বন্ধ বাড়ি থেকে উদ্ধার ছাত্রের পচাগলা দেহ

বন্ধ বাড়ি থেকে উদ্ধার ছাত্রের পচাগলা দেহ

বন্ধ বাড়ি থেকে উদ্ধার হল এক ছাত্রের পচাগলা দেহ। উত্তর ২৪ পরগনার ঘোলার বিলকিন্দার যোগেন্দ্রনগরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। মৃত্যু ঘিরে রহস্য দানা বেঁধেছে।

 ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় তরুণীকে শ্লীলতাহানি, মারধর ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় তরুণীকে শ্লীলতাহানি, মারধর

ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় তরুণীকে শ্লীলতাহানি, মারধর। অভিযোগ উত্তর চব্বিশ পরগনার শাসনের তেঘড়িয়ায়। রবিবার সন্ধ্যায় ডাক্তারখানা থেকে ফিরছিলেন ওই তরুণী। সে সময় তাঁকে কটূক্তি করে এলাকার দুই যুবক। তরুণী প্রতিবাদ করেন। অভিযোগ, এরপরই তরুণীর ওপর চড়াও হয় ওই দুজন। তাঁকে বেধড়ক মারধরও করা হয়। তরুণীকে সাইকেলে করে তুলে নিয়ে যাওয়ারও চেষ্টা করা হয় বলে অভিযোগ। তরুণীর চিত্‍কারে ছুটে আসেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তরুণীকে উদ্ধার করে বারাসত হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। সব অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে, এই ঘটনায় এখনও কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।

যাত্রী কার? টোটো আর অটোতে ঝামেলা যাত্রী কার? টোটো আর অটোতে ঝামেলা

যাত্রী কার? এ নিয়ে টোটো ও অটো চালকদের বারবার সংঘর্ষে অশান্তি ছড়াল বারাসতে। চাঁপদানি মোড়ে প্রথমবার গণ্ডগোল হয়। টোটো চালকরা এক অটো চালককে লোহার রড দিয়ে মারধর করে বলে অভিযোগ। বারাসত থানায় FIR করা হয়। এরপর পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়। বারাসত লরিস্ট্যান্ড ও দক্ষিণ পাড়ায় তিনটি অটো ভাঙচুর করেন টোটো চালকরা। বামনগাছিতে ডাক্তার দেখিয়ে পরিবারকে নিয়ে ফিরছিলেন প্রসেনজিত্‍ বিশ্বাস নামে এক অটোচালক। হামলার হাত থেকে রক্ষা পাননি তিনিও। ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিস। এই ঘটনায় স্থানীয় তৃণমুলের গোষ্ঠীদ্বন্দের দিকেই আঙুল তুলেছেন নিত্যযাত্রীরা। 

কালীপুজোয় এবার বারাসাত বনাম আমহার্স্ট স্ট্রিট

আর একদিন। তারপরেই কালীপুজো। হাতে মাত্র একদিন। আলোর রোশনাইয়ে সাজছে শহর। তবে কালীপুজোয় জমজমাট লড়াই আমহার্স্ট স্ট্রিটে। একইসঙ্গে বারাসতকে টেক্কা দিতে তৈরি আমহার্স্ট স্ট্রিটের তিন মেগা পুজো।

ঠিক কিসের ভয়ে কাঁটা কামদুনি?

গতকাল কামদুনির বিক্ষোভকারীদের সিপিআইএম তকমা দেন মুখ্যমন্ত্রী। আর আজ কামদুনির প্রশ্ন, "এখানে এসে কটা লাল পতাকা দেখেছেন মুখ্যমন্ত্রী?" বাসিন্দাদের দাবি, তাঁরা সবাই তৃণমূল কংগ্রেসের সমর্থক।

বারাসাতে ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

দিল্লির ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই ফের ধর্ষণ করে খুনের অভিযোগ। এবার এরাজ্যের বারাসতে। গতকাল রাতে এলাকার একটি ইটভাটা সংলগ্ন পুকুরের ঝোপ থেকে উদ্ধার হয় এক মহিলার দেহ। তাঁকে ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ পরিবারের। বেধড়ক মারধর করা হয় মহিলার স্বামীকেও। তাঁর মুখে অ্যাসিড ঢেলে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ নির্যাতিতার  ছেলের। আশঙ্কাজনক অবস্থায় আরজিকর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন মহিলার স্বামী। অভিযুক্তরা ইটভাঁটার শ্রমিক বলে দাবি স্থানীয় বাসিন্দাদের। তদন্তে নেমে বারাসত ও তার লাগোয় এলাকায় রাতভর তল্লাসি চালায় পুলিস। এপর্যন্ত ওই ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিস। এ ছাড়াও ৭ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

পথ দুর্ঘটনাকে ঘিরে রণক্ষেত্র বারাসাত

পথ দুর্ঘটনাকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল বারাসত। গতকাল রাতে শতদল মোড় এলাকা লরির চাকায় পিষ্ট হয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। এরপরই পরপর তিনটি লরিতে আগুন ধরিয়ে দেয় উত্তেজিত জনতা। ঘটনাস্থলে পুলিস পৌঁছলে শুরু হয় ইটবৃষ্টি। পরিস্থিতি সামলাতে লাঠিচার্জ করে পুলিস। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত সাতজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।