ঝাড়খণ্ডে পুলিস এনকাউন্টার মৃত ১২ মাওবাদী ঝাড়খণ্ডে পুলিস এনকাউন্টার মৃত ১২ মাওবাদী

ঝাড়খণ্ডে মাওবাদীদের বিরুদ্ধে অভিযানে বড়সড় সাফল্য পেল নিরাপত্তা বাহিনী। পালামৌ জেলার বাকোরিয়া এলাকায় আধাসেনার সঙ্গে সংঘর্ষে মৃত্যু হল বারোজন মাওবাদীর। মধ্যরাতে সন্দেহভাজন  মাওবাদীদের একটি দলকে চ্যালেঞ্জ করে টহলদার আধাসেনারা। আত্মসমর্পণের পরিবর্তে তাদের ওপর গুলি চালায় মাওবাদীরা। সংঘর্ষের খবর পেয়ে দ্রুত বাহিনী নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে যান পালামৌ-এর IG এবং পুলিস সুপার। রাত দুটোয় এনকাউন্টার শেষ হলে, দেখা যায় ১২ জন মাওবাদীর মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে আটটি আগ্নেয়াস্ত্র এবং দুশো রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে পুলিস। সাম্প্রতিক কালে ঝাড়খণ্ডে মাওবাদীদের বিরুদ্ধে এটাই সবচেয়ে বড় সাফল্য।

রাজ্য রাজি, তবু কেন্দ্রের আপত্তিতে আটকে মাওবাদী মুখপাত্রের মুক্তি রাজ্য রাজি, তবু কেন্দ্রের আপত্তিতে আটকে মাওবাদী মুখপাত্রের মুক্তি

কেন্দ্রের আপত্তি। তাই রাজ্য রাজি থাকলেও মুক্তি পাচ্ছেন না রাজনৈতিক বন্দি মাওবাদী মুখপাত্র গৌর চক্রবর্তী। বাম আমলের শেষের দিকে UAPA ধারায় গ্রেফতার করা হয়েছিল স্বঘোষিত এই মাওবাদী মুখপাত্রকে। রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পর রাজনৈতিক বন্দির স্বীকৃতি চেয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন গৌর চক্রবর্তী। হাইকোর্টে সেই আবেদনের বিরোধিতা করেছিল রাজ্য। কিন্তু, তারপর পরিস্থিতি বদলেছে,সম্প্রতি গৌর চক্রবর্তীর শারীরিক অবস্থা ও বয়সের কথা উল্লেখ করে তাঁকে মুক্তি দেওয়ার আর্জি জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দেন তাঁর স্ত্রী। একই আর্জি জানিয়ে APDR-র তরফে  চিঠি দেন সুজাত ভদ্র।