এন্টারটেনমেন্টে ফুল মার্কস

শোনা যাচ্ছিল, এ ছবির শুটিং-এর শেষ দিকগুলো নাকি জিত জলদি শুটিং শেষ করে বাড়ি ফিরতেই ব্যস্ত হয়ে উঠতেন। রাতে একরত্তি মেয়ে নবন্যা একটুখানি উঁ করে উঠলেই ন্যাপি বদলাতে ব্যস্ত হয়ে যেতেন। কাজেই এ ছবির সাকসেস

মন খারাপ হলে শ্রাবন্তীকে ফোন করি: জিত

চ্যাম্পিয়ন(২০০৩), ওয়ান্টেড(২০১০), জোশ(২০১০), ফাইটার(২০১১)। জিত-শ্রাবন্তী যখনই একসঙ্গে পর্দায় এসেছেন বক্সঅফিস পরিসংখ্যান বলেছে ছবি সুপার-হিট। সেই জুটিকে নিয়েই এবার রবি কিনাগির বাজি দিওয়ানা। ফাইটার