দিওয়ালিতে গার্লফ্রেন্ডকে উপহার দিন এই ৭টি জিনিসের কোনও একটা

দিওয়ালিতে গার্লফ্রেন্ডকে উপহার দিন এই ৭টি জিনিসের কোনও একটা

দিওয়ালিতে খুব তো আনন্দ করার কথা ভাবছেন। কিন্তু আপনি যদি পুরুষ হন, তাহলে যে আপনার কিছু দায়িত্বও থেকে যায়। বড় উত্‍সব মানেই তো আপনার কাছের মানুষের কিছু চাহিদাও থাকে, আপনার থেকে।

দিওয়ালিতে ছবির মুক্তি নেই সংস্কার নেই: শাহরুখ

দিওয়ালিতে ছবির মুক্তি নেই সংস্কার নেই: শাহরুখ

দিওয়ালি বরাবরই সৌভাগ্যে এনেছে শাহরুখের জীবনে। গত ২২ বছর ধরে দিওয়ালিতে মুক্তি মানেই ছবি ব্লকবাস্টার। ব্যতিক্রম হয়নি হ্যাপি নিউ ইয়ারের ক্ষেত্রেও। একদিনে ৪৫ কোটি টাকার ব্যবসা করে শাহরুখের সদ্য

দিওয়ালি মানেই ব্লকবাস্টার, শাহরুখের বিশ্বাস অটুট রাখবে হ্যাপি নিউ ইয়ার?

দিওয়ালি মানেই ব্লকবাস্টার, শাহরুখের বিশ্বাস অটুট রাখবে হ্যাপি নিউ ইয়ার?

সেই ১৯৯২ সালে বলিউডে আত্মপ্রকাশ হয়েছে কিং খানের। এই ২২ বছরের মধ্য গত ২০ বছরে দিওয়ালি মানেই শাহরুখের কাছে লাকি। যখনই দিওয়ালিতে মুক্তি পেয়েছে ছবি, বক্সঅফিসে ব্লকবাস্টারের মুখ দেখেছেন শাহরুখ।

একশো কোটির শিবিরে এবার সন অফ সর্দার

দিওয়ালির সঙ্গে বলিউডের সম্পর্কটা সত্যিই গভীর। তা প্রমাণ হয়ে গেল আবারও। দিওয়ালিতে ছবি মুক্তি পেলে লক্ষ্মী আসবেই। সে যতই যশরাজ ফিল্মস ঘাড়ের ওপর নিশ্বাস ফেলুক না কেন। শেষপর্যন্ত দিওয়ালিতে আস্থা রেখে

দিওয়ালিতে খিলাড়ির মন জিতল বাংলা

উত্সবের সরসুম শুরু হওয়ার কিছুদিন আগেই বাবা হয়েছেন অক্ষয়। নিজের নানহি পরীর সঙ্গে দিওয়ালিও উদযাপন করেছেন ধুমধাম করে। উপহারও পেয়েছেন প্রচুর। তবে তার মধ্যেই খিলাড়ির মন জিতে নিল বাংলা। এরাজ্যের কোনও এক

একশো কোটির ক্যাম্পে জব তক হ্যায় জান

ছবি মুক্তির আগে কিছুটা শঙ্কা থাকলেও ইতিহাস বলছিল দিওয়ালি শাহরুখেরই। তাই এবারেও ব্যতিক্রম হল না। কিছুটা দুরুদরু বুকে হলেও ১০০ কোটির ক্যাম্পে ঢুকে গেল `জব তক হ্যায় জান`। দিওয়ালির দিন মুক্তি পেয়েছে

তিন খানের অজিব শাম...

জব তক হ্যায় জান/ কভি তো হোঙ্গে একসাথ তিন খান...২০০৮ সালের পর থেকে টানা ৪ বছর মুখ দেখাদেখি বন্ধ ছিল প্রায়। যে কোনও অনুষ্ঠানেই এড়িয়ে গেছেন দুজন দুজনকে। অবশেষে সেই বিভেদ মুছে দিল দিওয়ালির সন্ধে। `জব তক

দিওয়ালির রকেটে চড়ে বলিউড

দিওয়ালির সঙ্গে সারা দেশের সম্পর্কটা আলো, বাজি আর দেদার খাওয়া-দাওয়ার হলেও বলিউডের সঙ্গে কিন্তু এর সমীকরণটা একেবারেই আলাদা। দিওয়ালিতে বরাবরই লক্ষ্মীদেবী তাঁর প্রসন্ন হাত রেখে এসেছেন বক্সঅফিসের মাথায়।