ফেলিক্সের সাহস লাফ হার মানাল বাস্তবকেও

শুরুতে ব্যাপারটা ছিল অনেকটা `মিশন ইমপসিবল`-এর মতো। তবে সেই ইম্পসিবলকে -পসিবল করে ইতিহাস গড়লেন অস্ট্রিয়ার স্কাই-ডাইভার ফেলিক্স বাউমগার্টনার। স্ট্র্যাটোস্ফিয়ার থেকে ঝাঁপ দিয়ে ভূপৃষ্ঠের মাটি ছোঁয়া পর্যন্ত বাউমগার্টনারের সফল অবতরণের সাক্ষী রইল তামাম দুনিয়া। ভেঙে গেল স্কাই-ডাইভিংয়ের যাবতীয় রেকর্ড। তাঁর ফ্রি ফল-এর গতি হার মানিয়েছে শব্দের গতিকেও। দু-দুবার রেকর্ড গড়ার পথ থেকে ফিরে আসতে হয়েছিল। খারাপ আবহাওয়ার কারণে। তবে তৃতীয়বারে সাফল্যের দরজা খুলে দিলেন অসমসাহসী ফেলিক্স বাউমগার্টনার। ভূপৃষ্ঠের প্রায় উনচল্লিশ কিলোমিটার উচ্চতা থেকে লাফ দিয়ে দশ মিনিটের মধ্যেই পৌঁছে গেলেন মাটিতে। গড়লেন বিশ্বরেকর্ড।       

আজই হয়ত বিশ্বরেকর্ড ফেলিক্সের

আজই হয়ত হতে পারে নতুন রেকর্ড। সব কিছু ঠিক থাকলে আজই বায়ুমণ্ডলের স্ট্র্যাটোস্ফিয়ার থেকে ঝাঁপ দেবেন অস্ট্রিয়ার স্কাই ডাইভার ফেলিক্স বাউমগার্টনার। সফল হলে ভেঙে ফেলবেন এপর্যন্ত বায়ুমণ্ডলের সর্বোচ্চ উচ্চতা থেকে ঝাঁপ দেওয়ার রেকর্ড। যা এতদিন ছিল জোসেফ কিটিঙ্গারের দখলে। সালটা ১৯৫৯। ১৬ ই নভেম্বর। সেদিন বেলুনে করে আকাশে গিয়ে সর্বোচ্চ উচ্চতা ৭৬,৪০০ ফুট থেকে ঝাঁপ দিয়েছিলেন মার্কিন সেনাবাহিনীর প্রাক্তন বিমান চালক জোসেফ কিটিঞ্জার। কিন্তু নীচে নামার সঙ্গে সঙ্গেই জ্ঞান হারান তিনি।

আবহাওয়া খারাপ, তাই সাহস ঝাঁপ আপাতত বাতিল

ঝোড়ো হাওয়ার কারণে স্ট্র্যাটোস্ফিয়ার থেকে ঝাঁপ দেওয়ার পরিকল্পনা বাতিল করলেন অস্ট্রিয়ার স্কাই-ডাইভার ফেলিক্স বমগার্টনার। বুধবার ভূপৃষ্ঠের ২৩ মাইল উপরে বায়ুমণ্ডলের স্ট্র্যাটোস্ফিয়ার থেকে ঝাঁপ দেওয়ার পরিকল্পনা ছিল তাঁর। ঠিক ছিল একটি বিশালাকায় হিলিয়াম বেলুনে চড়ে স্ট্র্যাটোস্ফিয়ারে যাবেন তিনি।

স্ট্র্যাটোস্ফিয়ার থেকে ঝাঁপ দিতে চলেছেন `ফিয়ারলেস` ফেলিক্স

`স্কাই ইজ দ্য লিমিট।` প্রচলিত এই শব্দবন্ধটিকে আক্ষরিক অর্থেই সত্যি বলে প্রমাণ করতে আজ স্ট্র্যাটোস্ফিয়ার থেকে ঝাঁপ দেবেন অস্ট্রিয়ার ফেলিক্স বমগার্টনার। ভূপৃষ্টের ৩৭ কিলোমিটার ওপর থেকে লাফিয়ে পড়ার সময় তাঁর গতি ছাপিয়ে যাবে শব্দের গতিকেও। বিশ্বরেকর্ড গড়ার লক্ষ্যে ফিয়ারলেস ফেলিক্সের এই আকাশ-ঝাঁপ সরাসরি সম্প্রচারিত হবে ইন্টারনেটে।