পৃথিবীর সবথেকে ভয়ঙ্কর স্কুল যাত্রার ছবি দেখে শিউরে উঠছে গোটা দুনিয়া!

পৃথিবীর সবথেকে ভয়ঙ্কর স্কুল যাত্রার ছবি দেখে শিউরে উঠছে গোটা দুনিয়া!

আপনি স্কুলে যেতেন কীসে করে? হয়তো বাবার সঙ্গে সাইকেলে বা বাইকে। কিংবা মায়ের সঙ্গে রিক্সাতে। অথবা স্কুল বাসে কিংবা স্কুল ভ্যানে। বা আপনার স্কুল দূরে হলে হয়তো ট্রামে বা ট্রেনে চেপে। কিংবা হয়তো হেঁটে হেঁটেই স্কুলে যেতেন আপনি।

কবে খুলবে স্কুল? কবে শুরু হবে পড়াশোনা? কী করে শেষ হবে সিলেবাস? কবে খুলবে স্কুল? কবে শুরু হবে পড়াশোনা? কী করে শেষ হবে সিলেবাস?

ছুটি পড়েছিল এগারোই এপ্রিল। তারপরে বৃষ্টি নেমেছে, ভোট কেটেছে, গরমও খানিকটা কমেছে। কিন্তু  স্কুল খোলার কোনও নামগন্ধ নেই। দরজায় কড়া নাড়ছে আবার একটা সামার ভ্যাকেশনের ছুটি। সরকারি স্কুলগুলিতে শুধুই ছুটির মেজাজ। শিক্ষামন্ত্রীর ঘোষণায় ছুটির গেরোয় রাজ্যের সরকারি স্কুল।

গ্রিস-ম্যাসিডোনিয়া সীমান্তে স্কুল খুললেন চারজন শরণার্থী! গ্রিস-ম্যাসিডোনিয়া সীমান্তে স্কুল খুললেন চারজন শরণার্থী!

রাজনীতি তাঁদের দেশছাড়া করেছে। শরণার্থী শিবিরই এখন অস্থায়ী ঠিকানা। কোনও মতে খাওয়াটুকু জোটে। তবু ছোট ছোট ছেলেমেয়েরা পিছিয়ে পড়বে, এ কি চোখে দেখা যায়! গ্রিস-ম্যাসিডোনিয়া সীমান্তে তাই স্কুল খুললেন চারজন শরণার্থী। বিনা পয়সার স্কুলে ছাত্রও অনেক জুটে গিয়েছে।

ক্লাসের মাঝে হঠাত্‍ই শিক্ষিকার নগ্ন নাচ! ভিডিও করল ছাত্ররা! ক্লাসের মাঝে হঠাত্‍ই শিক্ষিকার নগ্ন নাচ! ভিডিও করল ছাত্ররা!

ইতালির একটি হাইস্কুলে ক্লাস নিচ্ছিলেন এক শিক্ষিকা। দিব্যি চলছিল সবকিছু। কিন্তু মুডি শিক্ষিকার কী যে এমন খেয়াল হল, যে তিনি নেমে এলেন ডায়াস থেকে। ছাত্রদের বেশ খানিকটা কাছাকাছি চলে এলেন। হালকা তালে নাচও শুরু করলেন। এই পর্যন্ত বেশ সব ঠিকঠাক চলছিল। এরপরই সব সীমা ছাড়িয়ে গেল।

সোমবার থেকেই স্কুলগুলিতে গরমের ছুটি দিচ্ছে বিদ্যালয় শিক্ষা দফতর! সোমবার থেকেই স্কুলগুলিতে গরমের ছুটি দিচ্ছে বিদ্যালয় শিক্ষা দফতর!

সবে এপ্রিলের ৯ তারিখ। এখন এপ্রিল বাসের ২১ দিন তো বটেই। সঙ্গে যোগ হবে মে মাস এবং জুন মাসের খানিকটা। কিন্তু এখন থেকেই হু হু করে বাড়ছে গরমের দাপট। তাই সোমবার থেকেই স্কুলগুলিতে গরমের ছুটি দিচ্ছে বিদ্যালয় শিক্ষা দফতর। ভোট প্রক্রিয়া চলাকালীন তৃণমূল ভবন থেকে ঘোষণা পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের। জানালেন, দফতরের প্রধান সচিব বিজ্ঞপ্তি পাঠাবেন জেলায় জেলায়।  ভোটের মুখে দলের অফিস থেকে এমন ঘোষণা কী আদৌ করতে পারেন শিক্ষা মন্ত্রী? উঠছে প্রশ্ন।

প্রকাশ্য দিবালোকে স্কুল ক্যাম্পাসে নগ্ন হয়ে ছাত্রীকে ধর্ষণ করছে শিক্ষক! প্রকাশ্য দিবালোকে স্কুল ক্যাম্পাসে নগ্ন হয়ে ছাত্রীকে ধর্ষণ করছে শিক্ষক!

এমন খবর দিতেও লজ্জা লাগছে। এমন ছবি দিতেও লজ্জা লাগছে। কিন্তু খবর, তাই দেওয়া। বুঝুন এ কোন পৃথিবী তৈরি করেছি আমরা। পড়ার পর বলবেন হয়তো, থ্যাঙ্ক গড, আমাদের দেশে অন্তত হয়নি। হয়েছে চিনে। হলই বা চিন। কিন্তু সেটাও তো আমাদের পৃথিবী। আমাদের সমাজ। এবার আসি ঘটনায়।

রাজ্যে বেড়েছে উচ্চশিক্ষার মান রাজ্যে বেড়েছে উচ্চশিক্ষার মান

পশ্চিমবঙ্গে যেমন স্কুল শিক্ষার অগ্রগতি ঘটেছে তেমনই বেড়েছে উচ্চশিক্ষার মানও। বেড়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা, তৈরি হয়েছে নতুন কলেজ। ২০০৭ থেকে ২০১১ সালে রাজ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা ছিল ১৩টি। বর্তমানে যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৮

স্কুল কর্তৃপক্ষের অমানবিক মুখ! পড়া বন্ধ হল মালদার ছাত্রীর স্কুল কর্তৃপক্ষের অমানবিক মুখ! পড়া বন্ধ হল মালদার ছাত্রীর

মাত্র ২৫১ টাকায় মিলছে অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল। BPL তালিকাভুক্ত  নাগরিকরাও  কিনে ফেলতে পারেন স্বল্পমূল্যের এই ফোন। পা রাখতে পারেন ফেসবুক, হোয়াটস্অ্যাপের বিশ্বব্যাপী যোগাযোগে। অথচ মাত্র ২৮০ টাকার জন্য এই দেশেই, এক স্কুলছাত্রীর বন্ধ হয়ে গেছে স্কুল যাওয়া। ২৮০ টাকা জোগাড় হয়নি বলে স্কুলে ভর্তি হওয়া হয়নি মালদার এক স্কুলছাত্রীর। টাকা ছাড়া ভর্তি করা হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে রাইট টু এডুকেশনের দেশ ভারতের একটি সরকারি স্কুল।

 ক্লাস সেভেনের ছাত্রীকে মোটরবাইকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ ঘাটালে ক্লাস সেভেনের ছাত্রীকে মোটরবাইকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ ঘাটালে

ক্লাস সেভেনের ছাত্রীকে মোটরবাইকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটালে। নির্যাতিতা ছাত্রী ঘাটাল মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি। দোষীদের শাস্তির দাবিতে  পথ  অবরোধ করেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

 উচ্চমাধ্যমিকের প্রথম দিনের পরীক্ষাতেই বিভ্রাট উচ্চমাধ্যমিকের প্রথম দিনের পরীক্ষাতেই বিভ্রাট

উচ্চমাধ্যমিকের প্রথম দিনের পরীক্ষাতেই বিভ্রাট। অভিযোগ, এদিন গার্ডেনরিচের নুট বিহারী গার্লস স্কুলে রেগুলার পরীক্ষার্থীদের দেওয়া হয় সিসি পরীক্ষার প্রশ্ন। আর নুট বিহারী বয়েজ স্কুলে সিসি পরীক্ষার্থীদের দেওয়া হয় রেগুলার পরীক্ষার প্রশ্ন। সিসি পরীক্ষার প্রশ্ন একশ নম্বরের।

১৮২০৩ শূন্যপদে সহকারি শিক্ষক নিয়োগ করা হবে ১৮২০৩ শূন্যপদে সহকারি শিক্ষক নিয়োগ করা হবে

পশ্চিমবঙ্গ স্কুল সার্ভিস কমিশন ১৮২০৩ পদে সহকারি শিক্ষক নিয়োগ করবে। খুব শিগগিরিই বিজ্ঞপ্তি দিয়ে পরীক্ষার দিনক্ষণ ঘোষণা করে দেওয়া হবে। মোট শূন্যপদের মধ্যে ১৫৯৪৭ টি জায়গা রয়েছে স্নাতকস্তরের জন্য। ১০১৯টি শূন্যপদ রয়েছে ওয়ার্ক এডুকেশন এবং ফিজিক্যাল এডুকেশনের জন্য। এ ছাড়া ১২৩৭ টি শূন্যপদ রয়েছে অন্যান্য বিষয়ের জন্য।

লোপার্ড ঢুকল স্কুলে! পড়াশোনা না করে জখম করল সবাইকে! লোপার্ড ঢুকল স্কুলে! পড়াশোনা না করে জখম করল সবাইকে!

এই ভিডিওটি দেখলে আপনাকে চমকে উঠতেই হবে। আর নিশ্চয়ই উপরওয়ালাকে ধন্যবাদ দেবেন এই বলে যে, আপনি অন্তত ওই স্কুলের মধ্যে ছিলেন না! আসলে রবিবার বেঙ্গালুরুর ভিবজিওর স্কুলের চৌহদ্দিতে ঢুকে পড়ে একটি লোপার্ড। আর তারপর সে একের পর এক ভয়ানক কাণ্ড ঘটাতে থাকে। তবু ভালো যে, সে স্কুলে ঢোকার জন্য রবিবার অর্থাত্‍ ছুটির দিনটাকেই বেছে নিয়েছিল। তাই স্কুলে বাচ্চারা ছিল না। সেটাই রক্ষে। নাহেল যে কী হতো, সেটা ভেবেই শিউরে উঠছেন অনেকে।

পুলিস ফাঁড়িতেই চলছে কচিকাচাদের নিয়ে প্রাথমিক স্কুল! পুলিস ফাঁড়িতেই চলছে কচিকাচাদের নিয়ে প্রাথমিক স্কুল!

পুলিস ফাঁড়িতেই চলছে কচিকাচাদের নিয়ে প্রাথমিক স্কুল। ক্লাস নিচ্ছেন পুলিসকর্মীরাই। এই বিরল দৃশ্য দেখা গেছে শিলিগুড়ির প্রত্যন্ত গ্রাম মিলনপল্লীর পুলিস ফাঁড়িতে। এলাকায় কোনও স্কুল না থাকায় শিশুদের পড়াশোনার প্রাথমিক দায়িত্ব সামলাচ্ছেন  উর্দিধারীরাই। শিলিগুড়ি শহর থেকে ছত্রিশ কিলোমিটার দূরে তিস্তা নদীর ধারে প্রত্যন্ত গ্রাম মিলনপল্লী। পাশেই রয়েছে আরও তিনটি গ্রাম গাজলডোবা, দুধিয়া এবং চাকীমারী। তিনটি গ্রামে প্রায় দশ হাজার মানুষের বসবাস । গ্রামের দিন আনা দিন খাওয়া বেশিরভাগ মানুষের জীবিকা কৃষিকাজ।  গ্রামে ছিলনা কোনও স্কুল। শিশুদের ভবিষ্যত নিয়ে তেমন কেউ মাথাও ঘামাননি।  দুহাজার তেরো সালে মিলনপল্লী পুলিস ফাঁড়িতেই শুরু হয় নবদিশা পাঠ প্রাথমিক বিদ্যালয়। বাড়ি বাড়ি গিয়ে শিশুদের স্কুলে পাঠানোর আর্জি জানান পুলিসকর্মীরাই।

শ্রীরামপুরে মাধ্যমিক পরীক্ষা দিতে না পেরে  স্কুলেই ভাঙচুর চালাল পরীক্ষার্থীরা শ্রীরামপুরে মাধ্যমিক পরীক্ষা দিতে না পেরে স্কুলেই ভাঙচুর চালাল পরীক্ষার্থীরা

হুগলির শ্রীরামপুরে মাধ্যমিক পরীক্ষা দিতে না পেরে  স্কুলেই ভাঙচুর চালাল পরীক্ষার্থীরা। হাত মেলালেন অভিভাবকরাও। তবে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে প্রাণে বেঁচেছেন স্কুলের মালিক তথা প্রধানশিক্ষক। সব কিছু মিটে যাওয়ার পর ঘটনাস্থলে পৌছয় পুলিস। অ্যাডমিট কার্ড দিতে পারেনি কর্তৃপক্ষ।  মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসতেই পারলনা বেসরকারি হিন্দি স্কুল শ্রীরামপুর বিদ্যাপীঠের তেইশ জন পরীক্ষার্থী। অ্যাডমিট কার্ড পেতে পরীক্ষার্থীরা স্থানীয় কাউন্সিলর থেকে মুখ্যমন্ত্রী, এমনকি বিজেপি রাজ্য নেতৃত্ব, সবার কাছেই দরবার করেছে। রবিবার গভীর রাত পর্যন্ত চলেছে চেষ্টা। কিন্তু সোমবারও মেলেনি অ্যডমিট কার্ড। তাই যখন অন্যরা  মাধ্যমিক পরীক্ষা দিতে রওনা হয়েছে তখন শ্রীরামপুর বিদ্যাপিঠের তেইশ জন পরীক্ষার্থী  ভাঙচুর চালিয়েছে স্কুলে গিয়ে।

 অশিক্ষা-অপুষ্টির অন্ধকারে ঘেরা তবু পড়তে চায় বাড়ুই কোটাল অশিক্ষা-অপুষ্টির অন্ধকারে ঘেরা তবু পড়তে চায় বাড়ুই কোটাল

শিক্ষার পরিবেশ নেই। গোটা এলাকা অশিক্ষা-অপুষ্টির অন্ধকারে ঘেরা। তবু হার মানতে জানে না বাড়ুই কোটাল। তাঁর লড়াই, পড়ার জন্য। জেদ, পড়াশোনা চালিয়ে যাওয়ার। এবছর মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসছে, চাকদার কুড়ি নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা এই কিশোরী। নদিয়ার চাকদার পালপাড়া ভবানীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী বাড়ুই কোটাল। জীবন যে কত কঠিন, কত শক্ত এ কথা বুঝতে বেশি সময় লাগেনি এই কিশোরীর। তবু দমে যেতে নারাজ সে। দু চোখে স্বপ্ন, নিজের পায়ে দাঁড়ানোর। ইচ্ছে, পুলিস হওয়ার। সেই লক্ষ্য নিয়েই এগিয়ে চলেছে বাড়ুই।  

নিজেদের উত্‍পাদিত সৌর বিদ্যুত্‍ বিক্রি করে, বকেয়া ইলেকট্রিক বিল মেটাচ্ছে স্কুল! নিজেদের উত্‍পাদিত সৌর বিদ্যুত্‍ বিক্রি করে, বকেয়া ইলেকট্রিক বিল মেটাচ্ছে স্কুল!

অন্যের মুখের দিকে তাকিয়ে থাকা নয়। সাহায্যের জন্য অপেক্ষাও নয়। নিজেদের উত্‍পাদিত সৌর বিদ্যুত্‍ বিক্রি করে, বকেয়া ইলেকট্রিক বিল মেটাতে চলেছে স্কুল। অনন্য নজির বাঁকুড়ার শুশনিয়া গ্রামের একটি স্কুলের। শিক্ষা, স্বনির্ভরতার। প্রতিটি ক্লাস রুমে লাইট, ফ্যান তো আছেই। হস্টেলও মর্ডান। সব রুমে ব্যবস্থা, স্পেশাল লাইটের। কে বলবে এ স্কুল,  কোনও গ্রামের! শুশনিয়া পাহাড়ের কোলে পণ্ডিত রঘুনাথ মুরমু আবাসিক স্কুল। পড়ুয়ার সংখ্যা প্রায় ছশো। যাদের মধ্যে সাড়ে চারশো জনই আবাসিক। সব ব্যবস্থা টপ ক্লাস করতে গিয়ে, কারেন্টের খরচ বরাবরই বেশি। প্রতিমাসে স্কুল ও হস্টেল মিলিয়ে বিল দাঁড়ায় পয়ত্রিশ থেকে চল্লিশ হাজার। জমতে জমতে বকেয়া পৌছেছে সাত লক্ষ টাকায়।