ঘরছাড়াদের ঘরে ফেরানোর উদ্যোগে বাধা দেওয়া যাবে না, দলীয় কর্মীদের স্পষ্ট জানালেন মুকুল

ঘরছাড়াদের ঘরে ফেরানোর উদ্যোগে কোনওভাবেই বাধা দেওয়া যাবে না। জেলার বেশ কয়েকজন সভাপতির সঙ্গে বৈঠকে কার্যত এমনটাই জানিয়ে দিলেন মুকুল রায়। একইসঙ্গে তাঁর দাবি, সিন্ডিকেটের এই গণ্ডগোলের সঙ্গে তাঁর দলের কোনও নেতা কর্মীরা যুক্ত নন। তবে তাঁর দাবির সঙ্গে বাস্তব চিত্রের অমিল কতটা তা ভালো করেই জানেন দলের নেতারা। মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে বামেদের প্রধান দাবি ছিল, ঘরছাড়াদের ফেরানোর দায়িত্ব নিক প্রশাসন। বামেদের দাবি, এখনও কয়েক হাজার ঘরছাড়া ঘরে ফিরতে পারেননি। শেষপর্যন্ত বিরোধীদের চাপে ঘরছাড়াদের ঘরে ফেরানোর প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে। বুধবার বিধানসভায় অনুব্রত মণ্ডল, জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, তপন দাশগুপ্ত সহ বেশ কয়েকজন জেলা সভাপতিকে ডেকে সেকথা জানিয়েও দিয়েছেন মুকুল রায়। একইসঙ্গে তাঁর নির্দেশ, প্রশাসনিক এই উদ্যোগকে সাহায্য করতে হবে সব জেলার নেতাদের।

রাজ্যে চতুর্থ দফার ভোটে রিগিং ও সন্ত্রাসের অভিযোগ, ভি সম্পতকে চিঠি অধীরের, মুখ্য নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে দেখা বাম প্রতিনিধিদের

রাজ্যে চতুর্থ দফার ভোটেও ব্যাপক রিগিং ও সন্ত্রাসের অভিযোগ করল কংগ্রেস। বুধবার রাতে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরী বলেন, ``চতুর্থ দফার ভোটেও বিভিন্ন জায়গায় ব্যাপক রিগিং ও সন্ত্রাস হয়েছে। সবচেয়ে বেশি সন্ত্রাস ও রিগিং হয়েছে আসানসোলে। এই দফাতেও দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ নির্বাচন কমিশন। এবারও সঠিক ভূমিকা পালন করতে পারেননি কমিশনের বিশেষ পর্যবেক্ষক সুধীরকুমার রাকেশ। আসানসোলে পুনর্নির্বাচনের দাবি জানাচ্ছি। সন্ত্রাস ও রিগিংয়ের অভিযোগ জানিয়ে মুখ্য নির্বাচন কমিশনার ভি এস সম্পতকে চিঠি দিচ্ছি। ``

কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বঞ্চনার অভিযোগ থেকে নির্বাচন কমিশনকে আক্রমণ, বিবিধ ইস্যুতে মুখ্যমন্ত্রীর সমালোচনায় অধীর

কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বঞ্চনার অভিযোগ থেকে নির্বাচন কমিশনকে আক্রমণ। বিভিন্ন ইস্যুতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কড়া সমালোচনা করলেন অধীর চৌধুরী। মুখ্যমন্ত্রী নিজের ভাইপোকে লোকসভা ভোটের টিকিট দিলেও মুকুল রায়ের ছেলেকে কেন দিলেন না? এই প্রশ্ন তুলে কৌশলে তৃণমূলের অন্তর্দ্বন্দ্বকেও উস্কে দিয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি। চলতি সপ্তাহেই উত্তরবঙ্গে প্রচারে আসছেন সোনিয়া গান্ধী ও রাহুল গান্ধী। প্রেস ক্লাবে মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠান। নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে মুখ খোলায় মুখ্যমন্ত্রীকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন অধীর চৌধুরী।