ক্রিকেট থেকে আজীবন নির্বাসিত সেই চান্ডিলা

ক্রিকেট থেকে আজীবন নির্বাসিত সেই চান্ডিলা

স্পট ফিক্সিংয়ের অভিযোগে ক্রিকেট থেকে আজীবন নির্বাসিত হলেন অজিত চান্ডিলা। পাঁচবছরের জন্য নির্বাসিত করা হয়েছে অপর অভিযুক্ত ক্রহিকেটার হিকেন শা। সোমবার বিসিসিআইয়ের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি অজিত চান্ডিলাদের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠকে বসেছিল মুম্বইয়ের ক্রিকেট সেন্টারে। আচরণবিধি ভঙ্গ ও দুর্নীতির অভিযোগে চান্ডিলাকে আজীবন নির্বাসিত করা হয়। আর দুর্নীতি দমন শাখার নিয়ম ভঙ্গের জন্য হিকেন শাকে পাঁচবছরের জন্য নির্বাসিত করার সিদ্ধান্ত হয়।

শর্তাধীন জামিনে মুক্ত গুরুনাথ ও বিন্দু

আইপিএলে স্পটফিক্সিং কাণ্ডে অভিযুক্ত প্রাক্তন বোর্ড সভাপতি শ্রীনিবাসনের জামাই গুরুনাথ মেয়াপ্পন ও তাঁর সঙ্গী অনামী অভিনেতা বিন্দু দারা সিং অবশেষে আজ শর্তাধীন জামিন পেলেন। মুম্বইয়ের একটি আদালতে ২৫ হাজার টাকার ব্যক্তিগত জামিনে মুক্তি পেলেন মেয়াপ্পান। তবে তদন্ত চলাকালীন এই দু`জনের কেউই দেশের বাইরে যেতে পারবে না বলে আদালতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সপ্তাহে দু`দিন গুরুনাথ ও বিন্দুকে তদন্তকারী অফিসারের কাছে গিয়ে হাজিরা দিতে হবে।

শ্রীসন্থদের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেবেন তাঁদেরই সতীর্থ

আইপিএল স্পট ফিক্সিং কাণ্ডে সরকার পক্ষের সাক্ষী হতে চলেছেন রাজস্থান রয়্যালসের পেসার সিদ্ধার্থ ত্রিবেদি। গড়াপেটা কেলেঙ্কারিতে ত্রিবেদির দলের দুই সদস্যের ঠিকানা আপাতত তিহাড় জেল। অপর অভিযুক্ত অঙ্কিত চহ্বান বিয়ের কারণে বিশেষ জামিনে আপাতত জেলের বাইরে।

ফিক্সিং কাণ্ড: ধৃত বুকির জবানবন্দীতে আরও ক্রিকেটারের নাম

যত দিন গড়াচ্ছে আইপিএল স্পট ফিক্সিং কাণ্ড নতুন নতুন মোড় নিচ্ছে। আইপিএল গড়াপেটা তদন্ত এখনও পর্যন্ত তা বোধহয় হার মানিয়ে দেবে বলিউডি সিনেমার মুচমুচে চিত্রনাট্যকেও। এক আইপিএলই হঠাৎ করে নড়িয়ে দিল ভারতীয় ক্রীড়া জগতের ভিত।

ইমেলে নিজেকে নির্দোষ দাবি শ্রীমান শ্রীসন্থের

পুলিস সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী দু`দিন আগেই জেরায় স্পট ফিক্সিংয়ে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে নিয়েছিলেন কেরালার পেসার শ্রীসন্থ। আজ রাতের মধ্যে ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে গেলেন তিনি। নিজেকে নির্দোষ দাবি করে শ্রীসন্থ জানালেন তিনি কোনও রকমের গড়াপেটার সঙ্গে জড়িত নন।

চান্ডিলার বাড়ি থেকে উদ্ধার ২০ লক্ষ টাকা

আইপিএল গড়াপেটা কেলেঙ্কারির টাকার লেনদেনের তদন্তে এবার এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টোরেটের (ইডি) আধিকারিকরা। দিল্লি পুলিস , মুম্বই পুলিস, ইডির সঙ্গে বিসিসিআইও পৃথক ভাবে অভ্যন্তরীণ তদন্তের উদ্যোগ নিয়েছে। বোর্ডের দুর্নীতি বিরোধ শাখার প্রতিনিধিরা আজ দিল্লি পুলিসের সঙ্গে দেখা করবেন। 

গড়াপেটার টাকার হদিশ পেতে কলকাতায় আসছে দিল্লি পুলিস

আইপিএলে স্পট ফিক্সিংয়ে বিতর্কের সঙ্গে যোগসূত্র খুঁজতে আজ ফের দেশ জুড়ে খানাতল্লাসি চালাবে দিল্লি পুলিস। পুলিস চেষ্টা করছে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এই গড়াপেটায় যুক্ত টাকা উদ্ধার করতে।

অন্যদিকে, জয়পুর পুলিস বিভিন্ন বুকির কল রেকর্ডের একটি তালিকা আজ প্রকাশ করবে বলে খবর। গত দু`মাস ধরে বুকিদের কাছ থেকে ৩০০টির বেশি মোবাইল ফোন উদ্ধার করে এই তালিকা তৈরি করা হয়েছে।

দোষ স্বীকার শ্রীসন্থের, পুলিসের নজরে আরও দুই ক্রিকেটার

স্পটফিক্সিংয়ের অভিযোগ স্বীকার করে নিলেন এস শ্রীসন্থ। পুলিস সূত্রে খবর আজ জেরায় নিজের অপরাধ কবুল করে নিলেন এই ভারতীয় পেসার।  তিনি জানিয়েছেন জিজু জনার্ধন নামের এক বুকি তাঁকে এই অপরাধের সঙ্গে যুক্ত করেছিলেন। এর আগে অবশ্য পুলিসি জেরায় ভেঙে পড়েন আর এক অভিযুক্ত অঙ্কিত চৌহান। তিনিও তাঁর দোষ কবুল করেছেন বলে খবর। আইপিএলে চাঞ্চল্যকর স্পটফিক্সিংয়ে মাফিয়া ডন দাউদ ইব্রাহিমের যোগাযোগের সম্ভাবনা তীব্র হয়ে উঠল। সূত্রে খবর এই গোটা স্পট ফিক্সিং সাগার মূল মস্তিষ্ক হিসাবে চিহ্নিত সুনীল রামচন্দানি ওরফে সুনীল দুবাই দাউদের অত্যন্ত ঘনিষ্ট। বুকি মহলে অবশ্য এই ব্যক্তি জুপিটার নামেই খ্যাত। চন্দ্রেশ নামক আর এক বুকি টেলিফোনে এই সুনীলকে জুপিটার নামেই সম্বোধন করেছে। অন্যদিকে, বুকিরা টাকার সঙ্গে সঙ্গে শ্রীসন্থ ও অন্য দুই অভিযুক্ত ক্রিকেটারকে মহিলা সঙ্গের যোগানও দিয়েছিল বলে তথ্যে উঠে এসেছে।