খাদ্য নিরাপত্তা কর্মসূচি কার্যকর না করায় সুপ্রিম কোর্টের তোপের মুখে গুজরাট

খাদ্য নিরাপত্তা কর্মসূচি কার্যকর না করায় সুপ্রিম কোর্টের তোপের মুখে গুজরাট

খাদ্য নিরাপত্তা কর্মসূচি কার্যকর না করায় সুপ্রিম কোর্টের তোপের মুখে গুজরাট। ক্ষুব্ধ বিচারপতির প্রশ্ন, গুজরাট কি দেশের বাইরে? সেখান কেন খাদ্য নিরাপত্তা কর্মসূচি কার্যকর করছে না রাজ্য সরকার? তাঁর প্রশ্ন, এব্যাপারে সংসদই বা কি করছে? পাশাপাশি, খরাপীড়িত রাজ্যগুলি এনআরইজিএ, খাদ্য নিরাপত্তা কর্মসূচি ও মিড ডে মিল কর্মসূচি কতদূর কার্যকর করছে, সেবিষয়েও রিপোর্ট দেওয়ার জন্য কেন্দ্রকে  নির্দেশ দিয়েছে বিচারপতি মদন বি লোকুরের বেঞ্চ। দশ ফেব্রুয়ারির মধ্যে কেন্দ্রকে এবিষয়ে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে। উত্তর প্রদেশ, কর্নাটক, মধ্যপ্রদেশ, তেলেঙ্গানা, অন্ধ্রপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র, গুজরাট, ওড়িশা, ঝাড়খণ্ড, বিহার , হরিয়ানা ও ছত্তিসগড়ের বেশকিছু এলাকা ইতিমধ্যেই খরাপীড়িত। অথচ সেই সব এলাকার বাসিন্দাদের জন্য  কোনও ব্যবস্থাই নেয়নি সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকার, এই মর্মে সম্প্রতি একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হয় সুপ্রিম কোর্টে। সেই মামলার শুনানি প্রসঙ্গেই আজ গুজরাট সরকারের কড়া সমালোচনা করে সুপ্রিম কোর্ট।

আজ নির্ভয়া কাণ্ডে দোষী নাবালকের মুক্তি রদের আর্জির শুনানি আজ নির্ভয়া কাণ্ডে দোষী নাবালকের মুক্তি রদের আর্জির শুনানি

আজ সুপ্রিম কোর্টে নির্ভয়া কাণ্ডে দোষী নাবালকের মুক্তি রদের আর্জির শুনানি। গতকাল বিকেলে মুক্তি দেওয়া হয় দিল্লি গণধর্ষণের নাবালক অপরাধীকে। বিষয়টিকে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে লিভ পিটিশন দাখিল করে দিল্লি মহিলা কমিশন। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ না আসা পর্যন্ত মুক্তি স্থগিত রাখার দাবি জানিয়েছিল কমিশন। কিন্তু প্রত্যাশিত ভাবেই আইন মোতাবেক ছেড়ে দেওয়া হয় নাবালক অপরাধীকে। তারপর আজকের শুনানি স্রেফ প্রহসন বলে ক্ষোভ উগরে দিয়েছে নির্ভয়ার পরিবার। শেষবেলায় নাবালকের মুক্তি আটকাতে দিল্লি মহিলা কমিশন যে তত্‍পরতা দেখিয়েছে, তা লোক দেখানো বলে কটাক্ষ করেছেন নির্ভয়ার বাবা-মা।  

অ্যাসিড আক্রান্তদের দিতে হবে ক্ষতিপূরণ-পুনর্বাসন-বিনামূল্যে চিকিত্‍সা পরিষেবা : সুপ্রিম কোর্ট অ্যাসিড আক্রান্তদের দিতে হবে ক্ষতিপূরণ-পুনর্বাসন-বিনামূল্যে চিকিত্‍সা পরিষেবা : সুপ্রিম কোর্ট

অ্যাসিড হানায় আক্রান্তদের ক্ষতিপূরণ, পুনর্বাসন ও বিনামূল্যে চিকিত্‍সা পরিষেবা দিতে হবে। আজ এই মর্মে সমস্ত রাজ্য সরকার ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলের প্রশাসনকে নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। বিচারপতি এম ওয়াই ইকবাল এবং সি নাগাপ্পনের বেঞ্চ এই নির্দেশ দেয়। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ সত্ত্বেও বেশিরভাগ বেসরকারি হাসপাতাল অ্যাসিড হানায় আক্রান্ত মহিলাদের বিনামূল্যে চিকিত্‍সা পরিষেবা দিচ্ছে না। আবার সব সরকারি হাসপাতালেও ভাল রিকনস্ট্রাকশন সার্জারির পরিকাঠামো নেই। অ্যাসিড হানায় আক্রান্ত মহিলারা তাহলে কী করবেন? কোথায় যাবেন? এই সমস্যা নিয়ে সর্বোচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল বিহারের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা পরিবর্তন কেন্দ্র। তার প্রেক্ষিতেই আজ সমস্ত রাজ্য সরকারকে অ্যাসিড আক্রান্ত মহিলাদের বিনামূল্যে চিকিত্‍সা পরিষেবা ও আর্থিক ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।