ফের অসুস্থ দেবযানী, এবারের ঠাঁই সরকারি হাসপাতাল

ফের অসুস্থ দেবযানী মুখোপাধ্যায়। তবে চাপে পড়ে এবার আর বেসরকারি হাসপাতালে নয়, ভর্তি করা হয়েছে সরকারি হাসপাতাল এসএসকেএমে। যদিও আদালতের নির্দেশের পর এদিন দেবযানীকে কোথায় রাখা হবে তা নিয়ে তৈরি হয়েছিল রহস্য। বাড়তি সুবিধা পাইয়ে দিতেই কী শেষ পর্যন্ত দেবযানীকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হল পুলিসকে। এমন প্রশ্ন উঠছে। মঙ্গলবার সকালেই বারুইপুর আদালতে পেশ করা হয় সারদাকাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্ত দেবযানী মুখোপাধ্যায়কে। তাঁর আট দিনের পুলিসি হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত। এরপরেই দেবযানী মুখোপাধ্যায়কে নিয়ে নিউ টাউন থানার উদ্দেশ্যে রওনা দেয় পুলিস। নিউ টাউন থানার লক আপে দুজনের থাকার ব্যবস্থা রয়েছে। সেখানে রাখা হয়েছে সুদীপ্ত সেন এবং অরবিন্দ সিং চৌহানকে। প্রশ্ন উঠছে কেন তারপরেও নিউ টাউন থানায় নিয়ে আসা হল দেবযানীকে।

বিবৃতি পেশ করে পিঠ বাঁচানোর চেষ্টা দেবযানীর

পুলিস হেফাজতে থেকেই লিখিত বিবৃতিতে নিজের সাফাই দিলেন দেবযানী মুখোপাধ্যায়। প্রায় আড়াই পাতার এই বিবৃতিতে সারদাকাণ্ডে অভিযুক্ত দেবযানী নিজেকে নির্দোষ প্রমাণে ব্যস্ত থেকেছেন। বিবৃতির ছত্রে ছত্রে ধরা রয়েছে সেন স্যার অর্থাৎ সুদীপ্ত সেনের বিরুদ্ধে অসংখ্য অভিযোগ। কিন্তু এই বিবৃতির মধ্যেই ধরা পড়েছে একাধিক অসঙ্গতিও। ২০০৮ এর জানুয়ারিতে সারদায় যোগ দেওয়া সামান্য চাকুরে দেবযানী ওই বছরেরই জুলাই মাসে সারদার ডিরেক্টর হলেন কীভাবে, তা বিবৃতিতে উল্লেখ করেননি তিনি। প্রশ্ন উঠছে, পুলিস হেফাজতে থাকাকালীন একজন অভিযুক্ত আদৌ কি বিবৃতি দিতে পারেন?