`গুরু পাপে` `লঘু` শাস্তি হল ইশান্ত-আকমলদের

রবিবার মৈত্রীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচেই `যুদ্ধ` বাধানোর দায়ে শাস্তির কোপে পড়লেন ইশান্ত শর্মা ও কামরন আকমল। অবশ্য খুব অল্প শাস্তিতেই পার পেয়ে গেলেন ইশান্তরা। বেশ বড়সড় বাকবিতণ্ডার পরেও কেবলমাত্র ম্যাচ পারিশ্রমিকের সামান্য কিছু অংশ খোয়ানোটাই শাস্তি হিসাবে দেওয়া হল ইশান্ত, কামরনদের। বাকযুদ্ধে জড়িয়ে পড়ার ঘটনায় আইসিসির সবচেয়ে কম শাস্তির ধারাতেই অভিযুক্ত হলেন ইশান্ত-কামরনরা।

Updated: Dec 26, 2012, 11:21 PM IST

রবিবার মৈত্রীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচেই `যুদ্ধ` বাধানোর দায়ে শাস্তির কোপে পড়লেন ইশান্ত শর্মা ও কামরন আকমল। অবশ্য খুব অল্প শাস্তিতেই পার পেয়ে গেলেন ইশান্তরা। বেশ বড়সড় বাকবিতণ্ডার পরেও কেবলমাত্র ম্যাচ পারিশ্রমিকের সামান্য কিছু অংশ খোয়ানোটাই শাস্তি হিসাবে দেওয়া হল ইশান্ত, কামরনদের। বাকযুদ্ধে জড়িয়ে পড়ার ঘটনায় আইসিসির সবচেয়ে কম শাস্তির ধারাতেই অভিযুক্ত হলেন ইশান্ত-কামরনরা। ইশান্তকে শাস্তি হিসাবে ম্যাচ পারিশ্রমিকের ১৫ শতাংশ জরিমানা করা হল। আর কামরন আকমলকে ম্যাচ পারিশ্রমিকের মাত্র ৫ শতাংশ জরিমানা করা হল।
শাস্তিটা যে বড্ড কম হয়ে গেল সে কথা পিছনে স্বীকার করে নিচ্ছে দুই শিবিরও। এত হাইভোল্টেজ একটা সিরিজে যেখানে বাইশ গজের বাইরেও দুদেশের সম্পর্কের একটা বার্তা থাকছে সেখানে ইশান্তের মাথাগরম করার ঘটনার শাস্তিটা আরও জোরালো হওয়া উচিত ছিল বলেই মনে করছে ক্রিকেট মহল।
ভারত-পাক ক্রিকেট ম্যাচ মানেই মাঠে ঝামেলা। সেটা আরও একবার প্রমাণ হল মঙ্গলবার। বেঙ্গালুরুতে দুদেশের মধ্যে প্রথম টি-২০ ম্যাচে ঝামেলায় জড়ালেন ইশান্ত শর্মা এবং কামরান আকমল। ঘটনার সূত্রপাত ইশান্তের আবেদনে আকমলের পক্ষে আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত যাওয়ায়। ইশান্ত নো বল করায় আকমলকে আউট দেননি আম্পায়ার। তার পরের বলে ফের বিট হন আকমল। তারপরই দুজনের মধ্যে ঝামেলা বাঁধে। উত্তপ্ত বাক্যমিনিময় হয় দুজনের মধ্যে। ঝামেলা মিটমাট করতে ছুটে আসেন ভারতীয় দলের সদস্যরা। এমনকি আম্পায়াররাও মধস্থতা করেন। পরে দুদলের অধিনায়কই জানান মাঠের ঝামেলা মাঠেই মিটে গেছে।