নীতীশ মন্ত্রিসভায় সম্ভবত উপ-মুখ্যমন্ত্রী হচ্ছেন লালু-পুত্র তেজস্বী যাদব

নীতীশ মন্ত্রিসভায় সম্ভবত উপ-মুখ্যমন্ত্রী হচ্ছেন লালু-পুত্র তেজস্বী যাদব

বিহারে নীতীশ মন্ত্রিসভায় সম্ভবত উপ-মুখ্যমন্ত্রী হচ্ছেন লালু-পুত্র তেজস্বী যাদব। মন্ত্রিসভায় থাকতে পারেন লালুপ্রসাদের বড় ছেলে তেজপ্রতাপও। বিহারের সম্ভাব্য মন্ত্রিসভায় থাকছেন ২৯ জন মন্ত্রী। 

নীতীশের শপথে একই মঞ্চে মমতা-মুলায়ম-ইয়েচুরি-কেজরিওয়াল নীতীশের শপথে একই মঞ্চে মমতা-মুলায়ম-ইয়েচুরি-কেজরিওয়াল

আজ বিহারের কুর্সিতে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিতে চলেছেন নীতীশ কুমার। দুপুর দুটোয় শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান। কিন্তু এবারের নীতীশের শপথ গ্রহণ আর পাঁচটা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান নয়। দেশের রাজনীতিতে এক নয়া জোটের প্রস্তুতি হিসাবেই এই অনুষ্ঠানকে দেখছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।

মহাজোটের মহাজয়ের ৭ টি কারণ মহাজোটের মহাজয়ের ৭ টি কারণ

নরেন্দ্র মোদি হাওয়া কিভাবে উধাও হয়ে গেল বিহার নির্বাচন থেকে? নীতীশ কুমারের ক্যারিশমা কেন আরও একবার এভাবে প্রভাব বিস্তার করতে পারল? বিহার নির্বাচনে মহাজোটের এমন দুর্দান্ত জয় এবং বিজেপির পর্যুদস্ত হওয়ার ৭ টা কারণ জেনে নিন, যুদ্ধক্ষেত্র থেকেই।

বিহারে বিজেপি জিতলে, দেশ গাড্ডায় যাবে, বললেন নীতীশ কুমার বিহারে বিজেপি জিতলে, দেশ গাড্ডায় যাবে, বললেন নীতীশ কুমার

ভোট এখনও মেটেনি। তার মাঝেই বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের মুখে বিজেপি-র জয়ের কথা। কটাক্ষের সুরে নীতীশ বললেন, বিহারে বিজেপি জিতলে দেশে বড় বিপদ। তিন দফার ভোটের পর বিজেপি সরকার গঠনে আশাবাদী, অন্তত দলের একটা বড় অংশ তাই মনে করছে। কিন্তু বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারের সাফ কথা, বিজেপি যদি বিহারে জিতে যায় তাহলে দেশ বড় সমস্যার মুখোমুখি হবে। দেশ একেবারে গাড্ডায় পড়ে যাবে।

শপথের দিনেই বিজেপি বিরোধী জোটের ডাক নীতীশের শপথের দিনেই বিজেপি বিরোধী জোটের ডাক নীতীশের

নীতীশ কুমারের শপথকে উপলক্ষ্য করে পাটনা হয়ে উঠল নরেন্দ্র মোদী বিরোধী ঐক্যের  মঞ্চ। আজ চতুর্থবারের জন্য বিহারের মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিলেন নীতীশ কুমার।

 মোদীর স্মরণাগত মাজি, বিহারে আরও একবার নীতীশ রাজ মোদীর স্মরণাগত মাজি, বিহারে আরও একবার নীতীশ রাজ

দলের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করা বিহারের মুখ্যমন্ত্রী জিতনরাম মাজি এবার দেখা করবেন নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে। নীতি আয়োগের বৈঠকের পর মোদী-মাজির সাক্ষাত্‍ নিয়ে তাই

আনুষ্ঠানিকভাবে লালু-নীতীশ-কংগ্রেস মহাজোটের ঘোষণা আনুষ্ঠানিকভাবে লালু-নীতীশ-কংগ্রেস মহাজোটের ঘোষণা

বিজেপিকে ঠেকাতে বিহারে লালু-নীতীশ-কংগ্রেসের মহাজোট। গত কয়েকদিন ধরেই আলোচনা চলছিল। আজ পটনায় আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষিত হবে তিন দলের জোট। একুশে অগস্ট বিহার বিধানসভার দশটি আসনে উপনির্বাচন। জেডিইউ তিন, আরজেড

সফল বন্‌ধ- ধরনা নীতীশের, লালু-কংগ্রেস জোট এগোলো আরও একধাপ

লোকসভা ভোটের আগে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সুর চড়ালেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। বিশেষ রাজ্যের মর্যাদার দাবিতে আজ বিহার বনধের ডাক দেয় জেডিইউ। ধর্নায় বসেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী। সীমান্ধ্রকে সাত তাড়াতাড়ি বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা দেওয়া হলেও বিহারের দাবি মানা হচ্ছে না। অভিযোগ নীতীশ কুমারের।

নীতীশ-লালুর বিহারে নতুন বন্ধু পাচ্ছেন মোদী

লোকসভা ভোটের আগে কি এবার বিজেপির সঙ্গে জোট বাঁধছেন রামবিলাস পাসোয়ান? নতুন এই সমীকরণ নিয়ে জল্পনা এখন তুঙ্গে। কারণ, গতমাসেই এলজিপি প্রধান রামবিলাস পাসোয়ান জানিয়েছিলেন, কংগ্রেসের হাত ধরেই লোকসভা ভোটের ময়দানে নামবেন তিনি।

বিহারের জনসভায় বিস্ফোরক মোদী ফাটলেন নীতীশে

বছর ঘুরতে চলল। এতদিন চুপ ছিলেন। অপেক্ষা করছিলেন এই সময়টারই। বিজেপির ঘর ভাঙার জন্য কড়া নীতীশকে শোনানোর দরকার ছিল। আর তাই রবিবার ভিড়ে ঠাসা সমাবেশে পাটনার মাটিতে দাঁড়িয়েই মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারকে কড়া শোনাতে কসুর করলেন না মোদী। গান্ধী ময়দান থেকে বিজেপির প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী নরেন্দ্র মোদীর হুঙ্কার, "আমাকে যখন অনেকে প্রশ্ন করে, বিহারের মুখ্যমন্ত্রী কেন আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন, আমি বলি, যিনি জয় প্রকাশ নারায়ণকে ছেড়ে যান তিনি বিজেপির সঙ্গে থাকতে পারবেন না।"

বিহারের বন্যায় মৃত ১৯০

বিহারের বন্যা প্রভাবিত ১২টি জেলা আকাশ পথে ঘুরে দেখলেন মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। এখন পর্যন্ত বন্যা কেড়ে নিয়েছে ১৯০টি প্রাণ। পরিদর্শণের পর মুখ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান, বন্যার ক্ষতিপূরণে রাজ্য সরকার সমস্ত রকম ব্যবস্থা নিয়েছে। বর্ষা বাড়লে তার মোকাবিলায় পর্যপ্ত প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে বলেও আশ্বস্ত করেছেন নীতীশ কুমার।

নীতীশকে ক্ষমা করবেন না মোদী

নীতীশের মাটিতে দাঁড়িয়ে বিহার মুখ্যমন্ত্রীকে `দেখে নেওয়ার` হুমকি দিলেন নরেন্দ্র মোদী। বিজেপির সঙ্গে জোট ভাঙার জন্য নীতীশকে ক্ষমা করতে রাজি নন মোদী। শনিবার টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে বিহারের দলীয় সমর্থকদের উদ্দেশ্যে ভাষণে এমটাই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি। রাজ্যের মানুষ বিজপি-জেডি(ইউ)-এর সম্পর্ক ছিন্নকে ভাল চোখে দেখছে না বলে দাবি করেছেন গুজরাত মুখ্যমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রীর মুখে নীতীশের প্রশংসা

বিজেপির সঙ্গে ১৭ বছরের জোট ভেঙে বেরিয়ে আসার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই জেডিইউ নেতা নীতীশ কুমারের প্রশংসা শোনা গেল প্রধানমন্ত্রীর মনমোহন সিংয়ের গলায়। নীতীশ কুমারকে ধর্মনিরপেক্ষ নেতা বলে মন্তব্য করলেন প্রধানমন্ত্রী। যারা কংগ্রেসের বন্ধু হয়, তারাই রাতারাতি ধর্মনিরপেক্ষ হয়ে যায়, কটাক্ষ বিজেপির।

বিজেপিকে বিশ্বাসঘাতক বললেন নীতীশ কুমার

মোদীর পদোন্নতিতে জেডি(ইউ) কে হারাল বিজেপি। ১৭ বছরের সম্পর্কে পূর্ণচ্ছেদ। অথচ ২০০৩ সালে, গুজরাত দাঙ্গার ঠিক এক বছর পর নরেন্দ্র দামোদর দাস মোদীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছিলেন খোদ নীতীশ কুমার। আর আজ বিজেপির সঙ্গে গাঁটছড়া খোলার পরের সকালে ন`বছর আগের সেই প্রশংসার প্রশঙ্গে ফিরে গেলেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী। এ দিন তাঁর ব্যাখ্যা, "আমি তখন একটা সরকারি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছিলাম। ফলে সেখানে দাঁড়িয়ে রাজনৈতিক বক্তব্য দেওয়া আমার পক্ষে সম্ভব ছিল না।"

মোদীকে নিয়ে আপোস নয়, জানিয়ে দিল বিজেপি

নরেন্দ্র মোদী ইস্যুতে সতেরো বছরের এনডিএ জোট ছেড়ে বেরিয়ে গিয়েছে জেডিইউ। নীতীশ কুমার সিদ্ধান্ত শোনানোর পর পাল্টা জবাব দিয়েছে বিজেপিও। এ দিন বিজেপর মুখপাত্র মুখতার আব্বাস নাকভি জানান, নরেন্দ্র মোদী প্রসঙ্গে কোনও আপোস করা হবে না। নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে জোট যদি আবার ভাঙে, তাহলেও আপোস করবে না বিজেপি।