কালীপুজোর মেলা দেখে ফেরার পথে শ্লীলতাহানি ৩ বোনের

তিন বোনকেই কুপ্রস্তাব দেয় দুষ্কৃতীদল। একজনকে টেনে জঙ্গলের ভিতর নিয়ে যাওয়ারও চেষ্টা করে।

Updated: Nov 9, 2018, 04:10 PM IST
কালীপুজোর মেলা দেখে ফেরার পথে শ্লীলতাহানি ৩ বোনের

নিজস্ব প্রতিবেদন : ফের শ্লীলতাহানি ধূপগুড়িতে। একসঙ্গে তিন বোনের শ্লীলতাহানির ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল জলপাইগুড়ির ধূপগুড়িতে। জানা গিয়েছে, তিন বোন ও দুই ভাই মিলে কালীপুজোর মেলা দেখাতে গিয়েছিল। কিন্তু রাতে ফেরার সময় আর বাস পায়নি। ফলে ফালকাটার বড়শোলমারিতে বাড়িতে ফিরতে পারেনি কেউ-ই। সদলবলে আটকে পড়ে ধূপগুড়ির নেতাজি পাড়ায়।

আরও পড়ুন, ট্রাকের নীচে 'দাগ'! বালি খুঁড়তেই যা বেরিয়ে এল, চমকে উঠল গ্রামবাসী

শেষমেশ নেতাজি পাড়ার একটি ট্রাকটর গ্যারেজে তিন বোনকে নিয়ে আশ্রয় নেন দুই ভাই। ঘটনাচক্রে ওই ট্রাকটর গ্যারেজের মালিকের কাছেই কাজ করেন এক ভাই। অভিযোগ, রাতের বেলা যখন সবাই গ্যারেজের ভিতর ঘুমিয়েছিল তখন জনা কয়েক দুষ্কৃতী ওই গ্যারেজে চড়াও হয়।

আরও পড়ুন, বেশি 'রোজগারের' আশায় সাইবার ক্রাইম 'অভ্যাস' করতে যায় ২ দাগী চোর! কাণ্ডকীর্তি দেখে হাঁ পুলিস

তাঁদের কাছ থেকে আধার কার্ড, ভোটার কার্ড, মোবাইল ফোন কেড়ে নেয় দুষ্কৃতীরা। বাধা দিতে গেলে মারধর করা হয়ে তাঁদের। অভিযোগ, তিন বোনকেই কুপ্রস্তাব দেয় দুষ্কৃতীদল। শ্লীলতাহানি করা হয় তাঁদের। একজনকে টেনে জঙ্গলের ভিতর নিয়ে যাওয়ারও চেষ্টা করে দুষ্কৃতীরা। কোনওমতে দুই ভাই মিলে দুষ্কৃতীদের হাত থেকে তিন বোনের সম্ভ্রম রক্ষা করে।

আরও পড়ুন, বিবাহিত 'দিদি'র সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক 'ভাই'-এর! তারপরের ঘটনা ডেকে আনল যুবকের মর্মান্তিক পরিণতি

ধূপগুড়ি পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান রাজেশ সিং জানিয়েছেন, ঘটনার কথা পুলিসকে জানানো হয়েছে। পুলিস তদন্ত করছে। এদিকে, ধূপগুড়ি থানার আই সি সুধীর কর্মকার জানিয়েছেন,  এই ধরনের কোনও অভিযোগ তাঁরা পাননি। অভিযোগ দায়ের হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।