হাওড়ার ফ্ল্যাটে স্বামী-স্ত্রীর মৃতদেহ উদ্ধার

ভেজানো দরজা ঠেলতেই বীভত্‍স দৃশ্য। সিলিং ফ্যান থেকে ঝুলছে বাবলুর দেহ। পাশের ঘরে বিছানায় পড়ে পাপড়ি পাঠকের দেহ। গলার নলি কাটা, পাশে পড়ে রয়েছে ছুরি, চপার।

Updated: Jul 10, 2018, 08:31 PM IST
হাওড়ার ফ্ল্যাটে স্বামী-স্ত্রীর মৃতদেহ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদন: বসার ঘরে স্বামীর ঝুলন্ত দেহ। পাশের ঘরে খাটে পড়ে স্ত্রীর রক্তাক্ত দেহ। হাওড়ার দানেশ শেখ লেনের সরকারি আবাসনের এই জোড়া মৃত্যুতে তীব্র চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। জানা যাচ্ছে, পরিবারে অনটন ছিলই। সম্প্রতি ধরা পড়ে স্ত্রী এইচআইভি পজেটিভ। প্রাথমিক অনুমান, মানসিক অবসাদের জেরেই স্ত্রীকে খুন করে আত্মঘাতী হয়েছে স্বামী।

আবাসনের এম ব্লকের তিনতলার ফ্ল্যাটের বাসিন্দা বাবলু পাঠক ও তাঁর স্ত্রী পাপড়ি। সকালে ফ্ল্যাটে যান বাবলুর দাদা। ভেজানো দরজা ঠেলতেই বীভত্‍স দৃশ্য। সিলিং ফ্যান থেকে ঝুলছে বাবলুর দেহ। পাশের ঘরে বিছানায় পড়ে পাপড়ি পাঠকের দেহ। গলার নলি কাটা, পাশে পড়ে রয়েছে ছুরি, চপার।

ঘটনার তদন্তে নামে বি গার্ডেন থানার পুলিস। ঘটনাস্থলে যায় ফরেনসিক দলও। ফ্ল্যাট থেকে একটি সুইসাইড নোটও উদ্ধার হয়েছে। প্রাথমিক অনুমান, স্ত্রীকে খুন করে আত্মহত্যা করেন বাবলু।

কিন্তু কী কারণে এই ভয়াবহ ঘটনা? তদন্তে জানা গিয়েছে, পেশায় বার সিঙ্গার পাপড়ি প্রচুর রোজগার করতেন। কিন্তু, একটি দুর্ঘটনার পর সেই কাজ বন্ধ করে দেন তিনি। বাবলুর টেলারিংয়ের ব্যবসাও খুব ভাল চলত না। ফলে পরিবারে আর্থিক অনটন দেখা দেয়। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, সম্প্রতি ধরা পড়ে পাপড়ি এইচআইভি পজেটিভ। ফলে, মৃত্যুর কারণ নিয়ে তৈরি হচ্ছে জটিলতা। জোড়া মৃত্যুর কারণ কী শুধুই অনটন, অসুস্থতা আর অবসাদ? খতিয়ে দেখছে পুলিস। আরও পড়ুন- ছেলের হাতে খুন বৃদ্ধ বাবা!

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close