ভাঁড়ারে টাকা নেই, তাই কেনা যাচ্ছে না চিকিত্সা সরঞ্জাম! ভাঁড়ারে টাকা নেই, তাই কেনা যাচ্ছে না চিকিত্সা সরঞ্জাম!

ভাঁড়ারে টাকা নেই। তাই কেনা যাচ্ছে না চিকিত্সা সরঞ্জাম। দুসপ্তাহ ধরে বন্ধ গুরুত্বপূর্ণ অস্ত্রোপচার। কোনও জেলা বা গ্রামীণ হাসপাতালের ঘটনা নয়। এছবি কলকাতার ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজের। হাসপাতালের ভাঁড়ে মা ভবানী দশা। লেন্স কেনার পয়সা নেই। তাই দুসপ্তাহ ধরে ন্যাশনালের চক্ষু রোগ বিভাগে  বন্ধ ছানি অপারেশন। প্রতিদিন বাতিল হচ্ছে একের পর এক অস্ত্রোরচার। ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে রোগীদের। ছানি অপারেশনের পর চোখে ইনট্রা অক্যুলার লেন্স বসাতে হয়। কয়েক মাস আগে, শেষ বার টেন্ডার ডেকে এই লেন্স একটি সংস্থার থেকে কিনেছিল ন্যাশনাল কর্তৃপক্ষ। সেই স্টক ফুরিয়েছে। নতুন করে টেন্ডার ডেকে আবার লেন্স কেনা দরকার। কিন্তু তহবিলে টাকা না থাকায় কেনা যাচ্ছে না  ইনট্রা অক্যুলার লেন্স। চূড়ান্ত দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন চিকিত্সাপ্রার্থীরা।

স্থানীয় বাসিন্দা ও কলেজ কর্তৃপক্ষের সংঘর্ষের জেরে রণক্ষেত্র লিলুয়ার সুরেন্দ্রনাথ কলেজ স্থানীয় বাসিন্দা ও কলেজ কর্তৃপক্ষের সংঘর্ষের জেরে রণক্ষেত্র লিলুয়ার সুরেন্দ্রনাথ কলেজ

স্থানীয় বাসিন্দা আর কলেজ কর্তৃপক্ষের পাঠানো লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষের জেরে কার্যত রণক্ষেত্রের চেহারা নিল হাওড়ার লিলুয়ার সুরেন্দ্রনাথ কলেজ। অভিযোগ, বেআইনিভাবে রাস্তা দখল করে পাঁচিল তুলতে চাইছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। এনিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই এলাকাবাসীর সঙ্গে তাদের গন্ডগোল চলছিল। আজ তা চরমে ওঠে। অভিযোগ, স্থানীয় দুটি ক্লাবের ছেলেদের পাঠিয়ে এলাকার বাসিন্দাদের মারধর করা হয়।এরমধ্যে একটি ক্লাব সরকারি দুলক্ষ টাকা অনুদানপ্রাপ্ত বলেও জানা যাচ্ছে।  বাসিন্দাদের মারধরের পরেই রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় এলাকা। চারটি গাড়ি এবং একটি বাইকে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে।  পরিস্থিতি সামলাতে ঘটনাস্থলে পৌছেছে পুলিস। ঘটনায় কুড়িজনকে আটক করা হয়েছে।