সবুজ-মেরুনে আরও একবার টুটু-অঞ্জন রাজ

সবুজ-মেরুনে আরও একবার টুটু-অঞ্জন রাজ

মোহনবাগানের নির্বাচনে জয়ী হল শাসক গোষ্ঠী। মোহনবাগানের শাসক গোষ্ঠীর পুরো প্যানেলই জয়যুক্ত হয়েছে। ফলে আগামী তিন বছরের জন্য মোহনবাগানে ক্ষমতাসীন হল টুটু বসু-অঞ্জন মিত্রের প্যানেলেরই।

ওডাফা-সবুজমেরুন মধুচন্দ্রিমা শেষের পথে

মোহনবাগান কর্তাদের সঙ্গে ক্রমশই দুরত্ব বাড়ছে ওডাফার। যে দুজনের মধ্যে হনিমুন পিরিয়ড শেষ তা ক্লাব সচিব অঞ্জন মিত্রের বক্তব্য থেকেও পরিষ্কার হয়ে যাচ্ছে। এমনকি শোনা যাচ্ছে ক্লাবের কাছ থেকে রিলিজও চাইতে পারেন ওডাফা।

অঞ্জনের পদত্যাগ জল্পনায় জল ঢাললেন অর্থসচিব

ঘরে বাইরে চাপটা দিন দিন বাড়ছে। আই লিগ থেকে নির্বাসিত হওয়ার পর মোহনবাগান কর্মকর্তাদের পদত্যাগ দাবি উঠছে খোদ ক্লাবের প্রাক্তন কিংবদন্তি ফুটবলারদের মুখ থেকে। মোহনবাগান সচিব অঞ্জন মিত্রদের পদত্যাগ দাবি করে ক্লাবের বাইরে বিক্ষোভও হয়েছে।

বিক্ষোভের মুখে বাগান কর্তারা, ক্রীড়ামন্ত্রীর সমর্থন

আই লিগ থেকে নির্বাসনের পর মোহনবাগান সমর্থকরা ক্ষোভে ফেটে পড়লেন। ক্লাব কর্তাদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ একেবারে চরমে উঠল। মোহনবাগান ক্লাব চত্ত্বরে কয়েকশো সমর্থক মুখে কালো কাপড়, স্লোগান তুলে কর্তাদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ দেখান। এমনকী ক্লাবে ঢুকতেও বাধা পান সচিব অঞ্জন মিত্র। বাদ যাননি অর্থ সচিব দেবাশিষ দত্তও। ফেসবুকেও বেশ কয়েকজন মোহন সমর্থককে ক্লাব কর্তাদের বিরুদ্ধে সরব হলেন।

মেরুন সবুজের দায়িত্ব এবার করিমের কাঁধে

সরকারি ঘোষণার শুধুমাত্র অপেক্ষা। মোহনবাগানের কোচ হিসেবে করিম বেঞ্চিরিফাই যে দায়িত্ব পেতে চলেছেন,তা ইতিমধ্যেই জেনে গিয়েছেন সবুজ-মেরুন সমর্থকরা। মরক্কোন কোচের হাত ধরেই এসেছিল মোহনবাগানে শেষ ট্রফি। আবার ট্রফির আশা বাড়ছে করিমকে ঘিরেই।

ব্যর্থতা কাটাতে মোহন সচিব এখন বেশি পরিশ্রমী

দলের ফুটবলারদের থেকে এখন বেশি পরিশ্রম করছেন মোহনবাগান সচিব অঞ্জন মিত্র। সোমবার লাজং ম্যাচের ফুটবলারদের বিশ্রাম দেওয়া হয়েছিল। টোলগেরা এলেও হাল্কা

স্ট্রেচিং করেই অনুশীলন শেষ করেন। কিন্তু যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে প্রচন্ড রোদের মধ্যে ঠায় বসে অনুশীলন দেখেন সচিব।