ময়নার বিষমদকাণ্ডে গ্রেফতার মূল অভিযুক্ত

ময়নার বিষমদকাণ্ডে গ্রেফতার মূল অভিযুক্ত

পূর্ব মেদিনীপুরের ময়নার বিষমদকাণ্ডে গ্রেফতার হল মূল অভিযুক্ত মানিক রুই দাস এবং চন্দন সাঁতরা। বারাসত থেকে তাদের গ্রেফতার করেছে পুলিস। এ নিয়ে মোট ৩২ জনকে গ্রেফতার করল পুলিস। ইতিমধ্যেই বিষমদ কাণ্ডে ২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এখনও অসুস্থ প্রায় ৫০জন।

বিষমদ কাণ্ডে ক্ষতিপূরণে স্থগিতাদেশ বাড়ল

সংগ্রামপুর বিষমদ কাণ্ডে হাইকোর্টের নির্দেশে, ক্ষতিপূরণে স্থগিতাদেশের মেয়াদ আরও ৬ সপ্তাহ বাড়ল। গত ৬ ফেব্রুয়ারি রাজ্য সরকারের ঘোষিত ক্ষতিপূরণের ওপর স্থগিতাদেশ জারি করে আদালত। বিষমদ কাণ্ডে সরকার ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করার পর হাইকোর্টে দুটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হয়। একটি মামলায় ক্ষতিপূরণের যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়।

সাক্ষীদের ভয় দেখানোর অভিযোগ উঠল সংগ্রামপুর বিষমদ কাণ্ডে

সংগ্রামপুর বিষমদ কাণ্ডে মূল অভিযুক্ত খোঁড়া বাদশাকে আড়াল করতে, সাক্ষীদের ভয় দেখানো হচ্ছে। এই মর্মে ইতিমধ্যেই মগরাহাট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

ব্যর্থ সর্বদল

বিষমদকাণ্ডে শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বিতর্কিত মন্তব্যের জল গড়াল বিধানসভার সর্বদল বৈঠকেও। সরকারপক্ষ মন্তব্য প্রত্যাহার করতে রাজি না হওয়ায় সর্বদল বৈঠক থেকে ওয়াকআউট করল বামেরা। বিরোধী দলনেতা সূর্যকান্ত মিশ্রের অভিযোগ, কুত্সামূলক এই অভিযোগ প্রত্যাহারের জন্য তাঁরা সরকার পক্ষকে বুঝিয়েছেন।

বিষমদ কাণ্ডে পুলিসি রদবদল

সংগ্রামপুর বিষমদ কাণ্ডে পুলিসে ব্যাপক রদবদল করা হল। এই কাণ্ডের আজই সরিয়ে দেওয়া হয়েছে উস্তি থানার ওসি দেবব্রত সেনকে। আপাতত মগরাহাটের সার্কেল ইনস্পেক্টর সোমদেব বন্দ্যোপাধ্যায়কে ওই থানার দায়িত্ব নিতে বলা হয়েছে।

বিষমদকাণ্ডের প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখাল এসইউসিআই

সংগ্রামপুরের বিষমদকাণ্ডের প্রতিবাদে মগরাহাট থানার সামনে বিক্ষোভ দেখাল স্থানীয় এসইউসিআইয়ের বিভিন্ন গণসংগঠন। চোলাই মদের কারবারে প্রশাসনের প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ মদতের প্রতিবাদে মিছিল করে এসইউসিআইয়ের সংগঠনগুলি।