শুকনো আলুর দম

বাজারপাট শেষ। ঘরে ঘরে চলছে লক্ষ্মীপুজোর শেষমুহূর্তের আয়োজন। ফলমূল বাজার সেরে শাকসব্জির তোড়জোরে ব্যস্ত বাঙালি। লক্ষ্মীদেবীর ভোগের পাতে সাদা লুচি হোক বা খিচুরি। সঙ্গে চাই-ই -চাই শুকনো আলুর দম। তাজা কড়াইশুঁটি আর টমেটোয় মাখামাখি ঝাল ঝাল আলুর দম না হলে লক্ষ্মীপুজোর ভোগের অনেকটাই যেন বাকি থেকে যায়।

লাবড়া

দুর্গাপুজো, জগদ্ধাত্রী, সরস্বতী বা লক্ষ্মীপুজো। পুজোর ভোগ মানেই খিচুরি আর লাবড়া। সঙ্গে গরম গরম বেগুনি। লাবড়া ছাড়া পুজো বাঙালি ভাবতেই পারে না। আর তাই লক্ষ্মীপুজোতেও যে সেই লাবড়াই মাত করবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। যদি এবছরই আপনার বিয়ে হয়ে থাকে, তাহলে অসাধরণ লাবড়া রেঁধে লক্ষ্মীপুজোতেই জিতে নিতে পারেন লক্ষ্মী বউয়ের খেতাবটা।

নারকেল নাড়ু ও তিলের নাড়ু

রাত পোহালেই লক্ষ্মীপুজো। আর নাড়ু ছাড়া লক্ষ্মীপুজো তো ঘট ছাড়া লক্ষ্মীরই সামিল। মা লক্ষ্মীকে বাড়িতে ঠাঁই দিলে পাতে যে নাড়ু চাই-ই-চাই। নারকেল নাড়ু, গুড়ের নাড়ু, তিলের নাড়ু, খই, মুড়কি সাজিয়ে না দিয়ে কি আর লক্ষ্মীপুজোর নৈবেদ্য সাজানো য়ায়! শুধু লক্ষ্মীপুজোই কেন। যতই মনভোলানো মিষ্টি, সন্দেশর বাজার হোক না কেন দশমী থেকে কালীপুজোর টানা পনরো দিনের বিজয়ার মরসুমেও অতিথির পাতে নাড়ু জায়গা করে নেবেই।