পাহাড় ইস্যুতে কেন্দ্রকে তোপ মুখ্যমন্ত্রীর, চিনের সঙ্গে কেন্দ্রের সম্পর্ক নিয়েও তুললেন প্রশ্ন

Updated: Jul 17, 2017, 06:51 PM IST
পাহাড় ইস্যুতে কেন্দ্রকে তোপ মুখ্যমন্ত্রীর, চিনের সঙ্গে কেন্দ্রের সম্পর্ক নিয়েও তুললেন প্রশ্ন

ওয়েব ডেস্ক: চিকেন নেক শিলিগুড়িকে দুর্বল করতে কেন বাইরের শক্তিকে মদত দেওয়া হচ্ছে? পাহাড় ইস্যুতে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরাসরি তোপ দাগলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চিনের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক খারাপের জন্য মোদী সরকারকেই দায়ী করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর মন্তব্য, কেন্দ্রের ভুল নীতির জন্যই স্যান্ডউইচ হয়ে থাকতে হচ্ছে বাংলাকে।

গোর্খাল্যান্ডের দাবিতে উত্তাল পাহাড়। পরিস্থিতি সামাল দিতে কেন্দ্রের কাছে আরও ৪ কোম্পানি আধা সেনা চায় রাজ্য। কিন্তু, সাড়া দেয়নি কেন্দ্র। বাহিনী নিয়ে শুরু হয় কেন্দ্র-রাজ্য চাপানউতোর।  রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ভোট দিতে এসে তা নিয়ে ফের ক্ষোভ জানালেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর অভিযোগ, শিলিগুড়ি চিকেন নেক হওয়া সত্ত্বেও কেন গুরুত্ব দিচ্ছে না কেন্দ্র?

কেন গুরুত্ব নয়?
ভৌগলিক দিক অত্যন্ত স্পর্শকাতর শিলিগুড়ি.. নেপাল-ভূটান-বাংলাদেশ তিন বিদেশি রাষ্ট্রের সীমান্ত দিয়ে ঘেরা শিলিগুড়ি। চিকেন নেক বলে পরিচিত এই করিডর  মাত্র ২৩ কিলোমিটার চওড়া। মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ,শিলিগুড়ির অতি স্পর্শকাতর অবস্থানের কথা মাথায় রেখেও, তার নিরাপত্তায় উদ্যোগী নয় কেন্দ্র।

কেন উদাসীন কেন্দ্র?
মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য, সিকিমের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে চিন। ডোকালায় চোখে চোখ রেখে দাঁড়িয়ে দু দেশের সেনা। চিনের দাদাগিরিতে অশান্ত বন্ধুরাষ্ট্র নেপাল সীমান্তও। অথচ দার্জিলিংয়ের কাছে পশুপতি লাগোয়া এলাকায় চারশো স্কুল খোলা হয়েছে।যেখানে চিনা ভাষায় চলছে পঠনপাঠন। আর সব দেখেও উদাসীন কেন্দ্র।  মমতার প্রশ্ন কেন চোখ বুজে রয়েছে সরকারি এজেন্সিগুলি?

কী করছে এজেন্সি?
কূটনীতির প্রশ্নেও এদিন মোদী সরকারকে তুলোধোনা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর স্পষ্ট দাবি, কেন্দ্রের ভুল নীতির জন্যই বাংলাদেশ-নেপাল-ভূটান-চিনের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হচ্ছে। আর তার দায় বর্তাচ্ছে বাংলার মতো সীমান্ত ঘেরা রাজ্যগুলির ওপর। স্যান্ডউইচ হতে হচ্ছে এরাজ্যকে।