যে কারণে ধর্মীয় চিহ্নের ট্যাটু করা উচিত্‌ নয়

যে কারণে ধর্মীয় চিহ্নের ট্যাটু করা উচিত্‌ নয়

ফ্যাশনের নতুন ট্রেন্ড এখন ট্যাটু। হাল ফ্যাশনে মডার্ন দেখাতে হলে শুধু নানারকমের মডার্ন পোশাক পরলেই চলছে না। সারা শরীরে যত্রতত্র ট্যাটু করে ফেলার ট্রেন্ড শুরু হয়েছে। এমনও অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায়, শরীরের বেশিরভাগ অংশটাই ট্যাটুতে ঢাকা।

যাদের ট্যাটু থাকে তাঁরা কেমন মানুষ হন যাদের ট্যাটু থাকে তাঁরা কেমন মানুষ হন

কারওর কাঁধ থেকে উকি মারছে প্রজাপতি। কারওর আবার কোমর থেকে হুঙ্কার করছে সিংহ। কোথাও আবার প্রিয়জনের নাম খোদাই করা। আজকাল হামেশাই লোকের হাতে দেখা যায় ট্যাটু। কেউ ট্যাটু করেন শুধু স্টাইলের জন্য, কারোর ক্ষেত্রে ট্যাটু হল প্যাশন।

ভারতের যে গ্রামে বহু যুগ আগেই ট্যাটুর চল ছিল ভারতের যে গ্রামে বহু যুগ আগেই ট্যাটুর চল ছিল

ছত্তিশগড়ের একটি ছোট্ট গ্রাম। প্রায় ৫ যুগ আগে থেকে ট্যাটুর প্রচলন শুরু হয় এই গ্রামে। ট্যাটুকে এখন ফ্যাশনের আওতায় আনার পর থেকে প্রায় সকলের দেহের কোনও না কোনও স্থানে উঁকি ঝুঁকি মারতে দেখা যায় ট্যাটুকে। তবে এই গ্রামে শরীরের কোনও একটা অংশে নয় সারা শরীরেই ট্যাটু বানানোর প্রচল শুরু হয়েছিল। ভগবান 'রামে'র নাম সারা শরীরে ট্যাটু বানিয়ে লেখা হত।

 মরে যাওয়ার পরও সংরক্ষণ করে যেতে পারেন আপনার শরীরের ট্যাটু মরে যাওয়ার পরও সংরক্ষণ করে যেতে পারেন আপনার শরীরের ট্যাটু

শরীরে ট্যাটু আঁকিয়েছেন? আর কখনও শরীর থেকে যাবে না। সবাই এই কথা বলে। তাতে অবশ্য আপনার কী! কারণ, আপনি তো চানই না যে, এই ট্যাটু আপনার শরীর থেকে কখনও মুছে যাক।

বেকহ্যামের ব্যানানা ভিডিও বেকহ্যামের ব্যানানা ভিডিও

ডেভিড বেকহ্যামকে শুধুই ফুটবলার ভাবলে ভুল হবে। তিনি যতদিন ফুটবল খেলেছেন, ততদিন ফুটবলার। কিন্তু তার পর থেকে এখন অনেক বেশি ব্যবসায়ী হয়ে উঠেছেন। নিজের অন্তর্বাস কোম্পানি খুলেছেন।

মেসির বাঁ পায়ে ছেলের ট্যাটু

মেসির সেরা অস্ত্র হল তাঁর বাঁ পা। সেই বাঁ পায়ে তাঁর সদ্যজাতক ছেলে থিয়াগোর নাম ট্যাটু করালেন বর্ষসেরা এই ফুটবলার। বার্সেলোনা হোক কিংবা আর্জেন্টিনা। যেখানেই তিনি থাকুক, পরিবারকে ভীষণ মিস করেন লিওনেল মেসি। তাই পরিবারের সদস্যদের ছবি ট্যাটুর মাধ্যমে গায়ে এঁকে ঘুরে বেড়ান ফুটবলের জাদুকর। মায়ের মুখের ট্যাটু ইতিমধ্যেই কাঁধে  রয়েছে তাঁর। এবার ছেলের নাম ট্যাটু করালেন মেসি তাঁর প্রিয় অঙ্গটিতে।

দুহাত দুই মেয়ের বাবা যিশুর

কিছুদিন আগেই দ্বিতীয়বার বাবা হয়েছেন যিশু সেনগুপ্ত। সেই আনন্দের মুহূর্তকে ধরে রাখতে এবার নিজের দুহাতে দুই মেয়ের নাম ট্যাটু করে ফেললেন টলিউড হাঙ্ক। বড় মেয়ের সারার সঙ্গে মিলিয়ে ছোট মেয়ের নাম রেখেছেন জারা। ডানহাতে সারা ও বাঁ হাতে জারার নাম চিরকালের জন্য খোদাই করে নিয়েছেন গর্বিত বাবা।