সিপিএমের প্রাক্তন বিধায়কের বাড়িতে বোমাবাজির অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

সিপিএমের প্রাক্তন বিধায়কের বাড়িতে বোমাবাজির অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

শেষ দফার ভোটের আগের রাতে সিপিএমের প্রাক্তন বিধায়কের বাড়িতে বোমাবাজির অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে। গতকাল রাতে ঘটনাটি ঘটেছে বেহালা থানার জয়শ্রী পার্কের মণ্ডলপাড়ায়। বেহালা-পূর্বের প্রাক্তন বিধায়ক কুমকুম চক্রবর্তীর বাড়িতে বোমা ছোঁড়ে দুষ্কৃতীরা। যদিও এই ঘটনায় দলের কেউ জড়িত নয় বলেই দাবি করেছে শাসকদল।

বেহালার বামাচরণ রায় রোডে শাসকদল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে গুলি চালানোর অভিযোগ বেহালার বামাচরণ রায় রোডে শাসকদল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে গুলি চালানোর অভিযোগ

ফের উত্তপ্ত বেহালা। এবার বেহালার বামাচরণ রায় রোডে গুলি চালানোর অভিযোগ। সিপিএম নেতা অরিন্দম ঝার বাড়ি লক্ষ্য করে অন্তত ৫ রাউন্ড গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। দাবি অরিন্দম ঝার। রাত দেড়টা নাগাদ এই হামলা হয়। যদিও বাড়ির বাইরে থেকে সকালে ৪টি গুলির খোল উদ্ধার করেছে পুলিস।  গোটা ঘটনায় রাজনৈতিক সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলেছেন বামনেতা অরিন্দম ঝা এবং তাঁর পরিবার। তাঁদের দাবি, রাতে হামলার নেপথ্যে শাসকদল আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই। তবে অভিযোগ মানতে নারাজ তৃণমূল। এই ঘটনার সঙ্গে রাজনীতির কোনও যোগ নেই বলেই দাবি স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের।

মানুষ উন্নয়নের পক্ষেই ভোট দেবে, আত্মবিশবাসী পার্থ মানুষ উন্নয়নের পক্ষেই ভোট দেবে, আত্মবিশবাসী পার্থ

বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের হাতিয়ার উন্নয়ন। আর মানুষ উন্নয়নের পক্ষে ভোট দেবে। এবং এই কারণেই জিতবে তৃণমূল। মানুষের কাছে তৃণমূল ছাড়া অন্য কোনও বিকল্প নেই। ভোট-প্রচারে আত্মবিশ্বাসের সুর পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের গলায়।

উপাচার্য নিগ্রহের ঘটনায় যুক্ত ৯ জন ছাত্রীকে সাসপেন্ড করল কলেজ উপাচার্য নিগ্রহের ঘটনায় যুক্ত ৯ জন ছাত্রীকে সাসপেন্ড করল কলেজ

বিবেকানন্দ মহিলা কলেজে উপাচার্য নিগ্রহের ঘটনা। ৩ দিন পর ব্যবস্থা নিল কলেজ কর্তৃপক্ষ। অধ্যক্ষ হেনস্থায় যুক্ত ৯ জন কলেজ ছাত্রীকে সাসপেন্ড করল কলেজ। বাকি ৭৭ জনকে বলা হল উপাচার্যের কাছে ক্ষমা চাইতে।

এগিয়ে আসছে ভোট, বাড়ছে রাজনৈতিক উত্তাপ এগিয়ে আসছে ভোট, বাড়ছে রাজনৈতিক উত্তাপ

কেন্দ্র বেহালা পশ্চিম। প্রার্থী তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। এই কেন্দ্রে জয় নিয়ে ১০০ ভাগ নিশ্চিত তিনি। তাই প্রচারে নেমে উড়িয়ে দিলেন বাম-কংগ্রেস জোটকে। অন্যদিকে যাদবপুর দুর্গ পুনর্দখলের লড়াইয়ে সামিল সুজন চক্রবর্তী। এই লড়াইয়ে তাঁর হাতিয়ার নারদকাণ্ড।

২ বছর পর  ঘর খুঁজে পেল মানসিক ভারসাম্যহীন, বেহালা থেকে ফিরলেন অসমে ২ বছর পর ঘর খুঁজে পেল মানসিক ভারসাম্যহীন, বেহালা থেকে ফিরলেন অসমে

ঘর খুঁজে পেল মুসলিমউদ্দিন। টানা দু বছর পর মানসিক ভারসাম্যহীন মুসলিমউদ্দিনকে নিয়ে গেল তার পরিজনেরা। এতদিন মুসলিমউদ্দিনকে আগলে রেখেছিলেন বেহালার বটতলার বাসিন্দারা। মুসলিমউদ্দিন তার পরিজনদের ফিরে পেয়েছে। এতেই আনন্দে ভাসছেন বটতলার বাসিন্দারা।  অন্যদিকে মুসলিমউদ্দিনকে ছেড়ে থাকার বেদনায় মন ভার।

বেহালা বাজিকাণ্ডে মারা গেলেন আহত যুবক

বেহালা বাজিকাণ্ডে মারা গেলেন আহত যুবক চন্দন দে। সকালে চিত্তরঞ্জন হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়। ঘটনার পর পেয়ারাবাগান এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়। অভিযুক্ত বাপি মণ্ডলের বাড়িতে চলে ব্যাপক ভাঙচপর। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় বিশাল পুলিস বাহিনী।

দোলে জনতা- পুলিস সংঘর্ষে উত্তপ্ত বেহালা পর্নশ্রী

দোলের দুপুরে জনতা- পুলিস সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠল বেহালার পর্নশ্রী। অভিযোগ আজ দুপুরে পর্নশ্রীর বঙ্কিমপল্লিতে মদ্যপান করছিলেন কয়েকজন যুবক। টহলরত পুলিস কর্মীরা তাদের বারণ করলে দুদলের মধ্যে বচসা বেধে যায়। অভিযোগ, সেইসময় পুলিসকে ধাক্কা মারেন কয়েকজন যুবক। আটকে রাখা হয় পুলিসের গাড়ি।

কলকাতায় বিজেপি দফতরে ধর্ষিতা ৫ বছরের বালিকা কলকাতায় বিজেপি দফতরে ধর্ষিতা ৫ বছরের বালিকা

দক্ষিণ কলকাতার বেহালায় ৫ বছরের নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল ১৭ বছরের এক নাবালকের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত নাবালককে শুক্রবার রাতেই গ্রেফতার করে স্থানীয় থানার পুলিস। ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে বেহালার বিজেপি দফতরে।

বাসের রেষারেষিতে বেহালায় মৃত্যু বৃদ্ধার বাসের রেষারেষিতে বেহালায় মৃত্যু বৃদ্ধার

বাসের রেষারেষি কেড়ে নিল মানুষের প্রাণ। এ বার বেহালায় পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল ৭০ বছরের এক বৃদ্ধার। আজ সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ তারাতলাগামী এসডি ৭৬ এবং এসডি ১৯ রুটের দুটি বাসের রেষারেষির জেরে দুর্ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বেহালার ডায়মণ্ড হারবার রোড-বনমালী নস্কর রোডের সংযোগস্থলে সিগনাল ভেঙে রাস্তা পার হচ্ছিলেন ওই বৃদ্ধা। ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়। বাস দুটিকে আটক করেছে বেহালা থানার পুলিস। দুটি বাসের চালক বেহালা থানায় আত্মসমর্পণ করেন। সাধারণ মানুষের অভিযোগ ওখানের রাস্তা দীর্ঘদিন ধরেই বেশ খারাপ। ট্রাজিক পুলিসের নজরাদীর সত্ত্বেও এখানে বাসেদের মধ্যে রেষারেষি বন্ধ হয় না বলে অভিযোগ।

বেহালায় বাড়ির মেঝের তলা থেকে মিলল ২১টি কেউটে বেহালায় বাড়ির মেঝের তলা থেকে মিলল ২১টি কেউটে

খোদ কলকাতায় সাপের ডেরা। বেহালার শকুন্তলা পার্কে এক বাড়ির মেঝের তলা থেকে মিলল একুশটি কেউটে সাপ। এর মধ্যে একটি বড় এবং ছটি ছোট সাপ ছাড়া বাকিদের মেরে ফেলা হয়েছে। খোদ কলকাতায় বাড়ির ভিতর মিলল একুশ

এবার ডেঙ্গির থাবা বেহালায় এবার ডেঙ্গির থাবা বেহালায়

হাওড়ার পর এবার বেহালায় থাবা বসাল ডেঙ্গি। কলকাতা পুরসভার ১২১ নম্বর ওয়ার্ডে ডেঙ্গিতে আক্রান্ত ৬ জন। প্রতিরোধে কিছুই করেনি পুরসভা, অভিযোগ এলাকার বাসিন্দাদের। ফলে আতঙ্কে দিন কাটচ্ছেন ওয়ার্ডের বাসিন্দা

দূষণ মুক্তির আর্জি নিয়ে পুজোয় পঞ্ছভূত থিমে সাজছে বেহালা নতুনদল দূষণ মুক্তির আর্জি নিয়ে পুজোয় পঞ্ছভূত থিমে সাজছে বেহালা নতুনদল

দূষিত হচ্ছে পরিবেশ। দূষণের কালো অন্ধকার রেহাই দেয়নি সমাজকেও। ক্রমশ বেড়ে চলা অবক্ষয়ের হাত থেকে মুক্তির আর্জি নিয়ে হাজির বেহালা নতুন দলের পুজো। এবার তাদের থিম ফিরায়ে দাও।

ব্রেন সার্জারির সময়ও বেহালা বাজাচ্ছেন রোগী ব্রেন সার্জারির সময়ও বেহালা বাজাচ্ছেন রোগী

অবাক তো হবেনই। কিন্তু তিনি বেহালা বাজালে নাকি ডাক্তারদের অপারেশন করতে সুবিধা হয়।  চিকিত্সা বিজ্ঞানে রোগ সারানোর নতুন দিশার খোঁজ মিলল। রজার ফ্রিস্ক নামে এক বেহালাবাদক দীর্ঘদিন ধরে "এ্যাসেন্সিয়াল ট্রিমরে" ভুগছিলেন। এ্যাসেন্সিয়াল ট্রিমর হল এক প্রকার কম্পণ যা আপনার শরীরে যেকোনও জায়গায় দেখা দিতে পারে। সবথেকে বড় কথা এই ব্যাধিকে সনাক্ত করা খুবই শক্ত। ডাক্তাররা হিমশিম খেয়ে যায় রীরে কোন জায়গায় কম্পণ সৃষ্টি হচ্ছে তার রহস্য ভেদ করতে।

বেহালায় কেপমারদের হাতে প্রতারিত বৃদ্ধা

কেপমারদের হাতে প্রতারিত হলেন এক বৃদ্ধা। আজ দুপুরে এঘটনা ঘটেছে বেহালা ট্রাম ডিপোর সামনে। আমতলার বাস ধরার জন্য বাসস্ট্যান্ডে দাঁড়িয়েছিলেন এক বৃদ্ধা। হঠাত্‍ই তাঁর দিকে এগিয়ে আসে দুই যুবক। কুড়ি টাকার নোটের একটি বান্ডিল রাখতে দেয় তাঁকে।

শিক্ষাঙ্গনে নৈরাজ্য, এবার বেহালা কলেজে, টিএমসিপিতে যোগ দিতে না চাওয়ায় মারধর ছাত্রীকে

তৃণমূল ছাত্র পরিষদে যোগ না দেওয়ার মাশুল গুণতে হল বেহালা কলেজের এক ছাত্র এবং ছাত্রীকে। গুরুতর আহত অবস্থায় গতকাল থেকে বেহালার বিদ্যাসাগর হাসপাতালে ভর্তি প্রহৃত ছাত্রী বেবি রায়চৌধুরী। অভিযোগ, বেশ কিছুদিন ধরেই কলা বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্রী বেবি রায় চৌধুরী এবং গৌতম চক্রবর্তীকে তৃণমূল ছাত্র পরিষদে যোগ দিতে চাপ দেওয়া হচ্ছিল।