারদের কাছে দলে নিজেকে টিকিয়ে রাখাটা খুবই কঠিন হয়ে পড়েছে। সেদিক থেকে দেখলে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে আসন্ন টেস্ট সিরিজে যদি ভারত হারে তাহলে শুধু ধোনির নেতৃত্ব নয় টেস্ট দলে থাকাটাও অনিশ্চিত হয়ে পড়বে। একদিকে ধোনির কাছে যেমন এই সিরিজ গুরুত্বপূর্ণ তেমনই অসি অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্কের কাছেও এই সিরিজ রীতিমত চ্যালেঞ্জের। কারণ কিম হিউজের পর ক্লার্ক সবথেকে দুর্বল দল নিয়ে ভারত সফরে এসেছেন।