সালগাওকরের বিরুদ্ধে হেরে শূন্যেই থাকল বাগান

সালগাওকরের বিরুদ্ধে হেরে শূন্যেই থাকল বাগান

সালগাওকরের বিরুদ্ধে হেরে শূন্যেই থাকল বাগানসালগাওকর (২) মোহনবাগান (০)
দীর্ঘ টালবাহানা- নাটকের পর আই লিগে ফিরে এসেই হার মোহনবাগানের। নির্বাসনের শাস্তি ওঠার পর আই লিগে মোহনবাগানের প্রথম ম্যাচটাই অবনমনের আতঙ্কটা উসকে দিল।
অবনমনের আসল লড়াইটা যাদের সঙ্গে লড়তে হবে তাদের মধ্যে অন্যতম সালগাওকরের বিরুদ্ধে ০-২ গোলে হারতে হল করিমদের দলকে। ম্যাচের দুই অর্ধে একটি করে গোল হজম করে মোহনবাগান। সালগাওকরের হয়ে গোল দুটি করেন গ্যাব্রিয়েল ওবাতোলা ও জোসিমার। ৪২ দিন পরে আই লিগে নেমে হারের মুখে করিমের মোহনবাগান।

ওডাফাহীন বাগান আপফ্রন্টে অসহায় ছিলেন টোলগে। স্ট্যানলির সঙ্গে জুটি বেঁধে যে ডেভিড বুথের দলের ডিফেন্স ভাঙা যায় না, তা ম্যাচের কুড়ি মিনিটের মধ্যেই বুঝে যান অসি স্ট্রাইকার। গ্যাব্রিয়েলের গোলে প্রথমে এগিয়ে যায় সালগাঁওকর। গোয়ার দলটির হয়ে ব্যবধান আরও বাড়ান শন রুনির পরিবর্তে সালগাঁওকরে যোগ দেওয়া জোসিমার। কলকাতার ক্লাবের বাতিল জোসিমার এদিন ছিলেন দুরন্ত ছন্দে।

মোহনবাগানের লজ্জা আরও বাড়ত, যদি ওবাটোলা পেনাল্টি নষ্ট না করতেন। ১৬টি ম্যাচ খেলে বাঁচাতে হবে অবনমন। এই পরিস্থিতিতে খেলতে নেমে সালগাঁওকরের বিরুদ্ধে ডাহা ফেল মোহনবাগান। এখন অবনমন বাঁচানোর জন্য হাতে রইল পনেরোটি ম্যাচ।

সালগাঁওকরের সঙ্গে  সম্পর্ক ছিন্ন করে মাঝ মরসুমে মোহনবাগানে যোগ দিয়েছিলেন  করিম। তারপর এই ম্যাচই ছিল করিমের প্রথম সালগাঁওকর ম্যাচ। কিন্তু দুলের স্টেডিয়ামে হতাশ করল করিমের স্ট্র্যাটেজি।
 

যুবভারতীর ডার্বি ম্যাচের মাঝপথে দল তুলে নেওয়ায় শাস্তি হিসাবে মোহনবাগানের সব পয়েন্ট কেটে নেওয়া হয়। রবিবার হারের পর তাই আই লিগে মোহনবাগানের পয়েন্ট শূন্যতেই থেকে গেল। প্রথম সাক্ষাতে সালগাওকরকে ৩-০ গোলে হারিয়ে ছিল মোহনবাগান।






First Published: Sunday, January 20, 2013, 21:37


comments powered by Disqus