চাপের মুখেও করিম সমালোচনাকে পাত্তা দিচ্ছেন না

Last Updated: Tuesday, January 22, 2013 - 20:01

ট্রেভর জেমস মরগ্যানের মতোই তোপের মুখে মোহনবাগান কোচ করিম বেঞ্চরিফাও। আই লিগ থেকে নির্বাসনের পর শুরুটা মোটেই ভাল হয়নি মোহনবাগানের। নিজের পুরনো দলের কাছে হারতে হয়েছে করিমকে। মোহনবাগানের দায়িত্ব নেওয়ার পর আই লিগে এখনও জয়ের মুখ দেখাতে পারেননি  করিম। সমালোচনাকে অবশ্য পাত্তা দিতে নারাজ বাগান কোচ। করিমের মতে, কোনও কিছুই তাঁকে তার লক্ষ্য থেকে সরাতে পারবে না।
কোচিং জীবনে অনেক কঠিন চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হতে হয়েছে করিমকে। তবে এই ধরণের চ্যালেঞ্জ বোধহয় এবারই প্রথম। যেখানে আই লিগের এখনও কোনও পয়েন্ট নেই ওডাফাদের। তাই শূন্যের গেরো থেকে বেরোতে মরিয়া করিম বেঞ্চিরিফা।
নির্বাসিত হওযার জন্য ইউনাইটেড সিকিম ম্যাচে খেলতে পারবেন না ওকেলি ওডাফা। চোটের জন্য অনিশ্চিত স্ট্যানলি। তাই বৃহস্পতিবার টোলগের সঙ্গে আক্রমনভাগে দেখা যেতে পারে রহিম নবিকে। মঙ্গলবার অনুশীলন ম্যাচে টোলগের সঙ্গে নবিকে খেলান কোচ করিম। নবিকে আক্রমনভাগে খেলানোর যে একটা পরিকল্পনা রয়েছে,তা স্বীকারও করছেন মরোক্কান কোচ। সোমবার রাতে দিল্লি থেকে ফিরলেও মঙ্গলবার সকালে চুটিয়ে অনুশীলন করেন ওডাফা। ওএনজিসি ম্যাচ থেকেই দলে ফিরতে চলেছেন তিনি।মাঠে নামার জন্য মুখিয়ে আছেন নাইজেরীয় গোলমেশিন।অ নুশীলনের পর জুনিয়ার ফুটবলারদের সঙ্গে আলাদা করে কথাও বলেন ওডাফা। অনুশীলনে ফুটবলারদের তাগিদ থেকেই পরিষ্কার যে কঠিন পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসতে কতটা মরিয়া তারা।
সোমবার রাতে কলকাতায় পৌঁছেই মঙ্গলবার সকালে অনুশীলনে নেমে পড়ল মোহনবাগান। আটচল্লিশ ঘণ্টার মধ্যে খেলতে হবে ইউনাইটেড সিকিমের বিরুদ্ধে। নয়ই ডিসেম্বরের বিতর্কিত ডার্বির পর প্রথমবার যুবভারতী অনুশীলন করলেন টোলগেরা। অনুশীলনের শুরুতে ফুটবলারদের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ বৈঠক করলেন কোচ। বোঝাবার চেষ্টা করলেন সামনের পথটা বেশ কঠিন। তাই সবাইকে একসঙ্গে এগোতে হবে। একমাসেরও বেশি সময় প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ খেলেনি মোহনবাগান। সালগাঁওকর ম্যাচে তার ছাপ পাওয়া গেছে প্রতি ক্ষেত্রে। করিম অবশ্য বলছেন,যত ম্যাচ যাবে ততই অন্য চেহারায় পাওয়া যাবে টোলগেদের।
 
মোহনবাগানের কাছে এখন সব ম্যাচই প্রায় ডু অর ডাই। মোহনবাগান কোচ বলছেন,অবনমন বাঁচানোর জন্য কিছু ম্যাচ তাদের জিততেই হবে। ইউনাইটেড সিকিম ম্যাচও তার মধ্যে একটা।



First Published: Tuesday, January 22, 2013 - 20:01


comments powered by Disqus