নির্বাসন কাটিয়ে অলিম্পিকে ফিরল ভারত

Last Updated: Wednesday, May 15, 2013 - 15:44

আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি)-র দাবি মেনে নেওয়ায় অলিম্পিকে ফিরল ভারত। নতুন করে নির্বাচনে রাজি আইওএ। আজই ভারতীয় অলিম্পিক সংস্থার নির্বাসন ওঠা নিয়ে বৈঠক হল সুইজারল্যান্ডের লুসানে৷ সেই বৈঠকে ভারতীয় অলিম্পিক সংস্থা আইওসি-র নিয়ম মেনে নির্বাচনে রাজি হওয়ায় বরফ গলল। নির্বাসন তুলতে অভিনব বিন্দ্রা কর্তাদের সঙ্গে ভারতের হয়ে সওয়াল করেন ৷
গত বছর ডিসেম্বরের পাঁচ তারিখ আইওসি-র তৈরি করে দেওয়া নিয়ম মেনে নির্বাচন না করায় ইন্ডিয়ান অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনকে (আইওএ) সাসপেন্ড করে ছিল আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি)। যার ফলে এশিয়াড-সহ কোনও প্রতিযোগিতায় যোগ দিতে পারবেন না ভারতীয় ক্রীড়াবিদরা। শুধু তাই নয়, এই সাসপেনশন জারি থাকলে আইওসি এ দেশের খেলাধুলার উন্নতির জন্য যে বিশাল আর্থিক অনুদান দেয় তা থেকেও বঞ্চিত হত ভারত। শেষ অবধি আইওসি-কর্তারা দেশজুড়ে চাপের কাছে মাথানত করায় নির্বাসন উঠল।
পুরো ঘটনার জন্য দায়ী ছিল আই ও এ-র অভ্যন্তরীণ রাজনীতি। যাতে জড়িয়ে পড়েছে কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রকও। সব দেখে হতাশ ক্রীড়াবিদরা। তাঁরা আশঙ্কায় ২০১৬-র রিও অলিম্পিকে ভারত টিম নামাতে পারবে তো? ভারতের ফিরে আসার তিন রাস্তা কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রককে সক্রিয় হয়ে শাস্তির বিরুদ্ধে আবেদন জানাতে হবে। ইন্ডিয়ান অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাচন করতে হবে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির নিয়ম মেনে। সেখানে আইওসি পরিদর্শকের উপস্থিতি অপরিহার্য।

ঝামেলার শুরু কমনওয়েলথ গেমস কেলেঙ্কারির নায়ক সুরেশ কলমদীর ঘনিষ্ঠ ললিত ভানোত আইওএ নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সচিব নির্বাচিত হওয়ায়। তার ওপর আবার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় প্রেসিডেন্ট পদে বক্সিং ফেডারেশনের অভয় সিংহ চৌটালার নির্বাচিত হওয়াটা সমস্যা আরও বাড়িয়ে তোলে। হরিয়ানার রাজনৈতিক এই নেতার বিরুদ্ধে দাঁড়ান আইওএর প্রাক্তন সচিব রণধীর সিংহ। যিনি আবার আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির সদস্য। পরে রণধীর শেষ মুহূর্তে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান। ভারতকে নির্বাসনে পাঠাতে রণধীরের হাত ছিল বলে মনে করছেন অভয় সিংহ চৌতালা, বিজয় মালহোত্রা গোষ্ঠী।



First Published: Wednesday, May 15, 2013 - 15:49


comments powered by Disqus