প্রধানমন্ত্রীত্ব নয়, গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রীই থেকে যেতে চান মোদী

বিজেপি মোদীতে বুক বেঁধেছে। কিন্তু খোদ নরেন্দ্র দামোদর দাস মোদীর পক্ষে গুজরাতের মায়া কাটিয়ে ওঠা বুঝি মুশকিল হয়ে উঠেছে। একথা বলছেন খোদ মোদীই। বৃহস্পতিবার শিক্ষক দিবস উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, ২০১৭ পর্যন্ত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীই হয়ে থাকতে চান মোদী। অনুষ্ঠানে ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে কথোপকথনের সময় প্রশ্ন ওঠে, তিনি প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর এভাবেই ছাত্রদের মাঝে আসবেন কি না? মোদীর জবাব, "আমাকে ২০১৭ পর্যন্ত আপনাদের কাজ করে যেতে হবে, আমি সেটাই করছি।" গুজরাতের মানুষের রায় অনুযায়ী তাঁদের মুখ্যমন্ত্রীর মেয়াদ পূরণ করাকেই প্রাধাণ্য দিতে চেয়েছেন মোদী।

মোদীর কেদারভূমি পুনর্গঠনের প্রস্তাব খারিজ করল উত্তরাখণ্ড

বন্যা বিপর্যস্ত উত্তরাখণ্ডে `সুপারম্যান` হয়ে গিয়েছিলেন নরেন্দ্র দামোদর দাস মোদী। পাহাড়ে আটকে পড়া গুজরাতের পর্যটকদের উড়িয়ে নিয়ে আসেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু এই উদ্ধারকার্যের জন্য `ছিঃ ছিঃ` কুড়িয়েছেন মোদী। প্রাদেশিকতার অভিযোগ ওঠে গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে। রাজনীতির দর কষাকষি এবার নতুন দোরগোড়ায়। ১৬ই জুনের হড়াকা বানে প্রায় অক্ষত কেদারনাথ মন্দিরের সংস্কারের প্রস্তাব দিয়েছিলেন মোদী। প্রতিবেশী রাজ্যের এই প্রস্তাব পত্রপাঠ খারিজ করে দিয়েছে উত্তরাখণ্ড সরকার। দেবভূমির সংস্কারের খরচা উত্তরাখণ্ড সরকারই করবে বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী বিজয় বহুগুনা।