বোর্ডের কোপের মুখে ইডেনের পিচ কিউরেটর

Last Updated: Thursday, November 22, 2012 - 20:13

এদিকে ইডেনের পিচ কিউরেটর প্রবীর মুখার্জিকে সতর্ক করল বিসিসিআই। মুম্বইতে সিএবি সভাপতি জগমোহন ডালমিয়া ও যুগ্মসচিব সুবীর গাঙ্গুলির সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন বোর্ড কর্তারা। সেখানে বোর্ড সভাপতি শ্রীনিবাসন জানিয়ে দেন পিচ নিয়ে ফের বিতর্কিত মন্তব্য করলে সাসপেন্ড করা হবে প্রবীর মুখার্জিকে। মোতেরা টেস্টের পর ভারত অধিনায় মহেন্দ্র সিং ধোনি পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন, প্রথম বল থেকেই স্পিনাররা সাহায্য পাবে এমন পিচ তাঁর চাই। ধোনির এই বক্তব্য শুনে চটে যান ইডেনের পিচ কিউরেটর প্রবীর মুখার্জি। তিনি বলেন, পিচ কিরকম হবে তা ধোনি ঠিক করে দেওয়ার কে? আর এতেই ক্ষেপে যান বোর্ড কর্তারা। কারন ধোনির চাহিদার কথা বিসিসিআই আগেই আয়োজক সংস্থাগুলিকে জানিয়ে দিয়েছিল। তারপর একজন কিউরেটরের এত স্পর্ধা কি করে হয়? প্রশ্ন তোলেন বোর্ড কর্তারা। বিসিসিআই জানিয়ে দিয়েছে পিচ নিয়ে কিছু বলতে হলে তা বলবেন একমাত্র সভাপতি বা যুগ্মসচিব। প্রবীর মুখার্জির মত সতর্কিত হয়েছেন মুম্বইয়ের পিচ কিউরেটর সুধীর নায়েকও। তাঁকে মুম্বই ক্রিকেট অ্যসোসিয়েশন সতর্ক করেছে। কারণ সুধীর নায়েক বুধবার বলেছিলেন প্রথম বল থেকে স্পিন ধরবে এমন পিচ করা সম্ভব নাকি? এরপর অবশ্য এমসিএ কর্তাদের ধমকে মুখে কুলুপ এটেছেন তিনি। ধোনির সঙ্গে অবশ্য প্রবীরের বিবাদ নতুন কিছু নয়। ইডেনের উইকেটকে `আগলি`বলায় ধোনিকে একহাত নিয়েছিলেন প্রবীর।
এদিকে, আজমল কাসভের ফাঁসির জেরে পাকিস্তানের তালিবানি গোষ্ঠীর হুমকি।  তালিবানিরা ভারতে হামলার হুমকি দিয়েছে। যার প্রভাব পড়ল ভারত-পাকিস্তান সিরিজে। এই জঙ্গি হামলার হুমকির জেরে ভারত-পাক সিরিজে নিরাপত্তা আরও বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডকে জানিয়ে দিয়েছে এই সিদ্ধান্তের কথা। প্রতিটি কেন্দ্রের নিরাপত্তা ব্যবস্থা খতিয়ে দেখতে পাক প্রতিনিধি দল আসবে। থাকবেন ভারত সরকারের স্বরাষ্ট্র দপ্তরের প্রতিনিধিরাও। ম্যাচ চলাকালীন প্রতিটি স্টেডিয়ামের বাইরে হাই সিকিউরিটি জোনে নজরদারি বাড়ানোরও নির্দেশ দিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। যে ভেন্যুগুলিতে ম্যাচ হবে সেখানকার মাঠ ও হোটেলের নিরাপত্তা ব্যবস্থা খতিয়ে দেখবে পাক প্রতিনিধি দল। ইডেনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা দেখতে ডিসেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহে আসছেন পাক প্রতিনিধিরা। সঙ্গে আসবেন বোর্ডের দুর্নীতিদমন শাখার প্রধান রবি সাওয়ন্ত ও বিসিসিআই এর প্রতিনিধিরা।  নিরাপত্তা ব্যবস্থার নকশায় গোপনীয়তা বজায় রেখে একটা নির্দেশিকা বিসিসিআইকে দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। আর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের নির্দেশিকা যাতে প্রত্যেকটি ম্যাচের আয়োজক সংস্থা মেনে চলে তা নিয়ে অ্যাসোসিয়েশনগুলির সাথে বৈঠক করেছে বিসিসিআই। নিরাপত্তার পাশাপাশি বেটিং রুখতে বিশেষ ব্যবস্থা নেবে দু`দেশের সরকার। এদিকে, শোনা যাচ্ছে আগামী বছর ৩ জানুয়ারি ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ দেখতে আসবেন পাক প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারদারি। পাক রাষ্ট্রপতির সঙ্গে রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়, প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও উপস্থিত থাকতে পারেন বলে খবর।



First Published: Thursday, November 22, 2012 - 20:13


comments powered by Disqus