জার্মানিকে দুরমুশ করে ইউরো ফাইনালে ইতালি

মারিও বালতেলির জোড়া গোলে ইউরো কাপের ফাইনালে পৌঁছে গেল ইতালি। বৃহস্পতিবার ওয়ারশ-তে দ্বিতীয় সেমিফাইনালে তারা ২-১ গোলে হারাল জার্মানিকে। প্রথামার্ধের ২০ মিনিটের মাথায় ইতালির হয়ে প্রথম গোলটি করেন ম্যাঞ্চেস্টার সিটির স্ট্রাইকার বালতেলি। অ্যান্টনিও ক্যাসানোর ক্রস থেকে মাথা ছুঁইয়ে বল জার্মান জালে পাঠান বছর ২১ বালতেলি। ৩৬ মিনিটের মাথায় একক প্রচেষ্টায় দুরন্ত শটে গোল করেন বালতেলি।

Updated: Jun 29, 2012, 09:33 AM IST

মারিও বালতেলির জোড়া গোলে ইউরো কাপের ফাইনালে পৌঁছে গেল ইতালি। বৃহস্পতিবার ওয়ারশ-তে দ্বিতীয় সেমিফাইনালে তারা ২-১ গোলে হারাল জার্মানিকে। প্রথামার্ধের ২০ মিনিটের মাথায় ইতালির হয়ে প্রথম গোলটি করেন ম্যাঞ্চেস্টার সিটির স্ট্রাইকার বালতেলি। অ্যান্টনিও ক্যাসানোর ক্রস থেকে মাথা ছুঁইয়ে বল জার্মান জালে পাঠান বছর ২১ বালতেলি। ৩৬ মিনিটের মাথায় একক প্রচেষ্টায় দুরন্ত শটে গোল করেন বালতেলি। দু`টি ক্ষেত্রেই জার্মান গোলরক্ষক ম্যানুয়েল নয়য়ারের কিছু করার ছিল না।
দ্বিতীয় গোলের পর উচ্ছ্বসিত বালাতোলি হলুদ কার্ডের পরোয়া না করেই গায়ের জার্সি খুলে ফেলেন। পিঠে আঁকা তিনটি সমান্তরাল নীল রেখা (আজুরির চিহ্ন) দেখান দর্শকদের। প্রসঙ্গত, ইউরো কাপে ইতালীর প্রথম ম্যাচে ইতালির এই কৃষ্ণাঙ্গ স্ট্রাইকারের উদ্দেশ্যে বাঁদরের ডাক ডেকেছিলেন ইউক্রেনের সমর্থকরা। তা নিয়ে প্রবল বিতর্কও হয়েছিল। এদিন মাঠেই সমস্ত বিদ্রুপের জবাব দিলেন বালাতোলি। দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের রাশ নিজেদের হাতে তুলে নিলেও, ইতালির জালে বল রাখতে ব্যর্থ হন ফিলিপ লাম, মিরোস্লাভ ক্লোসে, পোডলস্কিরা। শেষে ইঞ্জুরি টাইমে বক্সে হ্যান্ডবল করায় পেনাল্টি পায় জার্মানি। গোল করেন ওজিল। রবিবার ইউরো কাপের ফাইনালে ইতালির প্রতিপক্ষ স্পেন।