যাদবপুরের বিজয়গড়ে শুরু হল বারো ভূতের মেলা

যাদবপুরের বিজয়গড়ে শুরু হল বারো ভূতের মেলা

যাদবপুরের বিজয়গড়ে শুরু হল নারায়ণের দ্বাদশ অবতার রূপে বারো ভূতের মেলা। পয়লা মাঘ থেকে শুরু হয়ে চৌঠা মাঘ পর্যন্ত চলবে মেলা। এবার পঁয়ষট্টি বছরে পা দিল এই মেলা। যাদবপুরের বিজয়গড়ে নারায়ণের দ্বাদশ রূপ মেলার একটা ইতিহাস রয়েছে। শোনা যায় দুশো তিয়াত্তর বছর আগে বাংলাদেশের রহিতপুর গ্রামের বাসিন্দা চৈতন্য ঘোষ নারায়ণের দ্বাদশ রূপ দর্শন করেন। স্বপাদেশ পেয়ে এরপরই পুজো শুরু করেন তিনি। পরবর্তী কালে চৈতন্য ঘোষের বংশধররা বাংলাদেশ থেকে এদেশে চলে আসেন। সেই থেকেই বিজয়গড়ে শুরু হয় নারায়ণের দ্বাদশ রূপ মেলা। পৌষ সংক্রান্তিতে মহিলারা সন্তানের মঙ্গল কামনায় জোড়া ডিম ও ফল দিয়ে পুজো শুরু করেন।

এবার মিছিলে ডাকলেন যাদবপুরের আন্দোলনকারী ছাত্ররা এবার মিছিলে ডাকলেন যাদবপুরের আন্দোলনকারী ছাত্ররা

নির্দিষ্ট সময়ে ছাত্র ভোট হোক যাদবপুরে। এই দাবিকে যারা সমর্থন করেন তাদের এবার মিছিলে ডাকলেন আন্দোলনকারী ছাত্ররা।আগামী মঙ্গলবার এই মিছিল হবে।এই ইস্যুতে ফের বড় আন্দোলন করলে ছাত্রদের থেকে কতটা সমর্থন মিলবে, তা বুঝতেই এই উদ্যোগ। তার পরেই নিজেদের পরবর্তী কর্মসুচি ঠিক করবেন আন্দোলনকারীরা। গতকালের সাধারণ সভায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ছাত্ররা। নির্দিষ্ট সময়ে ভোটের ইস্যুতে মিটিং করেছে প্রেসিডেন্সির ছাত্র সংগঠন আইসিও। তাদের দখলেই এখন প্রেসিডেন্সির ইউনিয়ন। ঠিক হয়েছে ক্লাসে ক্লাসে প্রচারের পর ছাত্রদের মত বুঝে পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করবেন তাঁরা। 

ভোটের দাবিতে উপাচার্য, সহ উপাচার্য, রেজিস্ট্রার, অধ্যাপক ও পরিচালন সমিতির সদস্যদের ঘেরাও ছাত্র-ছাত্রীদের ভোটের দাবিতে উপাচার্য, সহ উপাচার্য, রেজিস্ট্রার, অধ্যাপক ও পরিচালন সমিতির সদস্যদের ঘেরাও ছাত্র-ছাত্রীদের

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে ফের অশান্তি। ছাত্র সংসদের ভোট করার দাবিতে উপাচার্য, সহ উপাচার্য, রেজিস্ট্রার, অধ্যাপক  ও পরিচালন সমিতির সদস্যদের ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন ছাত্র-ছাত্রীরা। বিষয়টি নিয়ে আচার্যের সঙ্গে  সোমবার কথা বলার আশ্বাস দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। যদিও ছাত্র-ছাত্রীদের দাবি আজই নোটিফিকেশন জারি করতে হবে।বিজ্ঞপ্তি জারি না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে বলেও জানিয়েছেন তারা। গত অক্টোবরেই শিক্ষামন্ত্রী  নির্দেশ দেন মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য জুন-জুলাইয়ের আগে কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে ভোট করা যাবে না। যদিও,গত মঙ্গলবার যাদবপুর বিশ্বিদ্যালয়ের কর্মসমিতি নিজেদের নির্ঘণ্ট মেনেই ভোটের পক্ষে সিদ্ধান্ত নেয়। সরকারকে সেকথা জানানোও হয়। কিন্তু পত্রপাঠ সেই প্রস্তাব খারিজ করে শিক্ষাদফতর। এই ঘটনা,তাদের স্বাধিকারে হস্তক্ষেপ বলেই  মনে করছে বিশ্ববিদ্যালয়। সঠিক সময়ে নির্বাচনের দাবিতে আজ বিশ্ববিদ্যালয়ে মিছিল করে  ছাত্রছাত্রীরা। বৈঠকে করে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মসমিতিও। ছাত্রদের দাবিকে সমর্থন জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সংগঠন জুটা।