ভোট চলাকালীন কমিশনে অভিযোগের পাহাড়, তবে ২০১৪-এর তুলনায় কম

ভোট চলাকালীন কমিশনে অভিযোগের পাহাড়, তবে ২০১৪-এর তুলনায় কম

ভোট চলাকালীন কমিশনে অভিযোগের পাহাড়। তবে দুহাজর চোদ্দর তুলনায় অনেকটাই কম। সৌজন্যে কমিশনের কড়া মনোভাব এবং কেন্দ্রীয় বাহিনীর তত্পরতা। অভিযোগের নিরিখে সবাইকে ছাড়ালেন অনুব্রত মণ্ডল। অভিযোগের হাফসেঞ্চুরি কেষ্ট মণ্ডলের। চড়াম চড়াম ঢাক বা গুড়-বাতাসা। বীরভূমের ভোটে এটাই ছিল হাইলাইটস। আর সবার নজর ছিল নানুরের দোতলা বাড়িটির দিকে। অনুব্রত মণ্ডলের ঠিকানা। নজরবন্দি করেও অবশ্য তাঁকে আটকানো যায়নি। দিনভর চরকি পাক খাইয়েছেন ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেটকে।

মুখ্যমন্ত্রীর বক্তৃতার সিডি চেয়ে পাঠাল নির্বাচন কমিশন মুখ্যমন্ত্রীর বক্তৃতার সিডি চেয়ে পাঠাল নির্বাচন কমিশন

মুখ্যমন্ত্রীর বক্তৃতার সিডি চেয়ে পাঠাল নির্বাচন কমিশন। রবিবার পূর্ব মেদিনীপুরের সভায় মুখ্যমন্ত্রী পুলিসকে হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ তোলে বিরোধীরা। বিধিভঙ্গের অভিযোগ এনে আজ কমিশনের দ্বারস্থ হয় বিজেপি ও বামেরা। তার পরেই সিডি চেয়ে পাঠায় CEO দফতর। কমিশন সূত্রে খবর সিডি পাঠনো হবে দিল্লিতে। পঞ্চম আর ষষ্ঠ দফার ভোটে এরকমই ভূমিকা পালন করেছে বাহিনী। খানাকুলে  ভোটারদের ব্যারিরেড করে বুথে পৌছে দেন তাঁরা।

মৃত্যু, হিংসা, মারামারি, বচসা, সব মিলিয়ে কেমন হল চতুর্থ দিনের ভোট মৃত্যু, হিংসা, মারামারি, বচসা, সব মিলিয়ে কেমন হল চতুর্থ দিনের ভোট

তৃতীয় দফার সুনাম এবার ধরে রাখতে ব্যর্থ কমিশন। রক্তাক্ত তৃতীয় দফায় ভোট।  মুর্শিদাবাদের ডোমকলে হিংসার বলি ১। শাসক-বিরোধী  সংঘর্ষে দিনভর উত্তপ্ত  রইল বর্ধমানও। বাকি জায়গা থেকে বিক্ষিপ্ত অশান্তির খবর এল দিনভর। কলকাতায় বাধার মুখে পড়ল সংবাদমাধ্যম। এন্টালিতে প্রকাশ্যে বচসায় জড়ালেন দুই হেভিওয়েট প্রার্থী। তবে অন্যত্র ভোট হয়েছে মোটের ওপর নির্বিঘ্নে।

আজ ভোট জঙ্গলমহলে, নিরাপত্তায় ফাঁক রাখেনি কমিশন আজ ভোট জঙ্গলমহলে, নিরাপত্তায় ফাঁক রাখেনি কমিশন

বিধানসভা নির্বাচনের প্রথম দফায় আজ ভোট জঙ্গলমহলে। তিন জেলার ১৮টি আসনে আজ ভোট হচ্ছে। এই ১৮টি আসনের অধিকাংশই একসময় মাওবাদী প্রভাবিত ছিল। তাই নিরাপত্তায় কোনও ফাঁক রাখেনি নির্বাচন কমিশন। কমিশনের বিশেষ নজরে রয়েছে এই কেন্দ্রগুলি।

রাজ্য পুলিসের অভাব, প্রথম দফার ভোটের জন্য তাই কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপরই ভরসা কমিশনের রাজ্য পুলিসের অভাব, প্রথম দফার ভোটের জন্য তাই কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপরই ভরসা কমিশনের

  রাজ্য পুলিসে কর্মীর অভাব।  প্রথম দফার ভোটের নিরাপত্তার জন্য তাই কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপরই ভরসা করছে কমিশন। মাওবাদী এলাকায় কেন্দ্র প্রতি কমপক্ষে আটজন করে জওয়ান মোতায়েন করা হচ্ছে। শুধুমাত্র ভোটারদের লাইন সামাল দিতে থাকবে রাজ্য পুলিস। পুরনো সব রেকর্ড গুঁড়িয়ে দিয়ে আরও কড়া নিরাপত্তায় এবারের বিধাননসভা নির্বাচন করাতে চাইছে কমিশন। নজিরবিহীনভাবে ভোটের দিন ঘোষণার আগেই রাজ্যে চলে এসেছিল কেন্দ্রীয় বাহিনী। প্রথম থেকেই জঙ্গল মহলের নিরাপত্তার উপর বিশেষ জোর দিয়েছে কমিশন। সোমবার প্রথম দফার প্রথম দিনে আঠারোটি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ করা হবে। এর মধ্যে  সব থেকে বেশি স্পর্শকাতর বুথ রয়েছে পুরুলিয়ায়। নির্বিঘ্নে ভোটপর্ব মেটাতে কমিশনের ভরসা কেন্দ্রীয় বাহিনীই।

 ফের কমিশনের কড়া পদক্ষেপ, সরানো হল আইপিএস ভারতী ঘোষকে ফের কমিশনের কড়া পদক্ষেপ, সরানো হল আইপিএস ভারতী ঘোষকে

ফের কমিশনের কড়া পদক্ষেপ। সরানো হল আইপিএস ভারতী ঘোষকে। মাওবাদী দমনের বিশেষ দায়িত্বে থাকা এই আইপিএসের বিরুদ্ধে বারবার শাসকদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার অভিযোগ তুলেছেন বিরোধীরা। কমিশনের কোপে রাজ্যের আরেক আইপিএস। এবার সরানো হল ভারতী ঘোষকে। মাওবাদী দমনে নিযুক্ত LWE অপারেশনসের অফিসার অন স্পেশাল ডিউটি পদে ছিলেন তিনি। শাসকদলের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার অভিযোগ তুলে ভারতীর বিরুদ্ধে বারবার সোচ্চার হয়েছেন বিরোধীরা। এর আগেও দুহাজার চোদ্দর লোকসভা ভোটের সময় কমিশনের নির্দেশে ভারতী ঘোষকে পশ্চিম মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামের পুলিস সুপার পদ থেকে অপসারণ করা হয়। ভোটের পর ফের ওই দুই দায়িত্বে ফেরানো হয় তাঁকে।বারবার বিতর্কে জড়িয়েছেন এই আইপিএস।  বিরোধীদের অভিযোগ,

কমিশনকে তোপ দাগলেন মুখ্যমন্ত্রী কমিশনকে তোপ দাগলেন মুখ্যমন্ত্রী

ডিএম-এসপিদের সরানো নিয়ে এবার সরাসরি কমিশনকে তোপ দাগলেন মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যের পুলিস প্রশাসনের ওপর ভরসা করে কেন নির্বাচন করানো যাবে না, সরাসরি সেই প্রশ্নই তোলেন তৃণমূলনেত্রী।

ভোটের আগে কমিশনের চাপে তত্‍পর পুলিস, জালে একের পর এক দাগী আসামী ভোটের আগে কমিশনের চাপে তত্‍পর পুলিস, জালে একের পর এক দাগী আসামী

গত কয়েক বছরে যা করে উঠতে  পারেনি রাজ্য পুলিস, এবার কমিশনের চাপে সেই অসাধ্যই সাধন করলেন উর্দিধারীরা। ভোটের মুখে কমিশনের চাপে রাজ্যজুড়ে জারি ধরপাকড়।   দুপুরে উপ মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সন্দীপ সাক্সেনার সঙ্গে বৈঠক জেলা পুলিস প্রশাসনের তাবড় কর্তারা। আইশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে বৈঠকে যথেষ্ট ফাপরে পড়তে পারেন SP, DMরা।আর তার আগেই  তত্পরতা পুলিস মহলে।  পুরশুড়ায় পুলিসের জালে  দুহাজার নয় থেকে ফেরার তৃণমূল নেতা শেখ ফরিদ ওরফে টিঙ্কু।  কালও বছর খানেক পুলিসের খাতায় ফেরার থাকার পর কেতুগ্রামে জোড়া খুনের ঘটনায় গ্রেফতার দুই দাপুটে তৃণমূল নেতা।   রায়নায় সিপিএম কর্মী খুনে অভিযুক্ত দুই তৃণমূল কর্মীকেও কালই গ্রেফতার করে পুলিস। গ্রেফতার করা হয় কাশীপুরে তৃণমূলের দাপুটে নেতা আনোয়ার খানকেও।   ভোটারদের আস্থা ফেরাতে শুধুমাত্র কেন্দ্রীয় বাহিনীর রুটমার্চই নয়। বরং আরও কঠোর পদক্ষেপ যে নেওয়া হবে, কাশীপুর রায়না কেতুগ্রামের পর আজ পুরশুড়ায় গ্রেফতারিতে তেমনই বার্তা কমিশনের।

নির্বাচন কমিশন এখন রাজ্য সরকারের অ্যাপেন্ডিক্স, কটাক্ষ বিমান বসুর নির্বাচন কমিশন এখন রাজ্য সরকারের অ্যাপেন্ডিক্স, কটাক্ষ বিমান বসুর

নির্বাচন কমিশন এখন রাজ্য সরকারের অ্যাপেন্ডিক্স । কমিশনের  নির্দিষ্ট কোনও ভূমিকা নেই। ভোটেও নেই। ভোটের পরেও নেই। তাই কমিশন থাকা না থাকায় কিছু এসে যায় না। মন্তব্য বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসুর।

সেই মালদা, সেই কমিশন কর্মীকে হেনস্থা, অভিযোগ সেই শাসকদলের বিরুদ্ধেই

ফের কমিশন কর্মীদের হেনস্থা। আর এবারও সেই মালদা। অভিযোগ গতকাল কালিয়াচকে তৃণমূলের ব্যানার, ফেস্টুন খুলতে গিয়ে বাধার মুখে পড়েন কমিশনের কর্মীরা। তাঁদের প্রায় আধঘণ্টা দাঁড় করিয়ে রাখেন তৃণমূলকর্মীরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান বিডিও।

মানিকচক কাণ্ডে কমিশনের বিরুদ্ধে পাল্টা এফআইআর তৃণমূলের

মালদা দক্ষিণ লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী মোয়াজ্জেম হোসেনের সমর্থনে বাইক মিছিল করছিলেন দলীয় সমর্থকরা৷ সেই সময় বাইক মিছিলে বাধা দেন নির্বাচন কমিশনের কর্মী-আধিকারিকরা৷ এর জেরে প্রার্থীর সামনেই তাঁদের ওপর চড়াও হন তৃণমূল কর্মী-সমর্থকরা৷

গণনাপর্বে অশান্তির আশঙ্কায় কমিশনের দ্বারস্থ বিরোধীরা

ভোটের ফল বেরনোর পর হিংসা এড়াতে পুলিসের অনুমতি ছাড়া বিজয় মিছিল করা যাবে না বলে নির্দেশ দিল নির্বাচন কমিশন। গণনাপর্বে অশান্তির আশঙ্কায়, গণনা কেন্দ্রে এজেন্টদের নিরাপত্তার দাবিতে ইতিমধ্যেই কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছে বিরোধীরা।

পুরভোটের টাকা চেয়ে রাজ্যকে চিঠি দিচ্ছে কমিশন

পুরভোটের টাকা চেয়ে রাজ্যকে চিঠি  দিচ্ছে কমিশন। শুক্রবার ১৭টি পুরসভার ভোটের দিন ঠিক করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। কিন্তু কমিশনের ঘরে এখনও টাকা পাঠায়নি রাজ্য। কমিশন সূত্রে খবর, সোমবার পুর সচিবকে এই চিঠি পাঠানো হবে। 

১২টি পুরসভার ভোট ২১ সেপ্টেম্বর

পঞ্চায়েতের পর এবার পুরভোটের দিন ঘোষণার ক্ষেত্রেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে চলেছে হাইকোর্ট। আজকের মধ্যেই ১৩ টি পুরসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ আদালতকে জানাতে হবে রাজ্যকে। অন্যথা পুরভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা করবে আদালতই। এই মর্মে মঙ্গলবার নির্দেশ দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি অরুণ মিশ্র ও বিচারপতি জয়মাল্য বাগচির ডিভিশন বেঞ্চ।

অব্যাহত বাইক বাহিনীর তাণ্ডব, কমিশনে নালিশ বামেদের

বাইক বাহিনীর তাণ্ডব বন্ধ করতে রাজ্য নির্বাচন কমিশনে নালিশ জানাল বামেরা। রবীন দেবেব নেতৃত্ব প্রতিনিধি দল আজ কমিশনে স্মারকলিপি জমা দিয়েছে। তাঁদের অভিযোগ, আদালতের নির্দেশ অমান্য করেই চলছে বাইক বাহিনীর দাপট। ভোটের দিন নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে সঠিকভাবে কেন্দ্রীয় বাহিনী ব্যবহারেরও দাবি জানিয়েছে বাম প্রতিনিধি দল।