মদন-হারের ময়নাতদন্তে তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব

মদন-হারের ময়নাতদন্তে তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব

মদন-হারের ময়নাতদন্তে তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব। কামারহাটিতে কেন হারলেন প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্র? জেলা নেতাদের কাছ থেকে তা জানতে চেয়েছেন দলের শীর্ষ নেতৃত্ব। জবাব তলব করা হয়েছে কামারহাটির স্থানীয় নেতাদের থেকেও। ৭ দিনের মধ্যে দিতে হবে রিপোর্ট।

মদন-হারের ময়নাতদন্তে তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব মদন-হারের ময়নাতদন্তে তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব

এবার মদন-হারের ময়নাতদন্তে নামল তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব। কামারহাটিতে কেন হারলেন প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্র?  জেলা নেতৃত্বের কাছ থেকে সেই কারণ জানতে চেয়েছেন তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব। জবাব তলব করা হয়েছে কামারহাটির স্থানীয় নেতাদের থেকেও। গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরেই মদন মিত্র হেরেছেন বলে দাবি মদন-অনুগামীদের। পুরসভার চেয়ারম্যান গোপাল সাহার বিরুদ্ধে অন্তর্ঘাতের অভিযোগ তুলেছেন তাঁরা। গতকাল গোপাল সাহার বিরুদ্ধে অন্তর্ঘাতের অভিযোগে বিক্ষোভ দেখায় মদন ঘনিষ্ঠরা। গোপাল সাহার লোকজন আপত্তি জানালে শুরু হয়ে যায় মারামারি। অন্তর্ঘাতের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন কামারহাটি পুরসভার চেয়ারম্যান গোপাল সাহা।

কামারহাটিতে মদন মিত্রর হারের জেরে শাসকদলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে হাতাহাতি কামারহাটিতে মদন মিত্রর হারের জেরে শাসকদলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে হাতাহাতি

কামারহাটিতে মদন মিত্রর হারের জেরে শাসকদলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে বেধে গেল হাতাহাতি। আজ সকালে কামারহাটি পুরসভার চেয়ারম্যান গোপাল সাহার বিরুদ্ধে অন্তর্ঘাতের অভিযোগে বিক্ষোভ দেখায় এক গোষ্ঠী। অন্য পক্ষ আপত্তি জানালে শুরু হয়ে যায় মারামারি। অভিযোগ অস্বীকার করেছেন গোপাল সাহা। ঘটনার কথা জেনে ঘনিষ্ঠ মহলে মদন মিত্রর মন্তব্য, সিপিএম পিছন থেকে এলাকা অশান্ত করতে চাইছে।

মদনে এবার আরও কঠোর কমিশন, হাসপাতালে থাকলেও কার্যত বন্দিই তিনি মদনে এবার আরও কঠোর কমিশন, হাসপাতালে থাকলেও কার্যত বন্দিই তিনি

মদনে এবার আরও কঠোর কমিশন। হাসপাতালেই নিষেধাজ্ঞার জালে বন্দি ভবানীপুরের বড়দা। পরিবারের সদস্যরা ছাড়া আর কেউ এসএসকেএমে তাঁর সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না। মোবাইল ফোনও ব্যবহার করতে পারবেন না মদন মিত্র। আজ থেকেই লাগু এই নিয়ম-নিষেধাজ্ঞা।   

মদন মিত্রের চিকিত্সায় মেডিক্যাল বোর্ড গঠন এসএসকেএমের, শ্বাসকষ্ট থাকায় তাঁকে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে মদন মিত্রের চিকিত্সায় মেডিক্যাল বোর্ড গঠন এসএসকেএমের, শ্বাসকষ্ট থাকায় তাঁকে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে

মদন মিত্রের চিকিত্‍সার জন্য মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করল এসএসকেএম। মেডিক্যাল বোর্ডের তত্ত্বাবধানে মদন মিত্রের কয়েকটি ডাক্তারি পরীক্ষা করা হয়েছে। এখনও শ্বাসকষ্ট থাকায় তাঁকে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে।

শ্বাসকষ্টের কারণে এসএসকেএমে ভর্তি করা হল মদন মিত্রকে শ্বাসকষ্টের কারণে এসএসকেএমে ভর্তি করা হল মদন মিত্রকে

ভোটের পরদিনই হঠাত্‌ বুকে ব্যথা মদন মিত্রের। সঙ্গে শ্বাসকষ্ট। তড়িঘড়ি তাঁকে আনা হল এস এস কে এমে। আলিপুর সেন্ট্রাল জেল থেকে তাঁকে সঙ্গে সঙ্গে ভর্তি করা হল পিজিতে। গতকাল দিনভর জেলের ভিতর নজরবন্দি ছিলেন কামারহাটির হেভিওয়েট তৃণমূল প্রার্থী মদন মিত্র। সেলের ভিতরে দিনভর তাঁর পিছু ছাড়েননি ডেপুটি জেলর এবং দুজন সিপাই। দিনভর মনমরা ছিলেন তিনি। টিভিতে মাঝেমধ্যেই ভোটের খবর দেখেছেন। কিন্তু চিন্তায় মুখে তোলেননি তেমন কিছুই। বাবার অনুপস্থিতিতে গড় সামলান ছেলে শুভরূপ মিত্র। তারপর আজ হঠাত্‌ই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি।

হ্যান্ড সাইরেন বাজিয়ে মদন মিত্রকে আদালতে হাজির করল পুলিস

হ্যান্ড সাইরেন বাজিয়ে মদন মিত্রকে আদালতে হাজির করল পুলিস। সাংবাদিকরা মদনের উদ্দেশে কিছু বলার চেষ্টা করলেও সাইরেনের শব্দে শোনা যায়নি কিছুই। নারদ অস্বস্তির হাত থেকে মদন মিত্রকে বাঁচাতেই কি পুলিসের এই অতি সক্রিয়তা? প্রশ্ন উঠছে।

কামারহাটিতে হঠাত্ই হাজির তৃণমূলের দাপুটে নেতা মদন মিত্র! কামারহাটিতে হঠাত্ই হাজির তৃণমূলের দাপুটে নেতা মদন মিত্র!

তিনি জেলে। কিন্তু কামারহাটিতে হঠাত্‍ই হাজির তিনি। তৃণমূলের দাপুটে নেতা মদন মিত্রকে দেখা গেল কামারহাটির রাস্তায়।

প্রার্থী হয়েই কনফিডেন্ট মদন মিত্র প্রার্থী হয়েই কনফিডেন্ট মদন মিত্র

ভোটে প্রার্থী হয়েই অন্য মুডে মদন মিত্র। প্রচারে নামতে ছটফট করছেন। তাই আদালতে গিয়ে আজ সিবিআইয়ের আইনজীবীকেই বলেন, তাঁর মুক্তির জন্য কিছু করতে। সিবিআই আইনজীবী অবশ্য তাঁকে আশ্বাস দিতে পারেননি। তবে জেলবন্দি হলেও যে কুছ পরোয়া নেহি, তা আজ হাবেভাবে, কথায় স্পষ্টই বুঝিয়ে দিয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী।

 জেলের ভিতর থেকেই ভোটে লড়বেন মদন মিত্র জেলের ভিতর থেকেই ভোটে লড়বেন মদন মিত্র

জেলের ভিতর থেকেই ভোটে লড়বেন মদন মিত্র। প্রচারের জন্য প্যারোলের আবেদন করবেন না। মনোনয়নও জমা দেবেন জেলের ভিতর থেকেই। বিতর্ক এড়াতে সিদ্ধান্ত কামারহাটির তৃণমূল প্রার্থীর। এরাজ্যে বিচারাধীন বন্দির ক্ষেত্রে প্যারোল মঞ্জুর হয় না। তাই, আদালতে প্যারোলের আবেদন করবেন না মদন মিত্র। সামনেই বিধানসভা ভোট। তার আগে কোনওরকম বিতর্কে জড়াতে চান না কামারহাটির তৃণমূল প্রার্থী।  সেজন্যই এইমুহুর্তে জামিনের আবেদনও করতে চান না মদন মিত্র।

জেলে থেকেই ভোটে লড়বেন মদন জেলে থেকেই ভোটে লড়বেন মদন

নেতা জেলে তাতে কী? প্রার্থী হিসাবে মদন মিত্রর নাম ঘোষণা হতেই কামারহাটিতে প্রচারে নেমে পড়লেন তৃণমূল কর্মীরা। 

আজ আলিপুর আদালতে ফের মদন মিত্রের জামিন শুনানি আজ আলিপুর আদালতে ফের মদন মিত্রের জামিন শুনানি

প্রায় এক মাস পর আজ আলিপুর আদালতে ফের মদন মিত্রের জামিন শুনানি। গত চব্বিশ তারিখ শুনানিতে সময়ের জন্য আবেদন করেন তৃণমূল নেতা তথা প্রাক্তন ক্রীড়া এবং পরিবহনমন্ত্রীর আইনজীবী। সেই আর্জির ভিত্তিতেই সেদিন পিছিয়ে যায় শুনানি।  ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশে করেন CBI আইনজীবী রাঘবচারুলু। তবে সিবিআইকে তদন্তে সবরকমভাবে সহযোগিতা করছেন বলে গত পরশু দাবি করেন মদন মিত্র। আজও প্রাক্তন মন্ত্রীর জামিনের বিরোধিতায় আদালতে সিবিআই আইনজীবী।

 কামারহাটিতে কম্বল বিলি করলেন মদন মিত্রের ছেলে সোহম মিত্র! কামারহাটিতে কম্বল বিলি করলেন মদন মিত্রের ছেলে সোহম মিত্র!

সৌগত রায়ের ঘোষণার চব্বিশ ঘণ্টা না কাটতেই কামারহাটিতে কম্বল বিলি করলেন মদন মিত্রের ছেলে সোহম মিত্র। গতকাল সৌগত রায় জানান কামারহাটিতে  ভোটে দাঁড়াবেন মদন মিত্র। আজ কামারহাটির দেশপ্রিয় ক্লাব সংহতির মাঠে পাঁচ হাজার কম্বল বিল করা হয়।

 সব জল্পনার অবসান, বিধানসভা ভোটে তৃণমূলের প্রার্থী হচ্ছেন মদন মিত্র সব জল্পনার অবসান, বিধানসভা ভোটে তৃণমূলের প্রার্থী হচ্ছেন মদন মিত্র

সব জল্পনার অবসান। বিধানসভা ভোটে তৃণমূলের প্রার্থী হচ্ছেন মদন মিত্র। কামারহাটির কর্মিসভায় জানিয়ে দিলেন সৌগত রায়। সারদা মামলায় জেলবন্দি মদনকে প্রার্থী করার সিদ্ধান্ত নিয়ে সরব বিরোধীরা। প্রশ্ন উঠছে, তবে কী ভোটে জিততে মরিয়া তৃণমূলের ভরসা সেই মদন-আরাবুলরাই? এক বছরের বেশি সময় কেটে গেছে। সারদা মামলায় জেলবন্দি মদন মিত্র। প্রথমদিকে মদনের গ্রেফতারির প্রতিবাদে পথে নেমেছিল তৃণমূল। কিন্তু সময়ের সঙ্গে মদনের সঙ্গে দুরত্ব বেড়েছে কালীঘাটের। মদন কী দলে ব্রাত্য? জামিন নিয়ে টানাপোড়েনের মাঝে বার বার উঁকি দিয়েছে এই জল্পনাও।

১ জানুয়ারি থেকেই 'বিড়ম্বনা'য় মুখ্যমন্ত্রী, নববর্ষের শুভেচ্ছা বার্তায় পাশাপাশি মমতা-মদন ১ জানুয়ারি থেকেই 'বিড়ম্বনা'য় মুখ্যমন্ত্রী, নববর্ষের শুভেচ্ছা বার্তায় পাশাপাশি মমতা-মদন

সারদা কেলেঙ্কারির আঁচটা ছিল ২০১৪ থেকেই। প্রথমে জেল, তারপর বেল ফের জেল, ২০১৫ বর্ষে রাজ্য রাজনীতিতে সারা ফেলে দিয়েছিল প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্রের এই টানপোড়েনের ঘটনা। সারদা মামালায় গ্রেফতার হয়েছিলেন রাজ্যের প্রাক্তন ক্রীড়া ও পরিবহন মন্ত্রী। তারপর থেকেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যতটা সম্ভব দূরত্ব তৈরি করেছেন এক সময়ের তৃণমূলের শ্রেষ্ঠ 'সেনা'নীর সঙ্গে। মাঝে দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রকাশ্য সভায় এমনও বলেন, 'ব্যক্তি চোর, দল চোর নয়'। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করেছিলেন দলনেত্রী নাম না করে মদন মিত্রকেই বার্তা দিয়েছেন। দূরত্ব আরও একটু বেড়ে যায়, যখন মুকুল রায়ের সঙ্গে তৃণমূলের টানা-পোড়েনটা কমে গিয়ে দলের গুরুত্বপূর্ণ কাজে একদা তৃণমূলের সেকেন্ড ম্যানকে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা শুরু হয়। মুকুল রায়ের দলে ফেরা নিয়ে জেল বন্দী মদন 'শ্লেষে' বলেন, "আমাকে কি ছাগল মনে হয়?" তবে পরমুহূর্তেই দলনেত্রীর জয়গানও শোনা যায় তাঁর মুখে। নেত্রী দূরত্ব বাড়িয়েছেন বটে, কিন্তু মদন অনুগামীরা কিন্তু এখনও 'দাদা ও দিদি'র সম্পর্ক নিয়ে বেশ আশাবাদী। আর তারই ঝলক গোটা দক্ষিণেশ্বর জুড়ে। বড় বড় পোষ্টার হোর্ডিংয়ে 'মেরী খ্রীষ্টমাস' ও ইংরাজি নববর্ষের শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন বিধায়ক মদন মিত্র। আর পাশেই দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি। এই ছবি বিরলতম, কারণ সর্বপরি শেষ বছরে এমন ছবি বিশেষ চোখে পড়েনি। প্রথমে মদনের পাশে আছে দল, এই বার্তা দিতে গিয়েও পিছিয়ে এসছে দল। সামনেই ভোট, তাহলে কি মদন মিত্রের সঙ্গে দূরত্ব কমছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের, না এ কেবলই অনুগামীদের আকাঙ্ক্ষা? উত্তরটা সময়ই বলবে।

ফের জামিনের আর্জি খারিজ, ভোটে প্রার্থী হওয়া নিয়ে মুখ খুললেন মদন ফের জামিনের আর্জি খারিজ, ভোটে প্রার্থী হওয়া নিয়ে মুখ খুললেন মদন

ফের মদন মিত্রের জামিনের আর্জি খারিজ।  তাঁকে ১৪ জানুয়ারি পর্যন্ত জেল হেফাজতের নির্দেশ দিল আলিপুর আদালত। আদালতে আজ মদন মিত্রের জামিনের স্বপক্ষে জোরালো সওয়াল করেন তাঁর  আইনজীবী। তাঁর যুক্তি,  মদন মিত্র এখন আর মন্ত্রী নন, প্রভাবশালীও নন। পরিস্থিতিও আর আগের মতো নেই।  একইসঙ্গে মক্কেলের অসুস্থতার কথাও আদালতের সামনে তুলে ধরেন তিনি। বলেন, মদন মিত্র  অসুস্থ, জেলে যথাযথ চিকিত্সা হচ্ছে না।  কিন্তু, বিফলে যায় আইনজীবীর চেষ্টা। মদন মিত্রের জামিনের আর্জি খারিজ করে দেয় আদালত।