টাইটানিকে ডুবেছেন, অস্কার জিতেছেন, এবার ক্যাপ্রিও হাতির মুখে! টাইটানিকে ডুবেছেন, অস্কার জিতেছেন, এবার ক্যাপ্রিও হাতির মুখে!

'দ্য রেভেন্যান্ট'-র সেই দৃশ্যটার কথা মনে আছে? যেখানে একটা ভয়ঙ্কর গ্রিজলি ভাল্লুক লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিওকে আক্রমণ করেছিল? আর সেই আক্রমণের ফলে লিওর সারা শরীর ছিন্ন ভিন্ন হয়ে গিয়েছিল। ওরকম একটা গা শিউরে ওঠা দৃশ্যে অসম্ভব ভালো অভিনয় করার জন্য অস্কারও পেলেন তিনি। ভাল্লুকের সঙ্গে তো লড়াই করে বেঁচে গেলেন তিনি। কিন্তু এবার? এবার তিনি মুখোমুখি হতে চলেছেন হাতির। তাও পর্দায় নয়, বাস্তবে। আর হাতি একবার যদি ক্ষেপে যায়, তাহলে যে সে কতটা মারাত্মক হতে পারে, তার খবর তো রোজই খবরের কাগজে পড়ছেন। আলাদা করে বলে দেওয়ার প্রয়োজন নেই। সেই ভয়ানক হাতির সঙ্গে লড়াইয়ে এবার বেঁচে ফিরতে পারবেন তো লিও?

 বাঁকুড়ার শুশুনিয়া পাহাড় সংলগ্ন এলাকায় ঢুকে পড়ল ২২ টি হাতি বাঁকুড়ার শুশুনিয়া পাহাড় সংলগ্ন এলাকায় ঢুকে পড়ল ২২ টি হাতি

ভরা পর্যটন মরসুমে বাঁকুড়ার শুশুনিয়া পাহাড় সংলগ্ন এলাকায় ঢুকে পড়ল বাইশটি হাতি। কিন্তু হাতির দলকে তাড়াতে বনকর্মীদের কাছে নেই প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম। দিনভর হাতির গতিবিধির ওপর নজর রাখা ছাড়া কোনও ভূমিকা ছিল না বনকর্মীদের। হাতির দলের তাণ্ডবে আতঙ্কিত এলাকার মানুষ। বাঁকুড়াসহ দক্ষিণবঙ্গের পর্যটনকেন্দ্রগুলির অন্যতম শুশুনিয়া পাহাড়। ভরা মরসুমে প্রতিদিনই হাজার হাজার পর্যটক ভিড় জমাচ্ছেন এখানে। আর এই খুশির আমেজ বদলে গেল রবিবার রাতে। বনদফতর সূত্রে খবর, গঙ্গাজল ঘাটির জঙ্গল থেকে বেরিয়ে শুশুনিয়া পাহাড় সংলগ্ন শুশুনিয়া, চাঁদরা, শিউলিবনা, নতুন গ্রাম এলাকায় অবস্থান করছে বাইশটি হাতি। রাতভর তাণ্ডবের পর এলাকাবাসীর তাড়া খেয়ে সোমবার সকালে হাতির দলটি ফিরে যায় নতুন গ্রাম সংলগ্ন শাল বাগানে। দিনভর সেখানেই ছিল হাতিগুলি। সন্ধে নামতেই ফের শুশুনিয়া পাহাড়ের উদ্দেশে রওনা হতে পারে হাতির দলটি।