সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিল মোহনবাগান, ফেড কাপ যাচ্ছে গোয়াতেই

ফেডারেশন কাপ থেকে বিদায় নিল মোহনবাগান। সেমিফাইনালে চার্চিল ব্রাদার্সের ২-১ গোলে হেরে সবুজ মেরুন নৌকাডুবি হল। ম্যাচের চার মিনিটে বলবন্ত সিংয়ের গোলে এগিয়ে যায় চার্চিল। পেনাল্টি থেকে ব্যবধান বাড়ান অ্যান্টনি উলফ। মোহনবাগানের হয়ে ব্যবধান কমান ওডাফা। মোহনবাগানের বিদায়ে আর কোনও বাংলার দলই রইল না ফেডারেশন কাপে।

ড্র করে ফেড কাপের সেমিফাইনালে মোহনবাগান, সামনে চার্চিল

সালগাঁওকরের বিরুদ্ধে এক-এক গোলে ড্র করে সেমিফাইনালে মোহনবাগান।প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকার পর।দ্বিতীয়ার্ধে পেনাল্টি থেকে গোল করে মোহনবাগানকে এগিয়ে দেন ওডাফা। সালগাঁওকরকে সমতায় ফেরান জাইরু।সেমিফাইনালে মোহনবাগানের প্রতিপক্ষ চার্চিল ব্রাদার্স।

মশাল আর মরগ্যান ম্যাজিকে মাতোয়ারা ময়দান

কলকাতা ময়দান এখন মশালের আলোয় উজ্জ্বল। শিলিগুড়ি থেকে লালহলুদ রং মেখে ফেড কাপের ঠিকানা ইস্টবেঙ্গল তাঁবু। টোলগে টানাপোড়েনকে কয়েক যোজন দূরে

নির্বাসিত করে ইস্টবেঙ্গল আবার ভারত সেরা। চিডি থেকে অর্ণব, মননদীপ থেকে মেহতাব, সবার বসবাস এখন ``ক্লাউড নাইনে।``

ফাইনালেও উঠে জেদ আরও বাড়ল মরগ্যানের

ফাইনালে উঠেও আত্মতুষ্টিতে ভুগছেন না ইস্টবেঙ্গলের ব্রিটিশ কোচ ট্রেভর মরগ্যান। বললেন, এখনও অনেক কাজ করতে বাকি রয়ে গেছে। তবে দলের ফুটবলারদের উপর

ভরসা রাখছেন তিনি।

গড়াপেটার গুঞ্জন উড়িয়ে দিল ফেডারেশন

ইস্টবেঙ্গল-কালিঘাট ম্যাচকে ক্লিন চিট দিল সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন। মঙ্গলবার কালিঘাট এম এসকে ৪-৩

গোলে হারিয়েছিল লাল-হলুদ শিবির। তারপর এই ম্যাচকে ঘিরে গড়াপেটার গুঞ্জন উঠেছিল। কিন্তু

ইস্টবেঙ্গল-কালিঘাট ম্যাচে গড়াপেটা বিতর্ককে ক্লোজ চ্যাপ্টার বলে উড়িয়ে দিল সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন।

মোহনবাগান সংসারে ফাটল; টোলগে-ওডফা দ্বৈরথ শুরু

টোলগে-ওডাফার সম্পর্কে চিড়। মোহনবাগানে শুরু হয়ে গেল দুই মহা তারকার ইগোর লড়াই। ফেডারেশন কাপ

চলাকালীন টোলগে আর ওডাফার মধ্যে ঝামেলার কথা স্বীকার করে নিলেন স্বয়ং কোচ সন্তোষ কাশ্যপ।

ফেড কাপ ফাইনাল

বৃহস্পতিবার ফেডারেশন কাপের ফাইনাল। ইস্টবেঙ্গলের মুখোমুখি সালগাঁওকর। হ্যাটট্রিকের সামনে দাঁড়িয়ে ইস্টবেঙ্গল। আর মাত্র একটা লাপ।