বাগানের `অপমান` ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে তুলতে চান কাশ্যপ

মাত্র পাঁচটি ম্যাচের পারফরম্যান্সের নিরিখেই মোহনবাগানের কোচের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। সেই সন্তোষ কাশ্যপ এখন ওএনজিসি কোচ। আর মঙ্গলবার সেই ওএনজির বিরুদ্ধে নামছে ইস্টবেঙ্গল। মুখে না বললেও কাশ্যপের শরীরভাষাই বলে দিচ্ছে মোহনবাগানে অপমানের জবাবটা ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে নিতে চান। সদাহাস্যময় কোচ সন্তোষ কাশ্যপ অবশ্য কোনও বিতর্কিত মন্তব্য করেননি। সোমবার ইস্টবেঙ্গলের অনুশীলন যখন শেষ,তখন দলবল নিয়ে মাঠে ঢুকলেন কোচ কাশ্যপ। মাঠে ঢুকেই কোচ মরগ্যান,মেহতাব-নওবাদের সঙ্গে জমিয়ে দিলেন আড্ডা। একসময়ে তাঁর ছাত্র মননদীপের সঙ্গে দেখা হতেই শুরু কথা।

Updated: Jan 7, 2013, 07:25 PM IST

মাত্র পাঁচটি ম্যাচের পারফরম্যান্সের নিরিখেই মোহনবাগানের কোচের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। সেই সন্তোষ কাশ্যপ এখন ওএনজিসি কোচ। আর মঙ্গলবার সেই ওএনজির বিরুদ্ধে নামছে ইস্টবেঙ্গল। মুখে না বললেও কাশ্যপের শরীরভাষাই বলে দিচ্ছে মোহনবাগানে অপমানের জবাবটা ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে নিতে চান। সদাহাস্যময় কোচ সন্তোষ কাশ্যপ অবশ্য কোনও বিতর্কিত মন্তব্য করেননি। সোমবার ইস্টবেঙ্গলের অনুশীলন যখন শেষ,তখন দলবল নিয়ে মাঠে ঢুকলেন কোচ কাশ্যপ। মাঠে ঢুকেই কোচ মরগ্যান,মেহতাব-নওবাদের সঙ্গে জমিয়ে দিলেন আড্ডা। একসময়ে তাঁর ছাত্র মননদীপের সঙ্গে দেখা হতেই শুরু কথা।
রাত পোহালেই যে একে অপরের প্রতিদ্বন্ধী হয়ে যাবে,এদিন সকালে আম্বেদকর স্টেডিয়ামের ছবি দেখে তা মনে হয়নি। ইস্টবেঙ্গল ম্যাচ নিয়ে অনেক স্বপ্ন সন্তোষ কাশ্যপের। আড্ডায় ঘুরিয়ে ফিরিয়ে কাশ্যপ জানান,এই ম্যাচের ফলাফল তাঁর কাছে প্রমাণ করার ম্যাচ। অবশ্যই কাশ্যপের প্রমাণ করার তাগিদ নির্বাসিত মোহনবাগানের কর্তাদের কাছে। আত্মবিশ্বাসী সন্তোষ কাশ্যপ শক্তিশালী ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে টার্গেট তিন পয়েন্ট হলেও,দলের ফর্মেশনে বদল আনতে একদমই চান না।