দুরন্ত হ্যাটট্রিক জয়ে আই লিগ জমিয়ে দিল ইস্টবেঙ্গল

Last Updated: Saturday, April 12, 2014 - 21:04

ইস্টবেঙ্গল (৩) পুণে এফসি (১)
(চিডি, সুয়েকা-১) (পাভলোভিচ)

আই লিগে জয়ের হ্যাটট্রিক ইস্টবেঙ্গলের। পুণে এফ সি-কে ৩-১ গোলে হারিয়ে আই লিগের খেতাবি দৌড় জমিয়ে দিল আর্মান্দো কোলাসোর দল। ২১ ম্যাচে ইস্টবেঙ্গলের পয়েন্ট ৩৭। অন্যদিকে, লিগ শীর্ষে থাকা বেঙ্গালুরুর পয়েন্ট ২২ ম্যাচে ৪১। খেতাবি আশা জিইয়ে রাখতে হলে শনিবার জিততেই হত লাল-হলুদকে।

প্রথম কুড়ি মিনিটের মধ্যেই লিড পেয়ে যায় ইস্টবেঙ্গল। পুণে ডিফেন্ডারের ভুল পুরোমাত্রায় কাজে লাগান এডে চিড্ডি। সাত গোল করে চলতি আই লিগে ইস্টবেঙ্গলের সর্বোচ্চ গোলদাতা এখন নাইজেরীয় তারকাই। বিরতির আগে ২-০ গোলে এগিয়ে যায় লাল-হলুদ। সুয়েকার সাজানো পাস থেকে ব্যবধান বাড়ান ডিকা। দ্বিতীয়ার্ধে মরিয়া হয়ে ঝাঁপায় পুণে এফ সি। পরিবর্ত হিসাবে পাভলোভিচকে নামিয়ে বাজিমাত করেন পুণের ডাচ কোচ। পাভলোভিচের অনবদ্য গোলেই ব্যবধান কমায় পুণের কর্পোরেট দলটি। যদিও ইস্টবেঙ্গলের জয় নিশ্চিত করে দেয় ডিকার দুরপাল্লার শট। বাঁ পায়ের ট্রেডমার্ক শটে গোল করাটা যেন অভ্যাসে পরিণত করে ফেলেছেন মিজোরামের এই মিডফিল্ডার। পুণে এফ সি-র বিরুদ্ধে জয় ইস্টবেঙ্গলের খেতাবি সম্ভাবনা অনেকটাই বাড়িয়ে দিল। লাল-হলুদের পরের দুটো ম্যাচ অ্যাওয়ে।

জোড়া গোল করে ম্যাচের নায়ক ডিকা। কিন্তু এদিন নজর কাড়লেন একজনই। রুইজি সুয়েকা। আদ্যন্ত টিমম্যানের মত সুয়েকা এদিন স্বার্থপরের মত গোল না করে বল বাড়িয়ে দিলেন ডিকাকে। যেখান থেকে ডিকার প্রথম গোল।সুয়েকা প্রসঙ্গ উঠতেই ডিকার গলায় শুধুই প্রশংসা। আর টিম ম্যান সুয়েকার দাবি,ডিকাই আজ যোগ্য নায়ক। রাংডাজায়েড ম্যাচে কোলাসো-সুয়েকার ঝামেলা আজ অতীত ইস্টবেঙ্গলে। সুয়েকার প্রশংসায় পঞ্চমুখ কোলাসোও। চার্চিল ব্রাদার্সের বিরুদ্ধে অ্যাওয়ে ম্যাচে নওবা ও ভাসুমকে অতিরিক্ত ফুটবলার হিসেবে নিয়ে যাচ্ছে ইস্টবেঙ্গল।



First Published: Saturday, April 12, 2014 - 20:59


comments powered by Disqus