আল আমিন কলেজের গেটে ঝুলল সাসপেনশন অর্ডার

নতুন করে উত্তেজনা দেখা দিল বেনিয়াপুকুরের মিল্লি আল আমিন কলেজে। সাসপেন্ড হওয়া শিক্ষিকাদের আজ কলেজে ঢুকতে বাধা দেয় বেশ কয়েকজন বহিরাগত। আজ কলেজে নিজেদের জিনিসপত্র নিতে গিয়েছিলেন সাসপেন্ড হওয়া অধ্যাপিকারা। অভিযোগ, কলেজের গেটেই তাদের বাধা দেয় কয়েকজন বহিরাগত। পুলিসের সামনেই তাঁদের ধাক্কা দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। এদিকে, সাসপেন্ড হওয়া শিক্ষিকাদের বিরুদ্ধে কলেজের গেটেই সাসপেনশন অর্ডার ঝুলিয়ে দিয়েছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

অধ্যাপিকাদের শারীরিক নিগ্রহের অভিযোগ অধ্যক্ষর বিরুদ্ধে

ফের উত্তপ্ত মিল্লি আল আমিন কলেজ। কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে শারীরিক নিগ্রহের অভিযোগ এনেছেন কলেজের দুই অধ্যাপিকা। পাল্টা অভিযোগ করেছেন অধ্যক্ষও। দু পক্ষই বেনিয়াপুকুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। মিল্লি আল আমিন কলেজের পরিচালন সমিতির প্রধান তৃণমূল সাংসদ সুলতান আহমেদ। তাঁর বিরুদ্ধে কিছুদিন আগেই কলেজের অধ্যাপিকাদের নিগ্রহের অভিযোগে সরব হয়েছিলেন কয়েকজন অধ্যাপিকা।

কলেজ ভাড়া নিয়ে বসে বিয়ের আসর, শিকেয় পঠন পাঠন

চালু রয়েছে কলেজ। তারই মধ্যে বিয়েবাড়ির আসর। সকাল থেকেই উনুন জ্বালিয়ে চলছে রান্নাবান্না। বেশ কয়েকবছর ধরে এমনটাই হয়ে আসছে খাস কলকাতার বেনিয়াপুকুরের মিল্লি আল আমিন কলেজে। এর জেরে কার্যত শিকেয় পঠন-পাঠন। কলেজ কর্তৃপক্ষ থেকে দমকলমন্ত্রীর দফতর, একাধিকবার দরবার করেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। অভিযোগ শিক্ষিকাদের।