মুকুলকে সামলাতে 'গামছা'-য় মাঠে নামলেন পার্থ

কমলিকা সেনগুপ্ত

Updated: Nov 10, 2017, 08:27 PM IST
মুকুলকে সামলাতে 'গামছা'-য় মাঠে নামলেন পার্থ

কমলিকা সেনগুপ্ত

মুকুলকে সামাল দিতে দলের মুখ তিনি। শত্রুপক্ষের ঘরে পালটা হামলা চালানোর গুরুদায়িত্ব তাঁরই ঘাড়ে। রাজনীতির এত মারপ্যাঁচের মধ্যেও কিন্তু রীতিমতো কেতাদুরস্ত পার্থ চট্টোপাধ্যায়। গেরুয়ামঞ্চে যেদিন প্রকাশ্যে আত্মপ্রকাশ ঘটল মুকুলের সেদিনই তৃণমূলের মহাসচিব প্রকাশ্যে এলেন গামছায়। থুড়ি! গামছা পাঞ্জাবিতে।

শুক্রবার রানি রাসমণি রোডে বিজেপির মঞ্চে তৃণমূলের বিরুদ্ধে একের পর এক আক্রমণ শানান মুকুল রায়। বিজেপিতে যোগদানের পর এদিনই ছিল তাঁর প্রথম প্রকাশ্য জনসভা। পার্থ চট্টোপাধ্যায় থেকে অভিষেক হয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, মুকুলের নিশানা থেকে রেহাই পাননি কেউ। মুকুলের অভিযোগের জবাব দিতে তৃণমূল ভবনে এদিন পালটা সাংবাদিক বৈঠক করেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। আর সেই সাংবাদিক বৈঠকে তৃণমূলের মহাসচিবকে দেখা যায় গামছা প্রিন্টের কাপড় দিয়ে তৈরি পাঞ্জাবিতে। 

আরও পড়ুন - নাম না-নিয়ে মুকুলকে জবাব দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

এবার পুজোয় বিশেষ করে মহিলাদের মধ্যে বেশ জনপ্রিয় হয়েছিল গামছা শাড়ি। তরুণীদের মন জয় করেছিল বাংলার প্রাচীন শিল্প। দিন রাত মন্ত্রিত্ব ও দল নিয়ে ব্যস্ত থাকলেও চলতি ফ্যাশন যে তাঁর চোখ এড়ায় না তা বোঝা গেল এদিন। সাংবাদিকের প্রশ্নের মুখে মন্ত্রীমশাইয়ের লাজুক জবাব, ''সবাই পরছে, ভাবলাম আমিও একটু ট্রাই করি...'' 

আরও পড়ুন - বিশ্ববাংলা আদতে কোম্পানি, ধাপে ধাপে আরও তথ্য ফাঁসের হুঁশিয়ারি মুকুল রায়ের

এদিন দলের সদর দফতরে পাঞ্জাবিতে পার্থ চট্টোপাধ্যাই ছিলেন মধ্যমণি। সাংবাদিকরা তাঁর ঘরে ঢুকে ছবি তুললেও আপত্তি করেননি তিনি। উলটে জবাব দিয়েছেন এ সংক্রান্ত যাবতীয় প্রশ্নের। মুকুল রায়ের 'গুরুতর' অভিযোগকে যে তৃণমূল পাত্তা দিচ্ছে না তা বোঝাতেই কি হালকা মেজাজে এদিন দেখা গেল তাঁকে? বার্তা দিতে চাইলেন, মুকুল রায় কোনও ফ্যাক্টরই নন? গুঞ্জন শুরু হয়েছে ঘনিষ্ঠ মহলেই। 

 

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close