আজ ও কাল গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে বৃষ্টির পূর্বাভাস

আজ ও কাল গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে বৃষ্টির পূর্বাভাস

বৈশাখ মাস পরার আগে থেকেই গরমে হাঁসফাঁস অবস্থা শুরু হয়ে গিয়েছে। তাপমাত্রা প্রায় রোজই ছঁয়েছে ৪০ ডিগ্রি। বৃষ্টির চলছে হা-হুতাশ। প্রায় এক মাস তীব্র দহনের পর অবশেষে আশার কথা শোনাল আবহাওয়া দফতর। কমছে তাপমাত্রা।

৪২ ডিগ্রি তাপমাত্রা সহ্য করতে না পেরে হিট স্ট্রোকে মৃত্যু ১২ বছরের যোগিতার ৪২ ডিগ্রি তাপমাত্রা সহ্য করতে না পেরে হিট স্ট্রোকে মৃত্যু ১২ বছরের যোগিতার

প্রবল গরম একে একে প্রাণ কেড়ে নিচ্ছে। গ্রীষ্মের শুরুতেই তাপপ্রবাহ এত বেশি যে তা সহ্য করা সম্ভব হচ্ছে না। এর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে আন্ত্রিক, ডায়রিয়ার মতো অসুখের প্রকোপও। ৪২ ডিগ্রি তাপমাত্রা সহ্য করতে না পেরে হিট স্ট্রোকে মৃত্যু হল মহারাষ্ট্রের বির জেলার ১২ বছরের যোগিতা দেশাইয়ের।

 মহানগরের পারদ ছুঁয়েছে চল্লিশ ডিগ্রি! বাঁকুড়ায় তাপমাত্রা ছুঁয়েছে পঁয়তাল্লিশ ডিগ্রি সেলসিয়াস! মহানগরের পারদ ছুঁয়েছে চল্লিশ ডিগ্রি! বাঁকুড়ায় তাপমাত্রা ছুঁয়েছে পঁয়তাল্লিশ ডিগ্রি সেলসিয়াস!

এপ্রিলের সবে শুরু। কিন্তু ভোটের উত্তাপ গায়ে মেখে গ্রীষ্মের শুরুতেই উত্তপ্ত হয়ে উঠছে রাজ্য। তাপমাত্রার পারদ চড়ছে হু হু করে।কাল মরুশহর রাজস্থানকে পিছনে ফেলে মহানগরের পারদ ছুঁয়েছে চল্লিশ ডিগ্রি। আজ সকালে এক দু পশলা বৃষ্টি হলেও পরিস্থিতির যে উন্নতি হবে না তা আগেই জানিয়ে রেখেছে আবহাওয়া দফতর। আগামী দু-এক দিনে পরিস্থিতি এরকমই থাকবে, গরম আরও বাড়বে বলেই পূর্বাভাস দিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা। ঝাড়খণ্ড থেকে গরম হাওয়া ঢুকছে বলেই তাপপ্রবাহের পূর্বাভাস।  

 এবার গরমে কেমন ঘামতে চলেছেন ভেবেই টপ করে ঘাম পড়বে! এবার গরমে কেমন ঘামতে চলেছেন ভেবেই টপ করে ঘাম পড়বে!

শীত চলে গিয়েছে। ফেব্রুয়ারিরও অর্ধেক পেরিয়েছে। এবার বইয়ের পাতা অনুযায়ী বসন্ত। কিন্তু সে তো নামেই। আসছে গরম। প্যাচপেচে গরমে এবার প্রাণ ওষ্ঠাগত হতে পারে, এমনটাই আগে থেকে জানিয়ে দিচ্ছে আবহাওয়া দফতর। এ বছর তীব্র গরমের আশঙ্কা করছেন আবহাওয়া বিদরা। ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি যেভাবে তাপমাত্রা বেড়েছে তাতে শক্তিশালী এল নিনোর প্রভাবে গোটা গরমের মরশুম নিয়ে আশঙ্কায় আবহাওয়াবিদরা। তাঁদের মতে, ঋতুবৈচিত্রের এই উলটপুরাণের মূলে রয়েছে এল নিনো। তার আগে জেনে নিন মে মাসে কলকাতা তথা পশ্চিমবঙ্গের তাপমাত্রা কেমন থাকে।

কাঁপছেন না কি! আজ কিন্তু মরশুমের শীতলতম দিন কাঁপছেন না কি! আজ কিন্তু মরশুমের শীতলতম দিন

জাঁকিয়ে শীত পড়েছে দক্ষিণবঙ্গে। আজই মরশুমের শীতলতম দিন। কলকাতা ও পাশ্ববর্তী এলাকায় তাপমাত্রা নেমে দাঁড়িয়েছে ১৩.২ ডিগ্রি সেলসিয়সে। স্বাভাবিকের থেকে তা এক ডিগ্রি কম। সকাল থেকেই ঠান্ডা হাওয়া।

নামছে পারদ, শীতের আমেজ থাকলেও এখনও সপ্তাহখানেক দূরে শীত

নামছে তাপমাত্রার পারদ। জাঁকিয়ে শীত আসার পথ এবার প্রশস্ত হতে চলেছে। এমনটাই আশা আলিপুর আবহাওয়া দফতরের। বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ ধীরে ধীরে কমছে। এর ফলেই নামছে তাপমাত্রা। গতকাল সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আজ তা কমে দাঁড়িয়েছে ১৬ ডিগ্রিতে।

চৈত্রের শেষেই পুড়ছে দক্ষিণবঙ্গ

এপ্রিলের শুরুতেই চোখ রাঙাচ্ছে দহন। দক্ষিণবঙ্গের পাঁচ জেলায় তাপমাত্রার পারদ ইতিমধ্যেই চল্লিশ ডিগ্রি ছুঁয়েছে। বীরভূম, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, পশ্চিম মেদিনীপুর ও বর্ধমানের শিল্পাঞ্চলে তাপপ্রবাহের সতর্কতা জারি করেছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। তাপমাত্রার লড়াইয়ে জেলার সঙ্গে পাল্লা দিচ্ছে কলকাতাও।

শীতের তৃতীয় ইনিংসে কাঁপল শহর

উত্তুরে হাওয়ার দাপটে ফের নামল তাপমাত্রার পারদ। আজ শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গতকালের থেকে দুই ডিগ্রি কম। শীতের এই তৃতীয় ইনিংসে শীতের সপ্তাহের শেষ দিকে পারদ নামতে আরও নামতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। এর জেরে রাজ্যজুড়ে শীতের অনুভূতি তীব্র হওয়ার পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে।

শীত কমছে রাজ্যে

উত্তরভারতে তীব্র শৈত্যবপ্রবাহ ও তুষারপাত অব্যাহত থাকলেও হাড় কাঁপানো শীতে ছন্দোপতন ঘটতে চলেছে রাজ্যে। এই মুহূর্তে উত্তুরে হাওয়ার গতিপথে কোন বাধা না থাকলেও আগামী আটচল্লিশ থেকে বাহাত্তর ঘণ্টার মধ্যে রাজ্যের কাছাকাছি আসতে চলেছে একটি পশ্চিমীঝঞ্ঝা। এর ফলে আগামী আটচল্লিশ ঘণ্টায় তাপমাত্রা ধীরে ধীরে স্বাভাবিকের কাছে চলে যাবে বলে মনে করছেন আবহাওয়াবিদরা।