ফের অসুস্থ দেবযানী, এবারের ঠাঁই সরকারি হাসপাতাল

ফের অসুস্থ দেবযানী মুখোপাধ্যায়। তবে চাপে পড়ে এবার আর বেসরকারি হাসপাতালে নয়, ভর্তি করা হয়েছে সরকারি হাসপাতাল এসএসকেএমে। যদিও আদালতের নির্দেশের পর এদিন দেবযানীকে কোথায় রাখা হবে তা নিয়ে তৈরি হয়েছিল রহস্য। বাড়তি সুবিধা পাইয়ে দিতেই কী শেষ পর্যন্ত দেবযানীকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হল পুলিসকে। এমন প্রশ্ন উঠছে। মঙ্গলবার সকালেই বারুইপুর আদালতে পেশ করা হয় সারদাকাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্ত দেবযানী মুখোপাধ্যায়কে। তাঁর আট দিনের পুলিসি হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত। এরপরেই দেবযানী মুখোপাধ্যায়কে নিয়ে নিউ টাউন থানার উদ্দেশ্যে রওনা দেয় পুলিস। নিউ টাউন থানার লক আপে দুজনের থাকার ব্যবস্থা রয়েছে। সেখানে রাখা হয়েছে সুদীপ্ত সেন এবং অরবিন্দ সিং চৌহানকে। প্রশ্ন উঠছে কেন তারপরেও নিউ টাউন থানায় নিয়ে আসা হল দেবযানীকে।

নেতাদের তুষ্ট করতে গিয়েই ডুবল সারদা সাম্রাজ্য, বিস্ফোরক সুদীপ্ত

২৪ ঘণ্টার সামনে বিস্ফোরক মন্তব্য সুদীপ্ত সেনের। তিন মাসের মধ্যে সব তথ্য প্রকাশ হবে বলে দাবি করলেন চিট ফান্ড কেলেঙ্কারিতে ধৃত সারদা কর্তা।  তিনি বলেন, "'তিন মাসের মধ্যে সব তথ্য প্রকাশ হবে, তখনই সব সত্য সামনে আসবে।" সারদা কাণ্ডে বহু রাজনৈতিক নেতা-মন্ত্রী জড়িত রয়েছেন। এতদিন তা ছিল অভিযোগ আর সন্দেহের পর্যায়ে। এবার সেই ধাঁধা নিজের খানিকটা স্পষ্ট করলেন সুদীপ্ত। হতাশ সুদীপ্ত মুখ খুললেন, "বহু নেতা মন্ত্রীকে তুষ্ট করতে হয়েছে।" ব্যবসা 'ম্যানেজ' করার খাতিরেই তা করতে হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। এমনকি নেতাদের সন্তুষ্ট না করতে পারলে প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করা হয় বলেও অভিযোগ সুদীপ্তর।