ব্যারেটোর সঙ্গে দেখা সোনির,হাইতির তারকা স্ট্রাইকারই কি আগামীর সবুজ তোতা?

ব্যারেটোর সঙ্গে দেখা সোনির,হাইতির তারকা স্ট্রাইকারই কি আগামীর সবুজ তোতা?

কলকাতায়  খেলতে আসার পর থেকেই ব্যারেটোর কথা শুনছেন মোহনবাগানের নতুন তারকা সোনি নর্দি। কয়েকদিন আগে একটি রেস্তোরায় তাঁকে জড়িয়ে ধরেন মোহনবাগানের এক বয়স্ক সমর্থক। জানান ব্যারেটো অবসর নেওয়ার পর তিনি মাঠে যাওয়া ছেড়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু তাঁকে ফের মাঠে ফিরিয়েছে সোনির খেলা। এরপর  কৌতুহলবশতই ইউটিউবে  ব্যারেটোর পুরনো ক্লিপংস খেলা দেখেন সোনি। তবে খেলোয়াড় ব্যারেটোর থেকেও ব্রাজিলীয় তারকাকে ঘিরে মোহনবাগান জনতার আবেগ আরও বেশি করে মনে ধরেছে তাঁর। তাই হাইতির এই তারকা স্ট্রাইকার চান ভাল খেলে ব্যারেটোর মতই মোহনবাগান জনতার মনে জায়গা করে নিতে।

সোনিকে শোকজ  ফেডারেশনের সোনিকে শোকজ ফেডারেশনের

সোনি নর্দির শোকজের চিঠি পেল মোহনবাগান। ডেম্পো ম্যাচে নির্মল ছেত্রীকে হাত চালিয়ে লালকার্ড দেখতে হয়েছিল সবুজ-মেরুনের তারকা স্ট্রাইকারকে। সেই ম্যাচের রেফারি রিপোর্ট পাওয়ার পর তা শৃঙ্খলারক্ষা কমিটিতে পাঠিয়ে দেয় ফেডারেশন। তা দেখে সোনিকে শোকজ করার সিদ্ধান্ত নেয়  এন এ খানের নেতৃত্বাধীন শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি। বুধবার বিকেলেই সেই শোকজের চিঠি এসে পৌছয় সবুজ-মেরুনে। ক্লাব সূত্রের খবর খুব শীঘ্রই শোকজের উত্তর দিয়ে দেবেন সোনি। লালকার্ড দেখায় পরের ডেম্পো ম্যাচে খেলতে পারবেন না হাইতির এই স্ট্রাইকার। সোনির ম্যাচ সাসপেনশনের সংখ্যা বাড়বে কি না তা নির্ভর করছে শৃঙ্খলারক্ষা কমিটির সিদ্ধান্তে ওপর। তবে ফেডারেশন সূত্রের খবর সোনি নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে নিলে বড়ম্যাচে তাঁর খেলতে কোনও সমস্যা হবে না।

অঞ্জনের ডিগবাজি, কোর কমিটিতে দুই মন্ত্রীর উপস্থিতিতে জমজমাট বাগান নাটক অঞ্জনের ডিগবাজি, কোর কমিটিতে দুই মন্ত্রীর উপস্থিতিতে জমজমাট বাগান নাটক

পদত্যাগ করার আটচল্লিশ ঘন্টার মধ্যে ডিগবাজি খেলেন মোহনবাগান সচিব অঞ্জন মিত্র। মঙ্গলবার ক্লাব তাঁবুতে কার্যকরী কমিটির জরুরি বৈঠকের পর নিজের সিদ্ধান্ত বদল করে সচিবের চেয়ারে ফের বসলেন অঞ্জন। সভাপতি, অর্থ-সচিবের মতো শীর্ষ কর্তা বাদে রুদ্ধদার বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন চব্বিশজন সদস্য। বৈঠকের অধিকাংশ সময় অঞ্জন মিত্রকে সিদ্ধান্ত বদল করার জন্য পরামর্শ দেন সুব্রত মুখার্জি, অরূপ বিশ্বাসরা। গ্রহন করা হয়নি তিন শীর্ষকর্তার পদত্যাগপত্র। ঘন্টা খানেকের বৈঠকের পদত্যাগের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করেন ক্লাব সচিব।