আজ মরশুমের শীতলতম দিন আজ মরশুমের শীতলতম দিন

মেঘ সরতেই শীতের জানান দিচ্ছে উত্তুরে হাওয়া। আজ মরশুমের শীতলতম দিন। আজকের তাপমাত্রা বারো পয়েন্ট ছয় ডিগ্রি সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। পচিশে ডিসেম্বরের আগে পর্যন্ত শীত না পড়ার অন্যতম কারণ ছিল মেঘ। বড়দিনের আকাশ পরিষ্কার হতেই ঠান্ডার কামড় বাড়তে শুরু করেছে। গত কয়েক দিনে বেশ কিছুটা নেমেছে তাপমাত্রা। অন্যান্য বছর পচিশে ডিসেম্বরের পর তাপমাত্রা বারোর আশপাশেই থাকে। এবার অনেক দেরিতে এসেও, সেই তাপমাত্রা ছুঁতে পেরেছে শীত। আকাশ মেঘমুক্ত থাকলে শীতের আমেজ থাকবে বলে খবর আবহাওয়া দফতর সূত্রে।সেক্ষেত্রে দেরিতে এলেও শীত উপভোগ করতে পারবেন বাংলার মানুষ।

দক্ষিণে নিম্নচাপ, উত্তরে আসতে সময় লাগবে কনকনে শীতের দক্ষিণে নিম্নচাপ, উত্তরে আসতে সময় লাগবে কনকনে শীতের

দক্ষিণ ভারতে নিম্নচাপের জেরেই এরাজ্য থমকে আছে শীত। আকাশ মেঘলা হওয়াতেই কমছে না তাপমাত্রা। জানাল আলিপুর আবহাওয়া দফতর। গত কয়েক দিন ধরেই দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে তৈরি হয়েছে গভীর নিম্নচাপ। যার জেরে তামিলনাড়ু জুড়ে ভারী বৃষ্টি হওয়া বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। গোটা তামিলনাড়ূই এখন হাঁটু জলের তলায়। সেই নিম্নচাপের পরোক্ষ প্রভাবেই এরাজ্যেও আকাশ মেঘলা। ঘন কোয়াশায় আচ্ছন্ন থাকবে শহর থেকে গ্রাম। ঠাণ্ডার অনুভূতি থাকলেও এখনই হার কাঁপুনি আমেজ আসছে না বাংলায়। আগামী ৪৮ ঘণ্টা এই পরিস্থিতি থাকবে বলে আলিপুর আবহাওয়া দফতরের তরফে জানানো হয়েছে।