গানে, কবিতায়, রবীন্দ্র স্মরণ রাজ্যের

পঁচিশে বৈশাখে রবীন্দ্রনাথকে তাঁর জন্মদিনে শ্রদ্ধা জানাতে রবীন্দ্রসদন সংলগ্ন রাস্তায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে রাজ্যের তথ্য ও সংস্কৃতি দফতর। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রবি কিরণে

আজ পঁচিশে বৈশাখ। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিন। বাঙালির প্রাণের কবিকে শ্রদ্ধা জানাতে সকাল থেকেই মানুষের ঢল জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়িতে। তাঁরই রচিত গানে, কবিতায় তাঁকে স্মরণ করছেন আপামর বাঙালি। দিনের আলো ফুটতেই পাড়ায় পাড়ায় শুরু হয়েছে প্রভাতফেরি।  

বৈশাখের কুমোরটুলিতে ঠাকুর রবীন্দ্রনাথ

জোড়াসাঁকোর পাশেই কুমোরটুলি। বছরভর মৃত্‍-শিল্পীরা গড়েন প্রতিমা। তবে পঁচিশে বৈশাখের আগে কুমোরটুলি জুড়ে শুধুই থাকেন রবীন্দ্রনাথ। পঁচিশে বৈশাখের আগে রীতিমতো ব্যস্ত থাকতে হয় কুমোরটুলির প্রতিমাশিল্পীদের।

রবীন্দ্রনাথ `মাঝারি মানের নাট্যকার`: গিরিশ কারনাড

ভি এস নইপলের পর গিরিশ কারনাডের সমালোচনার মুখে এবার নাট্যকার রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। বেঙ্গালুরুতে আজিম প্রেমজি ক্যাম্পাসে সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে গিরিশ কারনাড বলেন, কবি হিসেবে অগ্রগণ্য হলেও রবীন্দ্রনাথ `মাঝারি মানের নাট্যকার`। তাঁর দর্শন, কবিতা ভারতের সমাজকে ঋদ্ধ করেছে। কিন্তু তাঁর নাটক সমকালে স্বীকৃত হয়নি। এমনকী, রবীন্দ্রনাথের নাটকের মঞ্চায়ন পারিবারিক পরিসরেই আবদ্ধ থেকেছে বলেও মন্তব্য করেন গিরিশ।