ডার্বি জ্বরে ভুগছে কলকাতা

মরসুমের প্রথম ডার্বিকে ঘিরে উন্মাদনার পারদ চড়ছে গলি থেকে রাজপথে। চিড্ডি-ওডাফার দ্বৈরথ দেখতে মুখিয়ে আছেন বাংলার ফুটবলপ্রেমীরা। বড় ম্যাচকে ঘিরে একে অপরকে টেক্কা দিতে প্রস্তুত। রবিবার যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে মরসুমের প্রথম ডার্বি।

Updated: Dec 9, 2012, 10:53 AM IST

মরসুমের প্রথম ডার্বিকে ঘিরে উন্মাদনার পারদ চড়ছে গলি থেকে রাজপথে। চিড্ডি-ওডাফার দ্বৈরথ দেখতে মুখিয়ে আছেন বাংলার ফুটবলপ্রেমীরা। বড় ম্যাচকে ঘিরে একে অপরকে টেক্কা দিতে প্রস্তুত। রবিবার যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে মরসুমের প্রথম ডার্বি। ওডাফা-চিড্ডিদের লড়াইয়ের আগে জাতীয় লিগ আর আই লিগে দুই দলের লড়াইয়ের পরিসংখ্যান অন্তত বলছে একটু হলেও এগিয়ে রয়েছে ইস্টবেঙ্গল।
 
আই লিগ আর জাতীয় লিগ মিলিয়ে এর আগে মোহনবাগান আর ইস্টবেঙ্গল মুখোমুখি হয়েছে ৩০ বার। ইস্টবেঙ্গল জিতেছে ১২টি ম্যাচ। আর ১০টি ম্যাচে জয়লাভ করেছে মোহনবাগান। আটটি ম্যাচ অমীমাংসিতভাবে শেষ হয়েছে। ডার্বি ম্যাচে ইস্টবেঙ্গল মোট গোল করেছে ৩৪টি। অপরদিকে ২৮টি গোল করেছে মোহনবাগান। দুই দলের শেষ সাক্ষাত শেষ হয়েছিল অমীমাংসিতভাবে। যুবভারতীতে খেলার ফল ছিল এক-এক। ইস্টবেঙ্গলের হয়ে গোল করেছিলেন রবিন সিং।মোহনবাগানের হয়ে গোল করেছিলেন ওডাফা।
 
এখনও পর্যন্ত জাতীয় লিগের ডার্বিতে সর্বোচ্চ গোলদাতা ব্যারেটো। সাতটি গোল রয়েছে ব্রাজিলীয় স্ট্রাইকারের। ছয় গোল করে তারপরেই আছেন বাইচুং।