হুইল চেয়ারে বসে আত্মসমর্পন কাজির

১৯৯৩ এর মুম্বই বিস্ফোরণ মামলায় নাটকীয় মোড়। অবশেষে আত্মসমর্পন করলেন অন্যতম অভিযুক্ত প্রধান জাবিউন্নিসা কাজি। গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হওয়ার তিন দিন পর হুইল চেয়ারে বসে আত্মসমর্পন করলেন তিনি।

৯৩ মুম্বই বিস্ফোরণ: আত্মসমর্পণ করলেন না জাবিউন্নিসা কাজি

নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আত্মসর্পন করতে ব্যার্থ হলেন `৯৩-র মুম্বই বিস্ফোরণের অন্যতম অভিযুক্ত জাবিউন্নিসা কাজি। শুক্রবারই কাজির বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ওয়ারেন্ট জারি করে টাডা আদালত। আজ পর্যন্ত তাঁকে

সঞ্জয়ের জন্য আমি রাজ্যপালের কাছে যাব, পাশে থাকার আশ্বাস জয়ার

১৯৯৩, ১২ মার্চ। মুম্বাই। ধারাবাহিক বিস্ফোরণের ২০ বছর পর অস্ত্র আইনে বলিউড অভিনেতা সঞ্জয় দত্তকে ফের জেলে পাঠানোর রায় দিয়েছে দেশের শীর্ষ আদালত। সঞ্জু বাবার পাঁচ বছরের হাজত বাসের সাজা লাঘব করতে তাঁর

তথ্য বদালোয় বিভ্রান্তি ছড়াল ২১ জুলাইয়ের কমিশনে

চরম বিভ্রান্তি তৈরি হল ১৯৯৩ সালের ২১ জুলাইয়ের গুলি চালনার ঘটনায়। সেই সময়ের পুলিস কমিশনার এবং আরেক ডিসি-র দেওয়া বয়ানের পুরো উল্টো তথ্যই দিলেন আরেক ডিসি। মঙ্গলবার ওই ঘটনার তদন্তে গঠিত কমিশনে সাক্ষ্য

একুশে জুলাইয়ের ভিডিও পেশ হবে কমিশনে

একুশে জুলাই কমিশনে ফের চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ্যে এল। ঘটনার দিন, অর্থাত্‍ ১৯৯৩ সালের ২১ জুলাই যুব কংগ্রেস কর্মীদের বিক্ষোভের ভিডিও ফটোগ্রাফি করেছিল কলকাতা পুলিস। সেই ভিডিওটি তত্‍কালীন পুলিস কমিশনারের