ব্লু হোয়েল গেমের শিকার? কীভাবে মৃত্যু হল পশ্চিম মেদিনীপুরের ক্লাস টেনের মেধাবী ছাত্র অঙ্কনের?

Updated: Aug 13, 2017, 09:03 PM IST
ব্লু হোয়েল গেমের শিকার? কীভাবে মৃত্যু হল পশ্চিম মেদিনীপুরের ক্লাস টেনের মেধাবী ছাত্র অঙ্কনের?

ওয়েব ডেস্ক: এবার এ রাজ্যেও ব্লু হোয়েলের মারণ থাবা? পশ্চিম মেদিনীপুরের ক্লাস টেনের ছাত্র অঙ্কন দের অস্বাভাবিক মৃত্যু সেই সম্ভাবনাই জোরালো করছে। অঙ্কনের পছন্দের খেলা ছিল অনলাইন সুইসাইড গেম। এমনটাই দাবি পরিবার ও বন্ধুদের। তদন্তে পুলিস।

ব্লু হোয়েল। নীল তিমি। আপাত নিরীহ দুটি শব্দের পিছনে লুকিয়ে মারণ নেশা। আত্মঘাতী নেশা। যে নেশার জাল ছড়িয়ে মুম্বই থেকে মেদিনীপুর। মুম্বইয়ে ৬তলা থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মঘাতী হয় কিশোর মনপ্রীত সিং। পশ্চিম মেদিনীপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী কিশোর অঙ্কন দে। দুটি মৃত্যুর পিছনেই অনলাইন সুইসাইড গেম ব্লু হোয়েল। ক্রমশ জোরালো হচ্ছে এই সন্দেহ। মহারাষ্ট্রের শোলাপুর এবং মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরের দুই কিশোরকে নীল তিমির হাত থেকে বাঁচানো গেলেও বাঁচানো যায়নি মনপ্রীত-অঙ্কনকে।

আনন্দপুরের চালাকি মোড়ের গোপীনাথ দের একমাত্র সন্তান অঙ্কন। রবিবার বাড়ির নিচেই সাইবার কাফেতে কম্পিউটারে গেম খেলছিল সে। পরে বাড়িতে ফিরে শৌচাগারে ঢুকে গলায় ফাঁস দেয়। কীভাবে মৃত্যু হল পশ্চিম মেদিনীপুরের আনন্দপুর হাই স্কুলের  ক্লাস টেনের মেধাবী ছাত্রের? অঙ্কন কি ব্লু হোয়েলের শিকার? অঙ্কনের পছন্দের খেলা ছিল অনলাইন সুইসাইড গেম। এমনটাই দাবি পরিবার ও বন্ধুদের।

খতিয়ে দেখা হচ্ছে বাবা গোপীনাথ দের দোকানের কম্পিউটারটি। যেখানে নেট সার্ফিং করত অঙ্কন। অঙ্কনের ফেসবুক অ্যাকাউন্টটিও খুঁটিয়ে দেখছে পুলিস। অঙ্কনের ৫ বন্ধুকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিস। কথা বলতে ভুলে গেছেন অঙ্কনের বাবা-মা। ছেলে মাকে বলেছিল ভাত বাড়তে। কিন্তু আর খাওয়া হয়নি অঙ্কনের।

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close