দখল রাজনীতির জন্য নানুরে গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত তৃণমূলকর্মী

দখল রাজনীতির জন্য নানুরে গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত তৃণমূলকর্মী

ফের দখল রাজনীতির জন্য মৃত্যু হল নানুরে। গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেলেন এক তৃণমূলকর্মী। ভোট মেটার পর দিন কয়েক নানুর শান্ত ছিল। ফল প্রকাশের পর আবার অশান্তি। তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে এখন অগ্নিগর্ভ নানুর। সিঙ্গি গ্রামে আজ বোমাবাজি হয়। একটি তৃণমূল কার্যালয় পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। গ্রামে হানা দিচ্ছে বন্দুকবাহিনী। শান্তি নেই। খালি রক্ত। শুধুই দখল। একটাই চাহিদা, প্রশ্নহীন আনুগত্য চাইছে রাজনীতি।

তৃণমূলের পার্টি অফিস থেকে উদ্ধার বোমা তৃণমূলের পার্টি অফিস থেকে উদ্ধার বোমা

তৃণমূলের পার্টি অফিস থেকে এক ড্রাম ভর্তি বোমা উদ্ধার করল পুলিস। নানুরের বালিগুনি গ্রামে তৃণমূলের পার্টি অফিসে আজ সকালে ড্রাম ভর্তি বোমা দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁরাই খবর দেন পুলিসে। পুলিস গিয়ে বোমাগুলি উদ্ধার করে।

ফের শো-কজ কমিশনের, পার্টি অফিসের ভিতরে চলছে অনুব্রতর 'গুড় বাতাসা' ফের শো-কজ কমিশনের, পার্টি অফিসের ভিতরে চলছে অনুব্রতর 'গুড় বাতাসা'

নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে আজ থেকে নজরবন্দি বীরভূমের তৃণমূলের জেলা সভাপতি। তবুও হুমকি চলছেই। একের পর এক হুমকির অভিযোগে ফের অনুব্রতকে শো-কজ কমিশনের।

ফের বিতর্কে নানুরের বিদায়ী বিধায়ক গদাধর হাজরা ফের বিতর্কে নানুরের বিদায়ী বিধায়ক গদাধর হাজরা

ফের বিতর্কে নানুরের বিদায়ী বিধায়ক তথা তৃণমূল প্রার্থী গদাধর হাজরা। অভিযোগ, নানুরের চন্ডীদাস মেলা উপলক্ষে স্থানীয় পঞ্চায়েতগুলি থেকে বড় অঙ্কের টাকা চেয়েছেন তিনি। ওই মেলা কমিটির কর্তা গদাধর হাজরা। কমিটির রাইটিং প্যাডে পঞ্চায়েত গুলির থেকে টাকা চেয়ে চিঠি পাঠান তিনি।

 ফের রক্ত ঝড়ল নানুরে, গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে গুলিবিদ্ধ হলেন এক তৃণমূল কর্মী ফের রক্ত ঝড়ল নানুরে, গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে গুলিবিদ্ধ হলেন এক তৃণমূল কর্মী

ফের রক্ত ঝড়ল নানুরে। গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে গুলিবিদ্ধ হলেন এক তৃণমূল কর্মী। জখম তৃণমূল কর্মীকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করা হয়েছে। বুলেট  আর ফুরোচ্ছে না। প্রতিদিনই রক্তাক্ত হচ্ছে নানুর। নানুরে ফের গুলিবিদ্ধ হলেন একজন তৃণমূল কর্মী। এলাকায় বিধায়ক গদাধর হাজরার অনুগামী বলে পরিচিত সফিকুল। গদাধর গোষ্ঠীর অভিযোগ, দলেরই কাজল গোষ্ঠীর লোকজনই সাফিকুলকে খুনের চেষ্টা করে।

তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে রক্তাক্ত নানুর, দফায় দফায় চলছে ব্যাপক বোমাবাজি আর গুলি, মৃত ১, আহত ২ তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে রক্তাক্ত নানুর, দফায় দফায় চলছে ব্যাপক বোমাবাজি আর গুলি, মৃত ১, আহত ২

ফের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ। উত্তপ্ত বীরভূমের নানুর। নানুরে ফের তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষ। ব্যাপক বোমাবাজি আর গুলিতে একজনের মৃত্যু হয়েছে। গুলিবিদ্ধ হয়েছেন আরও দুজন।  বাহিরিতে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে এলাকা দখলের লড়াইয়ের জেরে, চলছে ব্যাপক বোমাবাজি, গুলি। রণক্ষেত্র বাহিরি স্কুল চত্বর। প্রাণ বাঁচাতে স্থানীয় বাসিন্দারা আশ্রয় নিয়েছেন পুলিস ক্যাম্পে। হামলাকারীদের তুলনায় পুলিসের সংখ্যা হাতে গোনা। ফলে পুলিসকর্মীরাও নীরব দর্শকের ভূমিকায়।     

ক্ষমতা পেয়েই মমতা ভুললেন সেই নানুরকে

২০০০ সালের ২৭ জুলাই, বীরভূম নানুর থানার সূচপুর গ্রামে জমি দখলকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে ১১ জনের মৃত্যু হয়, মৃতদের দলীয় কর্মী বলে দাবি করে ২০০১ সাল থেকে প্রতি বছর শহিদ দিবস পালন করত তৃণমূল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রতি বছর ২৭ জুলাই শহীদ স্মরণ সভা করতেন নানুরের বাসাপাড়ায়। কিন্তু ২০১১ সালে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর থেকেই ছবিটা বদলে দেল।

১,২০০ বোমা উদ্ধার নানুরে

নানুরের পালুন্ডি গ্রামের একটি বাড়ি থেকে প্রায় ১,২০০ তাজা বোমা উদ্ধার করল পুলিস। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে গতকাল মধ্যরাতে স্থানীয় বাসিন্দা জয়নাল শেখের বাড়িতে অভিযান চালায় পুলিস। উদ্ধার হয় বোমাগুলি।