কংগ্রেসে বড় ভাঙন, ত্রিপুরায় তৃণমূলই হতে চলেছে প্রধান বিরোধী দল

কংগ্রেসে বড় ভাঙন, ত্রিপুরায় তৃণমূলই হতে চলেছে প্রধান বিরোধী দল

দল ছাড়লেন ত্রিপুরার ৬ জন কংগ্রেস বিধায়ক। এর আগেই পদত্যাগ করেছেন ত্রিপুরা বিধানসভার বিরোধী দলনেতা, কংগ্রেসের সুদীপ রায় বর্মন। তিনি ইতিমধ্যেই তৃণমূলে যোগ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন।

বিধানসভা ভোটে না লড়েও হিরো যারা বিধানসভা ভোটে না লড়েও হিরো যারা

সিনেমায় যেমনটা হয়, রাজনীতিতে তেমনটা হয় না। পরিষ্কার ও স্পষ্ট ভাবে বলা সিনেমার পরিচালক আর রাজনীতির নেপথ্য নায়করাই বাস্তবের আসল বাজিগর। মানুষ দেখছেন, খেলায় নেই, অথচ খেলার ম্যাজিকটা তাঁর হাতের তালুবন্দি। পরিচালক যেমন চিত্রনাট্যে অভিনেতাকে দিয়ে নায়ক কিংবা ভিলেন চরিত্রে অভিনয় করিয়ে নেন, রাজনীতির নেতারাও কিন্তু তাই, নিজে কখনও সামনে থেকে লড়েন না তবে, লড়াইটা তাঁরই মগজ প্রসূত। রাজনীতির অভিধানে এই গেম প্ল্যানারদের বলা হয় 'চাণক্য'। 

নারদের স্টিং অপারেশন নিয়ে কে কী বললেন নারদের স্টিং অপারেশন নিয়ে কে কী বললেন

নারদ নিউজের স্টিং অপারেশনকে হাতিয়ার করে সরব বিরোধীরা। আজ সাংবাদিক সম্মেলন করে ২৫ মিনিটের ফুটেজ দেখান বিজেপি নেতা সিদ্ধার্থনাথ সিং। তাঁর দাবি, ফুটেজ থেকেই স্পষ্ট দুর্নীতিতে ডুবে আছে তৃণমূল সরকার। ফুটেজ নিয়ে সরব বামেরা শিবিরও। কমিশনের কাছে প্রয়োজনে ভোট স্থগিত রাখার আর্জি জানাচ্ছে বামেরা। তৃণমূল শিবিরের পাল্টা যুক্তি, রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করতে না পেরে ষড়যন্ত্র করছে বিরোধী শিবির। গোটা ভিডিওটাই আদতে ভুয়ো। নারদ নিউজের এডিটর ম্যাথিউ স্যামুয়েলের পাল্টা দাবি, তাদের হাতে ৫২ ঘণ্টার ফুটেজ রয়েছে। যদিও, ফুটেজ খতিয়ে দেখেনি ২৪ ঘণ্টা।

রাজ্যে বিধানসভা ভোটের দিন ঘোষণার দিনেই, ফুরফুরা শরিফে হাজির তৃণমূল নেতারা রাজ্যে বিধানসভা ভোটের দিন ঘোষণার দিনেই, ফুরফুরা শরিফে হাজির তৃণমূল নেতারা

রাজ্যে বিধানসভা ভোটের দিন ঘোষণার দিনেই, ফুরফুরা শরিফে হাজির তৃণমূল নেতারা। গতকাল রাতেই ফুরফুরা শরিফে পৌছে যান তৃণমূলের দুই শীর্ষ নেতা মুকুল রায় এবং ফিরহাদ হাকিম। ত্বহা সিদ্দিকির সঙ্গে দেখা করেন তাঁরা। প্রায় দু-ঘণ্টা কথা হয় দুপক্ষের। তৃণমূল নেতাদের দাবি, এটি নিছক সৌজন্য সাক্ষাত্‍। রাজনীতি-বিষয়ে কোনও কথা হয়নি বলে জানান মুকুল রায়। রাজ্যে বাম-কংগ্রেস জোট প্রসঙ্গে কটাক্ষের সুর শোনা যায় তাঁর গলায়। বলেন, জোট সম্পূর্ণ অনৈতিক। দুই নেতারই বক্তব্য ছিল, সংখ্যালঘু উন্নয়নের অনেক কাজ এখনও বাকি। তৃণমূলের সরকারই তা করবে।

মুকুল রায়ের নেতৃত্বে আজ কমিশনে তৃণমূল মুকুল রায়ের নেতৃত্বে আজ কমিশনে তৃণমূল

মুকুল রায়ের নেতৃত্বে আজ নির্বাচন কমিশনে তৃণমূল। ইতিমধ্যেই কমিশনের কাছে রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভেঙে পড়ার অভিযোগ জানিয়েছে বিরোধীরা। বিরোধীদের সেই অভিযোগ কাটতেই এবার তত্পর রাজ্যের শাসকদল। কমিশনকর্তাদের কাছে  তথ্য-পরিসংখ্যান পেশ করে পশ্চিমবঙ্গের পরিস্থিতি অন্যান্য রাজ্যের তুলনায় কতটা ভাল, আজ তার খতিয়ান  দেবেন তৃণমূল প্রতিনিধিরা।  

ভোট পরিচালনার পুরনো দায়িত্বেই কি ফিরছেন মুকুল রায়? ভোট পরিচালনার পুরনো দায়িত্বেই কি ফিরছেন মুকুল রায়?

বৃত্ত সম্পূর্ণ। এবার কাজ। ভোট পরিচালনার পুরনো দায়িত্বেই কি ফিরছেন মুকুল রায়? এই গুঞ্জনের মধ্যেই সক্রিয়ভাবে কাজে নেমে পড়লেন তৃণমূলের একদা সেকেন্ড ইন কম্যান্ড। ছেলের সমর্থনে কাঁচরাপাড়ার মিছিল সেরেই সোজা কালীঘাট। বৃত্ত সম্পূর্ণ হয়েছিল শুক্রবারই। একবছর পর তৃণমূল ভবনে পা রাখেন। দলের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধার কাজটা করে দেন দলনেত্রী। ফের সক্রিয় হতে চলেছেন মুকুল রায়। স্পষ্ট বুঝিয়ে দেন নেত্রী। সেইমতো কাজে নেমেও পড়লেন মুকুল রায়। প্রায় এক বছর পর ফের তৃণমূলের মিছিল দেখা গেল তাঁকে। এদিন সকাল নটা নাগাদ  কাঁচড়াপাড়ায় শুভ্রাংশু রায়ের সমর্থনে মিছিলে হাঁটেন তিনি। উড়ে এল প্রশ্ন, ভোটপ্রচার নাকি ফের কাজ শুরু করা?

এবার তৃণমূলের মিছিলে দেখা যাবে মুকুল রায়কে এবার তৃণমূলের মিছিলে দেখা যাবে মুকুল রায়কে

এবার তৃণমূলের মিছিলে দেখা যাবে মুকুল রায়কে। এমাসের তিরিশ তারিখ কাঁচড়াপাড়ায় শুভ্রাংশু রায়ের সমর্থনে মিছিল করবে তৃণমূল। সেই মিছিলে হাঁটবেন মুকুল রায়। প্রায় এক বছর পর ফের তৃণমূলের মিছিল দেখা যাবে মুকুল রায়কে। এবং ছেলের হয়ে প্রচারে নামার মধ্যে দিয়েই শুরু হচ্ছে নতুন পর্ব।  ইতিমধ্যে নানা ঘটনাবালীর মধ্যে দিয়ে তৃণমূলের সঙ্গে দূরত্ব কমেছে তাঁর। কলকাতায় গুলাম আলির অনুষ্ঠানে মমতা ব্যানার্জির গাড়িতেই আসেন মুকুল।  দূরত্ব কমার পর্বে  দলের কাজে প্রথম তাঁকে দেখা গেছে নাজমা হেপতুল্লার কাছে দলের সাংসদদের ডেপুটেশনেক সময়। সাংসদ হিসাবেই এই ডেপুটেশনে হাজির ছিলেন মুকুল। এবার ছেলের হয়েই প্রচারে নেমে দলের মিছিলে যোগ দেবেন তিনি।

মমতার উত্তরবঙ্গের ট্রেনে সওয়ার মুকুল, ফের দিদির ছায়াসঙ্গীর ভূমিকায় ফিরলেন মমতার উত্তরবঙ্গের ট্রেনে সওয়ার মুকুল, ফের দিদির ছায়াসঙ্গীর ভূমিকায় ফিরলেন

তিন দিনের উত্তরবঙ্গ সফরে মুখ্যমন্ত্রী। সকালেই শিলিগুড়িতে পৌছোন। আগামী ২৪ তারিখ, রবিবার পর্যন্ত উত্তরবঙ্গজুড়ে তাঁর একগুচ্ছ কর্মসূচি। ভোটের আগে পাহাড়ের হওয়া কোন দিকে? তার আঁচ পেতেই মুখ্যমন্ত্রীর উত্তরবঙ্গ সফর। মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

মনের শুদ্ধিকরণে বেলুড় মঠে মুকুল মনের শুদ্ধিকরণে বেলুড় মঠে মুকুল

বেলুড় মঠে পুজো দিলেন মুকুল রায়। আজ সকাল এগারোটায় বেলুড় মঠে পৌছন তিনি। পুজো দিয়ে মঠের বিভিন্ন জায়গা ঘুরে দেখেন। মঠের মহারাজদের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ কথা বলেন তিনি। এর আগে গত সপ্তাহেই জঙ্গলমহলে গিয়ে কনকদুর্গা মন্দিরে পুজো দিয়েছিলেন মুকুল রায়। রামগড়ের একটি মন্দিরেও পুজো দেন তিনি। বেলুড় মঠ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় মুকুল রায় বলে যান, মনের শুদ্ধিকরণের জন্যই তিনি প্রতি বছর বেলুড়ে আসেন।

কংগ্রেসের নেতাদের সঙ্গে  লাঞ্চের আড্ডা, সৌজন্যের মোড়কে ঘর ভাঙনের প্রস্তুতিই কি নিচ্ছেন মুকুল? কংগ্রেসের নেতাদের সঙ্গে লাঞ্চের আড্ডা, সৌজন্যের মোড়কে ঘর ভাঙনের প্রস্তুতিই কি নিচ্ছেন মুকুল?

তৃণমূলের সঙ্গে রিইউনিয়ন পর্ব শেষ হতে না হতেই ফর্মে ফেরা শুরু মুকুল রায়ের। দুপুরে দিল্লির বঙ্গভবনে রাজ্য কংগ্রেসের নেতা-বিধায়কদের সঙ্গে লাঞ্চপর্ব সারলেন তিনি। তারপর দীর্ঘ আড্ডা। নেহাতই সৌজন্য সাক্ষাত্‍, দাবি মুকুলের। কংগ্রেস সূত্রে অবশ্য খবর, নিজেই ফোন করে অ্যাপয়েন্টমেন্ট করে বঙ্গভবনে গিয়েছিলেন মুকুল রায়।

 মুকুল রায় দলে ফেরায় তীব্র শ্লেষ মদনের মুকুল রায় দলে ফেরায় তীব্র শ্লেষ মদনের

মুকুল রায় দলে ফেরায় তীব্র শ্লেষ মদনের। সারদাকাণ্ডে জেলবন্দি মদন মিত্রকে আজ আলিপুরে আদালতে হাজির করা হয়। আদালত চত্বরে মুকুল রায়ের দলে ফেরা নিয়ে প্রশ্নের জবাবে প্রথমে ইঙ্গিতপূর্ণ হাসি ছুঁড়ে দেন মদন। তবে কি তাঁকে বলির পাঁঠা বানানো হল? পাল্টা কটাক্ষও উঠে আসে মদনের শ্লেষ।

কোন সমীকরণে তৃণমূলে ঘর ওয়াপসি মুকুল রায়ের? সবটাই গট-আপ!  কোন সমীকরণে তৃণমূলে ঘর ওয়াপসি মুকুল রায়ের? সবটাই গট-আপ!

তৃণমূলে ঘর ওয়াপসি মুকুল রায়ের। কিন্তু কোন সমীকরণে? তবে কি দিদি-মুকুল গট  আপ? তাহলে এই তো সেদিনও কেন জেটলি, রাহুলের দরবারে মুকুল ?  কেন এই কানামাছি ভোঁ ভোঁ ? ভোটের অঙ্ক মেলাতেই কি ফের হাত ধরাধরি?  জল্পনা জারি রাজনৈতিক মহলে ।

দুরত্ব আরও কমছে, এবার সরাসরি দলের কাজে ফিরলেন মুকুল রায় দুরত্ব আরও কমছে, এবার সরাসরি দলের কাজে ফিরলেন মুকুল রায়

মুকুল-তৃণমূল দুরত্ব আরও কমছে। আবার সরাসরি দলের কাজে ফিরলেন মুকুল রায়। সংসদের সেন্ট্রাল হলে কুশল বিনিময়, তারপর অভিষেক ব্যানার্জির বাড়িতে মমতা ব্যানার্জির আমন্ত্রণে নৈশভোজ। মুকুলকে নিয়ে তৃণমূলে বরফ গলার ইঙ্গিত গত সপ্তাহেই পাওয়া গিয়ছিল। এবার তৃণমূল সাংসদদের প্রতিনিধি দলে দেখা গেল মুকুল রায়কে। প্রায় আট মাস পর আবার সরাসরি দলের কাজে ফিরলেন তিনি।

'কেমন আছো মুকুল?' প্রশ্ন মমতার, দাদা-দিদি আবার মুখোমুখি 'কেমন আছো মুকুল?' প্রশ্ন মমতার, দাদা-দিদি আবার মুখোমুখি

সংসদের সেন্ট্রাল হলে মুখোমুখি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও মুকুল রায়। আজ দুপুরে অরুণ জেটলির  সঙ্গে দেখা করতে যাচ্ছিলেন মুকুল রায়। সেন্ট্রাল হলে মমতার আসার খবর পেয়েই তিনি সংসদে চলে যান। বছর ঘোরার মুখে এবার কি তবে দলে ফেরার বার্তা দিলেন মুকুল? দুজনের কুশল বিনিময় ঘিরে জল্পনা তুঙ্গে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে ছিলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালও। কেজরিওয়ালের সঙ্গে মুকুলের পরিচয়ও করিয়ে দেন মমতা। মুকুল রায়ের নয়া দল গড়া নিয়ে জল্পনার মাঝেই এদিনের সাক্ষাত্‍ তাত্‍পর্যপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

দিল্লিতে মুকুলকে স্যুপ খাওয়ালেন ডেরেক, সুখেন্দু দিল্লিতে মুকুলকে স্যুপ খাওয়ালেন ডেরেক, সুখেন্দু

দিল্লিতে মুকুল রায়কে স্যুপ খাওয়ালেন ডেরেক ও ব্রায়েন আর সুখেন্দুশেখর রায়। গত ছাব্বিশ তারিখ সংসদের সেন্ট্রাল হলে তিনজনকে একসঙ্গে স্যুপ খেতে দেখা যায়। সারদাকাণ্ডে সিবিআই তলবের পর থেকেই দলের সঙ্গে দূরত্ব বাড়তে থাকে মুকুল রায়ের। দেখা হলে হাই-হ্যালো পর্যন্ত ছিল বাক্যালাপ। কিন্তু, স্যুপ খাওয়ানোর সখ্য? দলের এক্কেবারে শেষ সারিতে চলে যাওয়া মুকুল রায়ের সঙ্গে কি তাহলে কমছে দূরত্ব? রাজনৈতিক মহলে জল্পনা এখন তুঙ্গে।