মহেন্দ্র সিং ধোনির পর এবার রিয়েল এস্টেট বিতর্কে সচিন তেন্ডুলকর!

মহেন্দ্র সিং ধোনির পর এবার রিয়েল এস্টেট বিতর্কে সচিন তেন্ডুলকর!

মহেন্দ্র সিং ধোনির পর এবার রিয়েল এস্টেট বিতর্কে সচিন তেন্ডুলকর। ধোনি এই বিতর্কে ওই কোম্পানির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর পদ ছেড়েছিলেন। কিন্তু সচিন পড়তে হল অন্য বিড়ম্বনায়। রিয়েল এস্টেটের ধোকাবাজিতে ঠকে সচিন তেন্ডুলকরের বান্দ্রার বাড়ির সামনে অনশনে বসার হুমকি দিলেন পুণের একটি ল্যাবের টেকনিসিয়ান সন্দীপ খুরহাদে। তার আশা সচিনের কাছ থেকে তিনি ন্যায়বিচার পাবেন। সন্দীপের আদর্শ ক্রিকেটার সচিন তেন্ডুলকর ছিলেন ওই রিয়েল এস্টেটের প্রাক্তন ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর। পুণের এই টেকনিসিয়ানের অভিযোগ বুদ্রুকে তাদের কাছ থেকে জমি নিয়েছিল অমিত এন্টারপ্রাইজ নামে রিয়েল এস্টেট কোম্পানি। সেই জমির দাম ছিল দু কোটি টাকা। অথচ সন্দীপের পরিবার পেয়েছে মাত্র কুড়ি লক্ষ টাকা। তাই সচিনের বাড়ির সামনে তিনি অনশনে বসেছেন। সন্দীপের আশা সচিন সবসময় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। এবারও অন্যথা হবে না। তিনি সঠিক বিচার পাবেন।

 লর্ডসের পর ভাইজাগ, ফের সচিনকে প্রণাম যুবরাজের! লর্ডসের পর ভাইজাগ, ফের সচিনকে প্রণাম যুবরাজের!

লর্ডসের পর ভাইজাগ। ফের সচিনকে প্রণাম যুবরাজের। আসলে গুরুকে দেখলে কি আর ঠিক থাকতে পারে ভক্ত। রবিবার সেটাই দেখা গেল ভাইজাগে। আইপিএলের ম্যাচের সময় ভারতীয় ক্রিকেটের মহীরুহ সচিন তেন্ডুলকরকে কাছে পেয়ে সটান প্রণাম ঠুকলেন যুবরাজ সিং। দুবছর আগে লর্ডসের দ্বিশতবর্ষ পূর্তি উপলক্ষে এক প্রদর্শনী ম্যাচেও দেখা গিয়েছিল একই দৃশ্য। একশো বত্রিশ রান করে সচিনের বলেই আউট হন যুবরাজ। প্যাভিলিয়নে ফেরার সময় মাঠের মধ্যেই সচিনকে প্রণাম করে সম্মান জানিয়েছিলেন যুবরাজ।

 বিরাট নয়, রোহিত শর্মাকেই এগিয়ে রাখলেন সৌরভ বিরাট নয়, রোহিত শর্মাকেই এগিয়ে রাখলেন সৌরভ

সচিন তেন্ডুলকরের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে করা রানের পাহাড় টপকাতে পারবেন কি বিরাট কোহলি? পারবেন কি সচিনের একশোটি শতরানের রেকর্ড ভাঙতে? তার উত্তর এখনই কেউ দিতে পারছেন না। কিন্তু আইপিএলে গড়া মাস্টার ব্লাস্টারের রেকর্ড এবারই ভেঙে দিতে চলেছেন বিরাট কোহলি। সচিন দুবার আইপিএলে পাঁচশো বা তার বেশি রান করেছিলেন। কোহলিও দুবার পাঁচশো বা তার বেশি রান করে সেই নজির স্পর্শ করে ফেলেছেন। এবার তার সামনে সচিন তেন্ডুলকরের রেকর্ড ভেঙে দেওয়ার হাতছানি।

'সচিন-একশো কোটির স্বপ্ন', দেখুন সচিনের বায়োপিকের টিজার 'সচিন-একশো কোটির স্বপ্ন', দেখুন সচিনের বায়োপিকের টিজার

৫৫ দিনের ট্রেনিংয়ে একটা জামা আর একটাই প্যান্ট, এটাই সচিনের স্ট্রাগল, এটাই বিশ্বের ক্রিকেট ঈশ্বর তেন্ডুলকরের স্টোরি।

ডিজাইনার আউটফিটে সচিন তেণ্ডুলকারের সঙ্গে ক্রিকেট খেলেন কেট! ডিজাইনার আউটফিটে সচিন তেণ্ডুলকারের সঙ্গে ক্রিকেট খেলেন কেট!

প্রথমবার ভারতে সফরে উইলিয়াম-কেট। সাতদিনের সফরে আজ দুপুরেই মুম্বই পৌছছেন প্রিন্স উইলিয়াম ও কেট মিডলটন। ছাব্বিশ এগারোর জঙ্গি হামলায় নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান রাজ দম্পতি। ঘুরে দেখেন তাজ হোটেল। কথা বলেন হামলার সময় দায়িত্বে থাকা হোটেল স্টাফদের সঙ্গে। সেখান থেকে সোজা ওভাল গ্রাউন্ডে চলে যান উইলিয়াম-কেট।  ডিজাইনার অনিতা ডোংরের ডিজাইনার আউটফিটে সচিন তেণ্ডুলকারের সঙ্গে ক্রিকেট খেলেন কেট।  দিল্লি থেকে আগ্রা যাবেন রাজ দম্পতি। ঘুরে দেখবেন তাজমহল। এছাড়া অসমে কাজিরাঙ্গা অভয়ারণ্যও ঘুরে দেখবেন উইলিয়াম-কেট।  

জানেন কি সচিন তেন্ডুলকরের এখন স্বপ্ন কী? জানেন কি সচিন তেন্ডুলকরের এখন স্বপ্ন কী?

সচিন তেন্ডুলকরের জীবনের স্বপ্ন কি জানেন? না, এখন আর তিনি ক্রিকেট মাঠে খেলেন না। ধারাভাষ্যও সেই অর্থে দেন না। তাহলে সচিনের জীবনের স্বপ্ন কী হতে পারে? মাস্টার ব্লাস্টার নিজের স্বপ্নের কথা নিজেই খোলসা করে দিয়েছেন।

 বিকেল ৫ টায় দমদম বিমানবন্দরে নামবেন অমিতাভ, সচিন, আম্বানিরা বিকেল ৫ টায় দমদম বিমানবন্দরে নামবেন অমিতাভ, সচিন, আম্বানিরা

আর মাত্র কয়েক মিনিটের অপেক্ষা। বৃষ্টি হোক অথবা না হোক। ঝড় উঠুক অথবা না উঠুক, আজ ইডেনে ভরা বসন্ত। কারণ, ভারত-পাকিস্তান দু দলের ক্রিকেটাররা ছাড়াও চাঁদের হাট বসতে চলেছে ইডেনে। কে থাকবেন না সেখানে! একঝাঁক তারকা।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগেই ধোনি পেলেন সচিন তেন্ডুলকরের সমর্থন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগেই ধোনি পেলেন সচিন তেন্ডুলকরের সমর্থন

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের অভিযান শুরু করার আগেই ভারত অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি পেয়ে গেলেন সচিন তেন্ডুলকরের সমর্থন। বেশ কিছুদিন ধরে ধোনির ব্যাটিং ফর্ম নিয়ে সমালোচনা চলছে। এক সময়ে ধোনিকে বিশ্বের সেরা ম্যাচ ফিনিশার মনে করতেন সকলে। কিন্তু এই মূহুর্তে তাকে টিম ইন্ডিয়ার ম্যাচ ফিনিশার বলে মানতেই রাজি নন অনেকে। যাবতীয় সমালোচনায় জল ঢেলে অবশ্য ধোনির পাশেই দাঁড়ালেন মাস্টার ব্লাস্টার। সচিন বলেছেন ক্রিকেট কেরিয়ারের সবসময় একজন ব্যাটসম্যান নিজের সেরা ফর্ম ধরে রাখতে পারেন না। কারন কেউ যন্ত্র নয়। সচিন বলেন ধোনি যখন স্ট্রোক নেন তখন তার ব্যাট থেকে একটা আলাদা শব্দ শুনতেই তিনি অভ্যস্ত। পাশাপাশি ধোনি সবধরনের চাপ নেওয়ার ক্ষমতা রাখেন। কিন্তু মাহির মুখ দেখে কেউ টের পাবেন না যে তিনি কতটা টেনশনে আছেন। সচিন বলেন এই দুটি বিষয়ই ক্রিকেটের ভিড়ে আলাদা করে আলাদাভাবে চিনিয়ে দেয় মাহিকে।

সচিনকে দেখে ব্যাক লিফট বদলে ফেলেছিলেন সেওয়াগ! সচিনকে দেখে ব্যাক লিফট বদলে ফেলেছিলেন সেওয়াগ!

নিজের ব্যাটিংয়ের উন্নতির জন্য কেরিয়ারের শুরুর দিকে সচিন তেন্ডুলকরকে দেখে ব্যাটিং স্টাইলে পরিবর্তন এনেছিলেন বীরেন্দ্র সেওয়াগ। সদ্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন। এখন বয়স ৩৭। কিন্তু ক্রিকেট নিয়ে কথা তো তাঁকে বলতেই হয়। সেই ব্যাপারেই কথা বলতে গিয়ে বীরু বলেছেন, 'আমি যখন বেড়ে উঠছিলাম, সেই সময় অনেক ১০-১২ ওভারের ম্যাচ খেলতাম। মিডল অর্ডারে ব্যাট করতে হতো আমাকে। খেলার জন্য বড়জোর ১০টা বলই পেতাম। তাতেই যত বেশি রানের চেষ্টা করতে হতো। সুতরাং, মারকুটে ব্যাটিং করাটা আমি রপ্ত করে ফেলেছিলাম ছোট থেকেই। কিন্তু আমি যখন ভারতীয় দলে সূযোগ পেলাম, তখন আমার আদর্শ সচিন তেন্ডুলকরকে দেখে ব্যাটিংয়ে সামান্য পরিবর্তন এনেছিলাম। ব্যাকলিফটটা একটু বদলে ফেলেছিলাম। তারপর থেকে নিজের কায়দাতেই ব্যাট করেছি।'

'নিরাপত্তারক্ষীরাই দেশের প্রকৃত নায়ক', শহিদদের সচিনের শ্রদ্ধা 'নিরাপত্তারক্ষীরাই দেশের প্রকৃত নায়ক', শহিদদের সচিনের শ্রদ্ধা

পাঠানকোটে শহিদ সেনাকর্মীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানালেন সচিন তেণ্ডুলকর। টুইটে মাস্টার ব্লাস্টার লিখেছেন, নিরাপত্তারক্ষীরাই দেশের প্রকৃত নায়ক। পাঠানকোট হামলায় নিজেদের সেই নায়কোচিত দৃঢ়তাই আরও একবার তুলে ধরলেন তাঁরা। এরকম অকুতোভয় সেনানীদের হারানো দুঃখজনক।  শহিদদের পরিবার ও স্বজনদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন সচিন।

 আজ যাঁর জন্মদিন, টেস্টে, একদিনের ক্রিকেটে এবং প্রথম শ্রেনীর ক্রিকেটেও তাঁর সর্বোচ্চ রান ১২৩! আজ যাঁর জন্মদিন, টেস্টে, একদিনের ক্রিকেটে এবং প্রথম শ্রেনীর ক্রিকেটেও তাঁর সর্বোচ্চ রান ১২৩!

আজ ২১ ডিসেম্বর। জন্মদিন অভিনেতা গোবিন্দা থেকে অভিনেত্রী তামান্নার। এছাড়াও আজ জন্মদিন আমাদের দেশের এক বিখ্যাত ক্রিকেটারেরও।

২০১৫ সালে যে ৫ দল চমকে দিল সবাইকে! ২০১৫ সালে যে ৫ দল চমকে দিল সবাইকে!

গোটা বছরটায় খেলার মাঠে এমন বেশ কিছু ঘটনা ঘটল, যেগুলো বড় খবর তো বটেই। যা প্রায় কেউই ভাবেননি, সেগুলোই দিব্যি হয়ে গিয়েছে। তবে, আমরা শুধু দলগত ঘটনাগুলোই আলোচনা করলাম এখানে।

  মমতার সঙ্গে ফোনে নেই শুধু নয়, সংসদেও গত ২০ মাসে হাজিরা ১ দিন! মমতার সঙ্গে ফোনে নেই শুধু নয়, সংসদেও গত ২০ মাসে হাজিরা ১ দিন!

মমতা বন্দোপাধ্যায় মাত্র কদিন আগেই 'দুঃখ' করে বলেছিলেন, তাঁর দলের সাংসদ মিঠুন চক্রবর্তীও নাকি তাঁকে ফোন করেন না, ফোন ধরেনও না। কিন্তু শুধু ফোন ধরাই নয়, সংসদে অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তীকে দেখাও যায় না! আজ এই বিষয়ে কথা উঠল সংসদেও। এবার আর মমতা বন্দোপাধ্যায়ের মতো দুঃখ করে কথাটা কেউ বলেননি। বরং, খানিকটা বিদ্রুপ করেই মিঠুন চক্রবর্তীর খোঁজ করা হয়েছে সংসদের আপার হাউসে। মিঠুন সংসদের অধিবেশন শুরু হলেই, ছুটি নিয়ে নেন।